| ঢাকা, বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

হঠাৎ-ই সাকিবকে ৩ লাখ টাকা দিতে চাচ্ছে ব্যারিস্টার সুমন, গোঁপন রহস্য ফাঁস

২০২২ আগস্ট ১২ ১৯:২৪:৩৭
হঠাৎ-ই সাকিবকে ৩ লাখ টাকা দিতে চাচ্ছে ব্যারিস্টার সুমন, গোঁপন রহস্য ফাঁস

সাকিব আল হাসান ও বিতর্ক একই মায়ের দুই সন্তান। এর আগেও বহু বিতর্কে জড়িয়েছেন এবং সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। জুয়ার একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বড় চুক্তি করে আবারও আলোচনায় সাকিব।

পরিস্থিতি এমন ছিল, এই চুক্তি না হলে বাংলাদেশ ক্রিকেটে সাকিব-অধ্যায় শেষ হয়ে যাবে বলেও হুমকি দিয়েছে বিসিবি। অবশেষে চুক্তি বাতিল করলেন সাকিব। কিন্তু সেখানে প্রচুর ঘোলা পানি।

একটা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে- সাকিবের কাছে টাকাই সব? এই চুক্তিতে সই করার আগে তিনি কি নিজের ভাবমূর্তি নিয়ে ভাবেননি?

যে কোনো মূল্যে টাকা কামাতে হবে, সাকিবের এমন মনোভাব নিয়ে এবার একহাত নিলেন ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক ভিডিওবার্তায় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে ধুয়ে দিয়েছেন তিনি। প্রস্তাব দিয়েছেন, নিজের কাছে থাকা ৩ লাখ টাকা সাকিবকে দেওয়ার।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘আমার কাছে ৩ লাখ টাকা আছে পারিবারিক খরচের জন্য। আমার কাছে মনে হয়, সাকিবকে যদি ৩ লাখ টাকা দেই, তবু যদি তার টাকা ইনকামের জন্য ভেতর থেকে যে ক্রাশ, সেটা যদি কমে।’

‘সাকিব জুয়ার তথ্য গোপনের দায়ে এক বছর ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ছিলেন। ইদানীং আবার একটি জুয়াড়ি প্রতিষ্ঠানের সাথে শুভেচ্ছাদূত হওয়ার কারণে বিসিবি তাকে বলছে, হয় ক্রিকেট খেলবে না হয় জুয়াতে যাবে। বাধ্য হয়ে তিনি এই চুক্তি বাতিল করেছেন।

দায়িত্ব কি সব রাজনীতিবিদদের? এই লোকটার দেড় কোটি ফলোয়ার। সব ইয়াং ফলোয়ার। তার যত কর্মকাণ্ড, মানুষ বলে নিজের জন্য সে খেলে, দেশের জন্য খেলে না। সাকিব টাকার বিষয়ে কোনো কম্প্রোমাইজ করে না।’

এই যে একজন ক্রিকেটার সেলেব্রেটি, তিনি বাংলাদেশের তরুণদের কি সিগন্যাল দিয়ে যাচ্ছেন? তিনি বোঝাচ্ছেন, যেভাবে পারো টাকা ইনকাম করো বাংলাদেশের মাটি-বাতাস ব্যবহার করে। তুমি সেলেব্রিটি হওয়ার পর বাংলাদেশের চিন্তা বাদ দাও।’

সাকিব এটা বলছেন তরুণদের, জুয়া হোক যেভাবে হোক সুযোগ পেলে জুয়ার মাধ্যমে দেশ বেচে ফেলো, তবু তুমি বউ-বাচ্চা নিয়ে আরামে থাকো।’

সাকিবকে টাকার কথা নয়, দেশের কথা ভাবার পরামর্শ দিয়ে ব্যারিস্টার সুমন আরও বলেন, ‘সাকিব একটা মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা মানুষ। তার ক্রিকেটের মেধা নিয়ে প্রশংসা করি। কিন্তু একটা মানুষ যদি দেশের না হয়, তবে কিভাবে হবে? ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ বড়।

আল্লাহ কি তাকে ক্রিকেট জ্ঞান দিয়েছে, বিবেক বলে কিছু দেয়নি? সাকিব আল হাসানরা যদি ঠিক না হয়, সাকিবকে ফলো করে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা, ফুটবলাররা। এরা কি শিখছে তার কাছ থেকে?

আমার তার প্রতি কোনো বক্তব্য দেওয়ার নেই। আমি শুধু ঘৃণা প্রকাশ করেছি এমন মানুষের প্রতি। টাকা তো আল্লাহ তাকে কম দেয়নি। অনেক ইনকাম করেছে। এত বড় সেলেব্রিটি হয়ে দেশের নাম ব্যবহার করে, এখন দেশের বারোটা বাজাতে চাও? দেশটা বাঁচাবে কে? তুমি তো আমেরিকা চলে যাবা। যারা এখানে থাকবে, তাদের কী হবে?’

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে