| ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

শেষ ওয়ানডেতে তারকা ক্রিকেটারকে হারালো অস্ট্রেলিয়া

২০২২ জুন ২৩ ১৭:৫৭:৩৪
শেষ ওয়ানডেতে তারকা ক্রিকেটারকে হারালো অস্ট্রেলিয়া

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে আরেকটি ধাক্কা খেল। হ্যামস্ট্রিং চোটে লঙ্কান সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডে থেকে ছিটকে পড়েছেন ট্রাভিস হেড। মিডল অর্ডার এই ব্যাটসম্যানকে প্রথম টেস্টে পাওয়া নিয়েও রয়েছে আরেক শঙ্কা।

সিরিজের ৪র্থ ম্যাচে মঙ্গলবার ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে ফিল্ডিংয়ের সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগে হেডের। পরে অবশ্য ব্যাটিং করেন তিনি। আগামী বুধবার শুরু হবে শ্রীলঙ্কা-অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্ট। সেরে উঠতে মাঝে কেবল ছয় দিন সময় পাচ্ছেন হেড।

দুই টেস্টের সিরিজের প্রথমটিতে হেড খেলতে না পারলে মিডল অর্ডার নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে অস্ট্রেলিয়াকে।

অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে এই মুহূর্তে হেডের কাভার হিসেবে কোনো বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান নেই। মিচেল মার্শ ও জশ ইংলিস যদিও আছেন দলে। তবে মার্শ ৩২ টেস্টের সবশেষটি খেলেছেন ২০১৯ সালে, আর কিপার-ব্যাটসম্যান ইংলিসের তো এখনও টেস্ট অভিষেকই হয়নি।

শ্রীলঙ্কায় সম্প্রতি সফর শেষ করা অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দল থেকে ক্রিকেটারকে টেস্ট দলে যোগ করার সম্ভাবনা রয়েছে। মার্কাস হ্যারিস, ম্যাট রেনশ ও নিক ম্যাডিসনকে মিডল অর্ডারের ভাবনায় দলে টানতে পারে অস্ট্রেলিয়া। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের টেস্ট দলের ফেরার সম্ভাবনাও তৈরি হয়েছে।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে নিজের জুতার স্পাইকের সঙ্গে লেগে আঙুল কেটে যাওয়া অভিজ্ঞ পেসার মিচেল স্টার্ক এখনও মাঠে ফিরতে পারেননি। আবার ফিটনেস সমস্যায় ভুগছেন স্টিভেন স্মিথও। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান সবশেষ দুই ওয়ানডেতে খেলেননি। টেস্ট সিরিজের কথা মাথায় রেখে পঞ্চম ম্যাচে তাকে নিয়ে ঝুঁকি নেওয়ার সম্ভাবনা তাই ক্ষীণ।

শ্রীলঙ্কা সফরে আসার পর থেকে চোটে পড়ছেন অস্ট্রেলিয়ার একের পর এক ক্রিকেটার। আঙ্গুল ভেঙে টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছিটকে যান পেসার শন অ্যাবট। তিনি অবশ্য নেই ওয়ানডে ও টেস্ট দলে। এরপর কেন রিচার্ডসন, মার্কাস স্টয়নিস, অ্যাশটন অ্যাগার, মার্শ পড়েন চোটে।

শুক্রবার পঞ্চম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কা। পাঁচ ম্যাচের সিরিজটি ৩-১ ব্যবধানে এরই মধ্যে জিতে নিয়েছে স্বাগতিকরা। গত মঙ্গলবার ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে ফিল্ডিংয়ের সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগে হেডের। পরে অবশ্য ব্যাটিং করেন তিনি। আগামী বুধবার শুরু হবে শ্রীলঙ্কা-অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্ট। সেরে উঠতে মাঝে কেবল ছয় দিন সময় পাচ্ছেন হেড।

দুই টেস্টের সিরিজের প্রথমটিতে হেড খেলতে না পারলে মিডল অর্ডার নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে অস্ট্রেলিয়াকে।

অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে এই মুহূর্তে হেডের কাভার হিসেবে কোনো বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান নেই। মিচেল মার্শ ও জশ ইংলিস যদিও আছেন দলে। তবে মার্শ ৩২ টেস্টের সবশেষটি খেলেছেন ২০১৯ সালে, আর কিপার-ব্যাটসম্যান ইংলিসের তো এখনও টেস্ট অভিষেকই হয়নি।

শ্রীলঙ্কায় সম্প্রতি সফর শেষ করা অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দল থেকে ক্রিকেটারকে টেস্ট দলে যোগ করার সম্ভাবনা রয়েছে। মার্কাস হ্যারিস, ম্যাট রেনশ ও নিক ম্যাডিসনকে মিডল অর্ডারের ভাবনায় দলে টানতে পারে অস্ট্রেলিয়া। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের টেস্ট দলের ফেরার সম্ভাবনাও তৈরি হয়েছে।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে নিজের জুতার স্পাইকের সঙ্গে লেগে আঙুল কেটে যাওয়া অভিজ্ঞ পেসার মিচেল স্টার্ক এখনও মাঠে ফিরতে পারেননি। আবার ফিটনেস সমস্যায় ভুগছেন স্টিভেন স্মিথও। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান সবশেষ দুই ওয়ানডেতে খেলেননি। টেস্ট সিরিজের কথা মাথায় রেখে পঞ্চম ম্যাচে তাকে নিয়ে ঝুঁকি নেওয়ার সম্ভাবনা তাই ক্ষীণ।

শ্রীলঙ্কা সফরে আসার পর থেকে চোটে পড়ছেন অস্ট্রেলিয়ার একের পর এক ক্রিকেটার। আঙ্গুল ভেঙে টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছিটকে যান পেসার শন অ্যাবট। তিনি অবশ্য নেই ওয়ানডে ও টেস্ট দলে। এরপর কেন রিচার্ডসন, মার্কাস স্টয়নিস, অ্যাশটন অ্যাগার, মার্শ পড়েন চোটে।

শুক্রবার পঞ্চম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কা। পাঁচ ম্যাচের সিরিজটি ৩-১ ব্যবধানে এরই মধ্যে জিতে নিয়েছে স্বাগতিকরা।

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে