| ঢাকা, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ইংল্যান্ডের কাছে ভারতের লজ্জাজনক হারের মুল ১০ কারন

২০২২ নভেম্বর ১০ ২০:৪৩:০৬
ইংল্যান্ডের কাছে ভারতের লজ্জাজনক হারের মুল ১০ কারন

চলতি টি-২০ বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান ফাইনালের স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেল। ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জস বাটলার ও অ্যালেক্স হেলসের আগুন ঝরানো ব্যাটিংয়ের কাছে নাস্তানুবাদ হয়ে ১০ উইকেটের পরাজয় বরণ করে ভারতীয় দল। এই হারে বিশ্বকাপ থেকে লজ্জার বিদায় নিল রোহিত শর্মার দল।

আজ বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) অ্যাডিলেড ওভালে ইংল্যান্ডের কাছে ২৪ বল হাতে রেখে ১০ উইকেটের পরাজয়ের কারণ কি? সেসব কারণই পাঠকদের জন্য খুঁজে বের করেছে আরটিভি নিউজ।

(১) অ্যাডিলেডে ইংলিশদের বিপক্ষে টসে হারে ভারত। যদিও রোহিত শর্মা টস জিতলে শুরুতে ব্যাটই করতেন বলে বলেছিলেন,

(২) ব্যাটিংয়ের শুরুতেই ওপেনার লোকেশ রাহুলের বিদায়। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই মাত্র ৫ রান করে ক্রিস ওকসের বলে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান এই ওপেনার।

(৩) পাওয়ার প্লেতে বড় স্কোর করতে পারেনি ভারতীয় ব্যাটাররা। এই সময়ে ভারত মাত্র ৩৮ রান তোলে। যার ফলে শুরু থেকেই পিছিয়ে পড়ে ভারত।

(৪) অধিনায়ক রোহিত শর্মার সাম্প্রতিক ফর্ম। এই ম্যাচেও ২৮ বলে ২৭ রান করেন তিনি। তবে এটি তার নামের পাশে বেমানান।

(৫) প্রথম দশ ওভারে ভারত বড় স্কোর করতে না পারা। এই সময়ে স্কোরবোর্ডে মাত্র ৬২ রান ওঠে তাদের।

(৬) পুরো টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সূর্যকুমার যাদবও এদিন ব্যর্থ হন। ঝড় তোলার আগেই ১০ বলে মাত্র ১৪ রান করেন তিনি।

(৭) ম্যাচে সব মিলিয়ে ভারতীয় ব্যাটিং চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। বিরাট কোহলি-হার্দিক পান্ডিয়া ছাড়া কোনও বড় জুটি হয়নি। সার্বিক ভাবে ব্যর্থ ভারতীয় ব্যাটিং।

(৮) ইংল্যান্ডকে পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে ৬৩ রান তুলে ফেলে। ভুবনেশ্বর কুমার, আর্শদীপ সিং, অক্ষর পাটেল, মোহাম্মদ শামিরা ইংল্যান্ডের একটিও উইকেট ফেলতে পারেননি।

(৯) ব্যাটিংয়ের মতো ভারতের গোটা বোলিংও ব্যর্থ। ভুবনেশ্বর ২ ওভারে ২৫ রান, শামি ৩ ওভারে ৩৯ রান, অশ্বিন ২ ওভারে ২৭ রান, হার্দিক পান্ডিয়া ৩ ওভারে ৩৪ রান দেন।

(১০) ফিল্ডিংও ভাল হয়নি। বিশেষ করে একটি রান বাঁচাতে গিয়ে মহম্মদ শামি যা করলেন, তার কোনও ব্যাখ্যা নেই। বল কুড়িয়ে নিজে না ছুড়ে আচমকাই তিনি সতীর্থ এক ফিল্ডারের দিকে ছোড়েন।

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে