| ঢাকা, সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯

চরম দুসস্নগবাদঃ রাহুলের কান্নায় ভারী হয়ে উঠেছিল পল্টন ময়দান

২০২২ জুলাই ০৬ ২১:৩৮:৪৭
চরম দুসস্নগবাদঃ রাহুলের কান্নায় ভারী হয়ে উঠেছিল পল্টন ময়দান

বেনাপোল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অধিনায়ক সাইদুর রহমান রাহুলকে মঞ্চে ডাকা হলো পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে যখন টুর্নামেন্টসেরার ক্রেস্ট নেওয়ার জন্য, তখনও তিনি দুই হাটুর মাঝে মাথা গুঁজে কান্না করেই চলেছেন। পুরস্কার নিতে মঞ্চে উঠছিলেন মাথা নিচু করে। হাতে ক্রেস্ট নিয়ে মুখ ভার করেই নেমে গেলেন।

রেফারি যখন ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজালেন তখনই মাটিতে উপুড় হয়ে শুয়ে কান্না শুরু করেন রাহুল। সবাই এসে তাকে স্বান্তনা দেওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হচ্ছিলেন। পাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে, শুয়ে-বসে কান্না করছিলেন রাহুলের সতীর্থরাও। রাহুলের কান্নার সময় যারা আশপাশে ছিলেন তাদের চোখও পানিতে টলমল করছিল। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষ ছমির উদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ফুটবলাররা এসে রাহুলকে স্বান্তনা দিতে শুরু করেন।

একটা ফাইনাল হারা মানেই একটা স্বপ্নের মৃত্যু। সেটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না রাহুল। কঠিন এক শোক যেন তার বুকের মধ্যে। প্রতিক্রিয়া জানানোর সময় বারবার কান্নায় ভেঙ্গে পড়ছিলেন। পড়বেন নাই বা কেন? ফাইনালে তো তার দলই খেললো পুরো সময়। চ্যাম্পিয়ন হওয়া দলটি একটি সুযোগ কাজে লাগিয়ে গোল করে ম্যাচ জিতে গেলো। রাহুলরা পারলো না হালি হালি গোলের সুযোগ তৈরি করেও।

গ্রুপ পর্বে এই দলকেই ৪-০ গোলে হারিয়েছিল যশোরের দলটি। ফাইনালে সেই দলের কাছে ১-০ গোলে হার। ৮০ মিনিটের ম্যাচের বেশিভাগ সময় প্রাধান্য নিয়ে খেলেছে বেনাপোলের দলটি। আগে কোনো ম্যাচ না হারা দলটি ফাইনাল হারলো- যে ম্যাচটাই ছিল তাদের স্বপ্ন পূরণের।

কেন পারলো না ফাইনালে? রাহুল দুটি কারণ উল্লেখ করেছেন। ‘এক. ভাগ্য তাদের পক্ষে ছিল না, দুই. রেফারিং আমাদের বিপক্ষে ছিল। আমরা দুটি পেনাল্টি পাই ম্যাচে। একটি ফাউলের কারণে, অন্যটি হ্যান্ডবলের কারণে। একটিও দেয়নি রেফারি।’

কিন্তু গোল মিসের দায় কে নেবে? বেনাপোল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অধিনায়ক সেখানে ভাগ্যকেই দায়ী করলেন। অন্তত চারটি গোল তাদের হতে পারতো বলে মনে করেন রাহুল। 'একাদশের দুইজন খেলোয়াড়কে ফাইনালে পায়নি বেনাপোল মাধ্যমিক বিদ্যালয়। যার একজন অলিদ হাসান এই ছমির উদ্দিন স্কুল্ অ্যান্ড কলেজের বিপক্ষে গ্রুপ ম্যাচে গোল করেছিলেন। সেমিফাইনালে লালকার্ড পাওয়ায় খেলতে পারেননি তিনি।’

পাঠকের মতামত:

ফুটবল এর সর্বশেষ খবর

ফুটবল - এর সব খবর



রে