| ঢাকা, রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০

বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন মমতাজ

বিনোদন ডেস্ক . বিনোদন৬৯.কম
২০২৩ ডিসেম্বর ০৬ ২৩:১৯:২০
বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন মমতাজ

গত পাঁচ বছরে মানিকগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য সংগীতশিল্পী মমতাজ বেগমের সম্পদ ও আয় বেড়েছে। তবে বাড়েনি নগদ টাকার পরিমাণ। ঋণ কমেছে। এ ছাড়াও তিনি দুটি ফৌজদারি মামলার আসামি। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দাখিল করা হলফনামায় তার আয়-ব্যয়ের তথ্য বিশ্লেষণ করে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

মানিকগঞ্জের সিংগাইর ও হরিরামপুর উপজেলা এবং সদর উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন পরিষদ নিয়ে গঠিত মানিকগঞ্জ-২ আসন। এ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রতীকী নৌকা নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচনে লড়বেন মমতাজ বেগম। তবে এবারের নির্বাচনে তিনি ছাড়াও এ আসনে আটজন স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। নির্বাচনে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কারণে কঠিন পরীক্ষার সম্মুখীন হচ্ছেন তিনি।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মমতাজ বেগমের মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামার তথ্য বিবরণী বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গত পাঁচ বছরে মমতাজ বেগমের নগদ অর্থের পরিমাণ না বাড়লেও বেড়েছে আয় ও সম্পদের পরিমাণ। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় নির্বাচনের হলফনামার তথ্য অনুযায়ী- তার বাৎসরিক আয় ছিল ৩৮ লাখ ৮৪ হাজার ২৭৬ টাকা। বর্তমানে তার আয় দেখানো হয়েছে ৪৯ লাখ ৫৭ হাজার ৮৮৮ টাকা।

অন্যদিকে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনামার তথ্য অনুযায়ী- মমতজ বেগমের আয় ছিল ৭৯ লাখ ২৬ হাজার ৮৩৪ টাকা। এর মধ্যে কৃষি খাতে ৭০ হাজার, ব্যবসা থেকে ১০ লাখ ৮৪ হাজার ৯৫৩ টাকা, শেয়ার, সঞ্চয়পত্র/ব্যাংক আমানত থেকে ৩০ লাখ, তার পেশা থেকে ৩ লাখ ৩০ হাজার আর অন্যান্য থেকে ৩৪ লাখ ৪১ হাজার ৮৮১ টাকা আয় দেখিয়ে ছিলেন মমতাজ। তবে সে সময় বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট অথবা দোকান বা অন্যান্য এই খাতে কোনো আয়ই ছিল না মমতাজ বেগমের।

বর্তমানে বিভিন্ন খাত থেকে মমতাজ বেগমের বার্ষিক আয় ৪৯ লাখ ৫৭ হাজার ৮৮৮ টাকা। এর মধ্যে কৃষি খাত থেকে ৩ লাখ টাকা, বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট অথবা দোকান ভাড়া থেকে ১০ লাখ ৮২ হাজার ৯৯৭ টাকা, শেয়ার, সঞ্চয়পত্র/ব্যাংক আমানত থেকে ৫ লাখ ৫৬ হাজার ৮৫১ টাকা, পেশা থেকে ৭ লাখ টাকা, সংসদ সদস্য ভাতা ৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা ও আনুষঙ্গিক পারিতোষিক বাবদ ১৬ লাখ ৫৮ হাজার টাকা আয় করেন তিনি।

অস্থাবর সম্পত্তি হিসেবে মমতাজ বেগমের হাতে আছে নগদ ৫ লাখ টাকা, তার স্বামীর নামেও নগদ অর্থ আছে ৫ লাখ টাকা। আর একাদশ জাতীয় নির্বাচনের হলফনামাও তার নগদ টাকা ছিল ৫ লাখ আর তার স্বামী ডা. মঈন হাসানের নামে ছিল ২ লাখ। কিন্তু ২০১৪ সালের দশম জাতীয় নির্বাচনে নিজের নগদ অর্থ ছিল ২ লাখ ২০ হাজার টাকা আর স্বামীর নামে কোনো টাকাই ছিল না।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে তার জমা অর্থের পরিমাণ ১৮ লাখ ৮৫ হাজার ২১৮ টাকা। স্বামীর নামে ১৮ লাখ। যা ২০১৮ সালের নির্বাচনের হলফনামায় ছিল ৮৬ লাখ ৯৯ হাজার ১৯৭ টাকা এবং ২০১৪ সালের হলফনামায় ছিল ৩০ লাখ টাকা এবং স্বামীর নামে ছিল ২০ লাখ টাকা। মধু উজালা কোল্ড স্টোরেজ লিমিটেডের ৩ কোটি ৫০ লাখ ৭০ হাজার টাকা মূল্যের শেয়ার আছে তার। সঞ্চয়পত্র আছে ৪৫ লাখ টাকার।

মমতাজ বেগমের নামে গাড়ি আছে তিনটি। ল্যান্ডক্রুজার নামে একটি গাড়ির দাম ১ কোটি ৩ লাখ ১২ হাজর ৫০০ টাকা। এ ছাড়া ল্যান্ডক্রুজার ভি-৮ মডেলের গাড়ির দাম ৪৬ লাখ ২০ হাজার টাকা এবং ২৮ লাখ টাকা মূল্যের টয়োটা হাইয়েস আছে। আর স্বামীর ৮ লাখ টাকা মূল্যের একটি ১৩০০ সিসি ফান কার্গো গাড়ি রয়েছে। আর ২০১৪ সালের হলফনামায় তার স্বামীর নামে কোনো গাড়ি দেখাননি তিনি। নির্ভরশীলদের নামে মধু উজালা কোল্ড স্টোরেজের শেয়ার আছে ৬৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকার।

কৃষি জমি না বাড়লেও ৫ বছরে মমতাজের ৭০০ শতাংশ অকৃষি জমি কমেছে। ২০১৮ সালের নির্বাচনে হলফনামা অনুযায়ী তার অকৃষি জমি ছিল ১২০০ শতাংশ। ২০২৩ সালে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৫০০ শতাংশে। আর ২০১৪ সালের হলফনামা অনুযায়ী অকৃষি জামির পরিমাণ ছিল ৫ কাটা, যার মূল্য ছিল ৫ কোটি টাকা। মহাখালীতে ৫ তলা বিশিষ্টি একটি বাড়ি রয়েছে তার যার মূল্য দেখানো হয়েছে ৬ কোটি ৯৯ লাখ ৯৮ হাজার ৫০০ টাকা আর সিংগাইরের জয়মন্টপ এলাকায় ২ তলা বিশিষ্ট একটি বাড়ি আছে মমতাজের। যার মূল্য দেখানো হয়েছে ৫৭ লাখ ৫ হাজার ৪৪০ টাকা। অন্যদিকে ২০১৪ সালের হলফনামা অনুযায়ী তার নিজ নামে কোনো বাড়ির তথ্য ছিল না। তবে নিজ নামে একটি কোল্ড স্টোরেজ ছিল, যার মূল্য ছিল ৯০ লাখ টাকা।

হলফনামায় নিজের পরিচয়ে মৃত বাবার নাম উল্লেখ থাকলেও মমতাজের স্বামীর নামে নগদ ৫ লাখ টাকা, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমা ১৮ লাখ টাকা এবং ১৩০০ সিসি ফান কার্গো নামে একটি গাড়ি দেখানো হয়েছে। গাড়িটির মূল্য ৮ লাখ টাকা।

৫ বছরে প্রায় ৫২ লাখ ৫৩ হাজার টাকার ঋণের পরিমাণ কমেছে মমতাজের। ২০১৮ সালে মমতাজের ব্যাংক ঋণ ছিল ৩ কোটি ৩৪ লাখ ১১ হাজার ৪৬৪ টাকা। ২০২৩ সালের হলফনামায় ব্যাংক ঋণ দেখানো হয়েছে ২ কোটি ৮১ লাখ ৫৮ হাজার টাকা। আর ২০১৪ সালের হলফনামায় ব্যক্তিগত ঋণ দেখিয়ে ছিলেন ৪০ লাখ টাকা। ভারতের বহরমপুর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতে এবং কলকাতার হাইকোর্টে মমতাজের বিরুদ্ধে দুটি ফৌজদারি মামলা চলমান আছে।

মমতাজ বেগম এবারের হলফনামায় তার স্বর্ণের পরিমাণ দেখিয়েছেন ৫০ তোলা, যার মূল্য ৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকা। ২০১৮ ও ২০১৪ সালের হলফনামায় স্বার্ণের পরিমাণ দেখানো হয়েছিল ৩৫ ভরি, যার মূল্য দেখানো হয়েছিল ৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকা।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মানিকগঞ্জ-২ আসনে যাচাই-বাছাই শেষে ১৪ জন প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমসহ ৭ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা রেহেনা আকতার।

মানিকগঞ্জের তিনটি আসনে ২১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে। তবে মনোনয়নপত্রে ত্রুটি আর ঋণ খেলাপির কারণে ১২ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যায় যাচাই-বাছাইয়ে।

আপনার জন্য নির্বাচিত নিউজ

ক্রিকেট

চ্যাম্পিয়ন হয়ে সাকিবকে খোঁচা মেরে মুখ খুললেন তামিম

চ্যাম্পিয়ন হয়ে সাকিবকে খোঁচা মেরে মুখ খুললেন তামিম

মৌসুমের শুরুতে তার ব্যাটিং নিয়ে অনেক সমস্যা হয়েছে। তবে প্রথম কয়েকটি ম্যাচের পর রংপুর রাইডার্স ...

বিপিএলের সেরা একাদশে সাকিব-তামিম, আরো আছে যারা!

বিপিএলের সেরা একাদশে সাকিব-তামিম, আরো আছে যারা!

ফরচুন বরিশাল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে বিপিএল ১০ম আসরের শিরোপা জিতেছে। তামিমের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ফাইনালে কুমিল্লাকে ...

ফুটবল

কোপার আগে চীনে দুই ম্যাচ বাতিলে চার ম্যাচ খেলার সুযোগ পেল মেসিরা, সূচি চূড়ান্ত প্রকাশ

কোপার আগে চীনে দুই ম্যাচ বাতিলে চার ম্যাচ খেলার সুযোগ পেল মেসিরা, সূচি চূড়ান্ত প্রকাশ

দুটি ম্যাচ বাতিল হওয়ার পর চারটি ম্যাচ দেখার সুযোগ পেয়েছে আর্জেন্টিনা। চীন-মার্কিন দ্বন্দ্বের ফল পেয়েছে ...

একসাথে শক্তিশালী দল ঘোষণা করলো ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

একসাথে শক্তিশালী দল ঘোষণা করলো ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

কোপা আমেরিকাকে সামনে রেখে পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি শুরু করেছে ল্যাটিন আমেরিকার দুই জায়ান্ট দল ব্রাজিল ও ...



রে