| ঢাকা, শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

অবাক কান্ড: সর্বনাশ জেনেও সুইপেই খেলতে যায়

২০২২ জুলাই ০১ ১৯:৩১:০৭
অবাক কান্ড: সর্বনাশ জেনেও সুইপেই খেলতে যায়

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ১১৩ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। ফলস্বরূপ, তারা ১০ উইকেটে খেলা হারায়। এমন হারের পর অনেক ল্যাঙ্কাশ বাদুড় দাঁড়িয়ে আছে বেড়ার ওপর।

তবে এমন সময়ে দলের ব্যাটম্যানদের পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রধান কোচ ক্রিস সিলভারউড। অন্য দলের ব্যাটদের আক্রমণাত্মক মনোভাবের প্রশংসা করেন তিনি। যদিও বেশিরভাগ ব্যাট সুইপ বা রিভার্স সুইপ দিয়ে খেলতে আউট হয়, সিলভারউড বিশ্বাস করেন যে হাইলাইটগুলি সেভাবেই খেলা উচিত।

ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, 'ব্যাটারদের মনোভাব আমি উপভোগ করেছি। তারা ইতিবাচক ছিল। তারা রান বের করতে চাইছিল। আমরা যে পরিস্থিতিতে ছিলাম এবং তখন যদি আমরা ব্লক করার চেষ্টা করতাম, আমার মনে হয় না এটা কাজে দিত। ডিফেন্স করার কোনো যুক্তি ছিল না আজকে।'

এমন উইকেটে আক্রমণাত্মক মানসিকতা নিয়েই খেলা উচিত বলে মনে করেন সিলভারউড। তার ভাষ্য, 'এই ধরনের উইকেটে যখন ফিল্ডিং ঘিরে রেখেছে, চাপ রয়েছে, এমন পরিস্থিতিতে আপনাকে রান বের করতে হবে। আমাদের এটাই করতে হতো এবং অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহকে ছাড়িয়ে যেতে হতো। যেন তারা আবারও ব্যাট করে। এটা সবসময় কাজ করে না।'

দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলঙ্কার ব্যাটারদের মধ্যে ৫ জন আউট হয়েছেন সুইপ বা রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে। একমাত্র ধনঞ্জয়া ডি সিলভা কোনো আক্রমণাত্মক শট না খেলে আউট হয়েছেন। লঙ্কান কোচ অবশ্য মনে করেন সুইপে আরও বেশি পারদর্শী হতে হবে লঙ্কান ব্যাটারদের। সেক্ষেত্রে উদাহরণ হতে পারেন জো রুট।

সিলভারউড বলেন, 'সত্যিকার অর্থে, সুইপ শট খেলায় আমাদের আরও ভালো হতে হবে। আমরা দেখেছি অস্ট্রেলিয়ানরা সুইপ দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছে। আমি যখন ইংল্যান্ডে ছিলাম তখন দেখেছি জো রুট ও জস বাটলার সুইপ খেলে নিজেদের চাপ কমায়। রুট আমাদের উদাহরণ হতে পারে স্পিন উইকেটে কীভাবে সুইপ খেলতে হয়। এর ফলে সে তার ক্যারিয়ারের সেরা একটি মৌসুম কাটিয়েছে।'

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে