| ঢাকা, বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

ম্যাচসেরা আফিফ-ইবাদতকে নিয়ে যা মন্তব্য করলেন তামিম

২০২২ আগস্ট ১০ ২১:৩৯:৪৯
ম্যাচসেরা আফিফ-ইবাদতকে নিয়ে যা মন্তব্য করলেন তামিম

বাংলাদেশ কি অবশেষে নতুন মানুষ পেল? আফিফ হোসেনের ৮১ বলে ৮৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস দেখে এমন মূল্যায়ন না করে উপায় আছে কি? প্রথম ওভারে তামিম, শান্ত, মুশফিকরা রান না পাওয়ায় চাপ বেড়ে যায়। ৭১ বলে ৭৬ রানের ইনিংস খেলে চাপ কমিয়ে দেন ইনামুল। কিন্তু মাঝমাঠে ৬৯ বলে মাহমুদউল্লাহর ৩৯ রানের ইনিংস আবারও কঠিন পরীক্ষা দেয় বাংলাদেশকে।

সেখান থেকে আফিফের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ২৫৬ রানের বিশাল স্কোর গড়ে বাংলাদেশ। ৬ চার ও ২ ছক্কায় ইনিংস শেষ করেন আফিফ। মোস্তাফিজের ৪ উইকেট বাংলাদেশের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখলেও সিকান্দার রাজার কাঁটা ফিরিয়ে দেন অভিষিক্ত ইবাদত হোসেন।

ডানহাতি পেসার রাজাকে ইনসুইং ইয়র্কার ডেলিভারি দিয়ে সোনালি হাঁসের তিক্ত স্বাদ দেন। এর আগে তার বাউন্স বলে আউট হন ওয়েসলি মাধভের। টানা দুই বলে দুই উইকেট নিয়ে জিম্বাবুয়ের ইনিংসে পড়েন এই পেসার। ইবাদত ৮ ওভারে ১ মেডেনে ৩৮ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়ে তার অভিষেক রাঙিয়েছেন।

দলের জয়ে বড় অবদান রাখা এ দুই ক্রিকেটারের প্রশংসায় ভাসিয়েছেন তামিম ইকবাল। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে তামিম বলেন, ‘একটা পর্যায়ে আমরা রান তোলায় ভুগছিলাম। কিন্তু আফিফ যেভাবে ব্যাটিং করেছে, অসাধারণ লেগেছে। বল দারুণভাবে টাইমিং করছিল এবং অসাধারণ ব্যাটিংও করেছে। আমরা ৩০০ করেও ম্যাচ হেরেছিলাম। তাই আজকের ২৫০ রানকে ২০০ রান মনে হচ্ছিল। ভাগ্য ভালো আমরা দ্রুত ৫টি উইকেট তুলে নিতে পেরেছি যা আমাদের উপকারে এসেছে। আমরা ইবাদতকে দীর্ঘ সময় ধরে ওয়ানডে দলে নিয়ে ঘুরছি। কিছুটা অবাক হয়েছি তাকে এতোদিন একাদশে না দেখে। আজ তার খেলার সুযোগ ছিল এবং আমরা তাকে নিয়েছি। সে ভালো প্রতিদান দিয়েছে ভালো বোলিং করে।’ বাংলাদেশ ১০৫ রানে শেষ ওয়ানডে জিতলেও সিরিজ হেরেছে ২-১ ব্যবধানে। এই সিরিজ আইসিসি সুপার লিগের অংশ না হওয়ায় বাংলাদেশের বড় ক্ষতি হয়নি।

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে