| ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯

৫ ওভারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সংগ্রহ

২০২২ ফেব্রুয়ারি ০৩ ২০:৩৭:১৭
৫ ওভারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সংগ্রহ

বিপিলের দ্বিতীয় ম্যাচে বৃষ্টির কারণে প্রায় ১ ঘন্টা সময় নষ্ট হয়। এরপর বৃষ্টি আইনে খেলা নির্ধারিত হয় ১৮ ওভারে। বৃষ্টির আগে বড় সংগ্রহের দিকে এগোতে থাকা চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের লাগাম টেনে ধরেন মোস্তাফিজুর রহমান। দুর্দান্ত এক স্পেলে তুলে নেন পাঁচ উইকেট। এতেই বৃষ্টি আইনে নির্ধারিত ১৮ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৮ রান তুলতে পারে চট্টগ্রাম।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে স্কোরবোর্ডে কোনো রান যোগ করার আগেই নাহিদুল ইসলামের শিকার হয়ে ফেরেন চ্যালেঞ্জার্স ওপেনার চ্যাডউইক ওয়াল্টন। এরপর আফিফ হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে ৬২ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়েন উইল জ্যাকস। ২১ বলে ২৭ রান করে তানভির ইসলামের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন আফিফ। এরপর শামিম হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে দলকে বড় সংগ্রহের পথেই রাখেন উইল জ্যাকস।

তবে ইনিংসের ১৩তম ওভারের পাঁচ বল হয়ে যাওয়ার পর মিরপুর শের-ই-বাংলার আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামে। দীর্ঘ সময় পর বৃষ্টি থামলে খেলা মাঠে গড়ায় আবারও। ১৪তম ওভারে বল হাতে এসে দুই সেট ব্যাটারকে তুলে নেন মোস্তাফিজুর রহমান। আর এতেই ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে নেয় কুমিল্লা। প্রথমে শামিম হোসেনকে নাহিদের তালুবন্দি করেন ফিজ এরপর ওই ওভারের শেষ বলে উইল জ্যাকসকে ফাফ ডু প্লেসিসের তালুবন্দি করান এই টাইগার পেসার।

শামিম হোসেন ২২ বলে ২৬ আর উইল জ্যাকস ৩৭ বলে ৫৭ রান করে যখন ফিরছেন চট্টগ্রামের স্কোরবোর্ডে তখন রান সংখ্যা ১৪ ওভারে ৪ উইকেটে ১১৫। এর এক ওভার পরে আবারও বল হাতে আসেন ফিজ। এসেই তুলে নেন চট্টগ্রামের অধিনায়ক নাঈম ইসলামকে আর এক বল পরে বেনি হাওয়েলের বড় উইকেটটিও নেন তিনিই। এতেই চট্টগ্রামের বড় স্কোর গড়ার স্বপ্নে ছেঁদ টানেন ফিজ।

শেষ ওভারে বল হাতে এসে মেহেদি হাসান মিরাজকে তুলে নিয়ে পূর্ণ করেন পাঁচ উইকেটের কোটা। এটি টি-টোয়েন্টিতে ফিজের তৃতীয় পাঁচ উইকেটের রেকর্ড। চট্টগ্রামের বিপক্ষে ৪ ওভারে ২৭ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট নেন টাইগার পেসার। তার দুর্দান্ত বোলিংয়ে চট্টগ্রাম নির্ধারিত ১৮ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৮ রান তুলতে পারে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড:

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স: ১৮ ওভার, ১৩৮/৮; (ওয়াল্টন ০, উইল ৫৭, আফিফ ২৭, শামিম ২৬, হাওয়েল ৩, নাঈম ৩, মিরাজ ৪, আকবর ১২*,মৃত্যুঞ্জয় ০)); (নাহিদুল ৩-০-২১-১, তানভির ৩-০-২১, নারিন ৪-০-৩২-০, মোস্তাফিজ ৫-০-২৭-৫, মঈন ৩-০-২৭-০, সুমন ১-০-৭-০)

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স একাদশ স্কোরকার্ড : ইমরুল কায়েস ২৭ বলে ৩২ রান করে এখনো খেলছে অন্যদিকে লিটন ১২ বলে ১৫ রান করে খেলছেন।

পাঠকের মতামত:

ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ এর সর্বশেষ খবর

ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ - এর সব খবর



রে