| ঢাকা, বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

মুম্বাইয়ের কাছে হারায় দিল্লি কে অপমান ক্রে কোহলির টুইট বার্তা

২০২২ মে ২২ ১০:৩৭:২৫
মুম্বাইয়ের কাছে হারায় দিল্লি কে অপমান ক্রে কোহলির টুইট বার্তা

গতকাল রাতে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা সর্বশেষ দল মম্বাইয়ের কাহে সহজ ম্যাচ হেরেছে দিল্লি। এই ম্যাচ হারার পরে এবারের আইপিএল থেকে বিদায় নিল দিল্লি। আর প্লে-অফে নিশ্চিত হয়ে গেল কোহলীরা।

বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্দ্বের কারণে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সাথে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের একটা দ্বৈরথ দেখেন অনেকেই। অথচ সেই মুম্বাই-ই এবার প্লে-অফে তুলল ব্যাঙ্গালোরকে! শুনতে অবাক লাগলেও আইপিএলের পয়েন্ট টেবিলের লড়াই এমন দৃশ্যেরই অবতারণা করেছে।

ভরাডুবির মৌসুমে মুম্বাই সবার আগে প্লে-অফের দৌড় থেকে ছিটকে পড়ে। নিজেদের শেষ ম্যাচে দিল্লী ক্যাপিটালসের মুখোমুখি হয়েছিল রোহিতের দল। এই ম্যাচ মুম্বাই হারলে দিল্লী উঠে যেত শেষ চারে। আর মুম্বাই জিতলে আসলে জিতে যেত ব্যাঙ্গালোর। কারণটা স্পষ্ট- জয়ের পরও মুম্বাই তলানিতে থেকে গেলেও ব্যাঙ্গালোর উঠে গেছে শেষ চারে।

এই ম্যাচে তাই মুম্বাই ভক্তদের চেয়েও মুম্বাই বেশি সমর্থন পেয়েছে ব্যাঙ্গালোরের কাছ থেকে। গ্যালারিতেও ব্যাঙ্গালোরের জার্সি পরা বেশ ক’জন দর্শককে দেখা গেছে। ফাফ ডু প্লেসি, বিরাট কোহলিরা তো দল বেঁধে, আয়োজন করে দেখেছেন রোহিতদের খেলা। কোহলি কায়মনোবাক্যে চেয়েছেন ‘শত্রু’ রোহিতের জয়। রোহিত ১৩ বলে ২ রান করা নিয়ে অনেকে ফিসফাস শুরু করে দিয়েছিলেন। তবে খানের কিনারা থেকে মুম্বাইকে শেষপর্যন্ত জেতালেন টিম ডেভিড, যিনি ম্যাচ শেষে দিলেন মজার এক তথ্য।

ব্যাঙ্গালোরের দলপতি ফাফ ডু প্লেসি নাকি ম্যাচের দিন (২১ মে) সকালে একটি ছবি ম্যাসেজ করেছিলেন ডেভিডকে, যে ছবিতে ডু প্লেসির সাথে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল আর বিরাট কোহলির গায়ে পরা ছিল মুম্বাইয়ের জার্সি। ডেভিড বলেন, ‘আজ সকালে ফাফের কাছ থেকে একটা ম্যাসেজ পাই। সেখানে তার, কোহলির ও ম্যাক্সির মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জার্সি পরা ছবি ছিল। আমি হয়ত এটা ইনস্টাগ্রামেও পোস্ট করব!’

এখনও অবশ্য ডেভিড ছবিটা ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেননি। তবে মুম্বাই-দিল্লী ম্যাচ নিয়ে ব্যাঙ্গালোরের উৎসাহের রেশ এখনও রয়ে গেছে। এই ম্যাচ নিয়ে বেশ সরব ছিল ব্যাঙ্গালোরের সোশ্যাল মিডিয়া টিম। দলটির থিম লাল রঙা। তবে মুম্বাইয়ের সমর্থনে এদিন প্রোফাইল পিকচার বদলে করা হয়েছিল নীল। যদিও মুম্বাই ম্যাচ জেতার পরপরই আবারও লাল রঙে লোগো রাঙিয়ে প্রোফাইল পিকচার পরিবর্তন করা হয়েছে। যদিও গোটা মুম্বাইয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে পোস্ট দেওয়া হয়েছে ফেসবুক, টুইটারে।

মুম্বাই এই ম্যাচ জিতেও ১০ম স্থানে থেকে আইপিএল শেষ করেছে। ১৪টি ম্যাচ খেলে এবার মাত্র ৪টি ম্যাচ জিতেছে মুম্বাই। একই দশা চেন্নাই সুপার কিংসেরও। তবে রান রেটে এগিয়ে থাকায় মহেন্দ্র সিং ধোনির দল আছে রোহিতদের ওপরে।

দিল্লীর বিরুদ্ধে অবিশ্বাস্য জয় এনে দেওয়ার পেছনে পূর্ণ কৃতিত্ব দেওয়া যেতে পারে ডেভিডকে। তিনি যখন ক্রিজে নেমেছেন, জয় তখনও মুম্বাইয়ের নাগালের বাইরে। দিল্লী হয়ত ততক্ষণে এলিমিনেটর ম্যাচের হিসেবনিকেশ কষাও শুরু করে দিয়েছে। তবে সব হিসেবনিকেশ ভণ্ডুল করে মাত্র ১১ বলে ৩৪ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন ডেভিড, হাঁকান ২টি চার ও ৪টি ছক্কা।

তার শটগুলো যখন সীমানা ছাড়িয়ে যাচ্ছে, তখন দিল্লীর অধিনায়ক রিশভ পান্টের মুখের দিকে তাকান যাচ্ছিল না। অথচ রিভিউ হাতছাড়া করে তিনিই তো জীবন এনে দিয়েছেন ডেভিডকে! হার মেনে নেওয়া পুরোপুরি অবিশ্বাস্য ছিল দিল্লীর অধিনায়কের জন্য। ক্লান্ত, উদ্ভ্রান্ত, কিংকর্তব্যবিমূঢ় পান্টকে ম্যাচ শেষে দেখে মনে হল তাই, ব্যাকগ্রাউন্ডে বাজছে মহীনের ঘোড়াগুলির গান, ‘একি কাণ্ড, সব পণ্ড, এই ব্রহ্মাণ্ড শূন্য লাগে!’

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে