ঢাকা, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

কাঠবিড়ালী: একটি সরল গল্পের ছবি

২০২০ জানুয়ারি ২৩ ১৪:৪০:১৬
কাঠবিড়ালী: একটি সরল গল্পের ছবি

ছবিটির নাম দেখে আকৃষ্ট হলাম। একাধারে ইতিবাচক ও নেতিবাচক ধারণা নিয়ে হলে ঢোকা। নেতিবাচক কেন? তা আগে বলে নিই। প্রথমত, দর্শক হিসেবে বিবেচনা করি; এ দেশে যেসব সিনেমা গ্রামের পটভূমিতে নির্মিত হয়, তা দর্শক-সাড়া ফেলতে সক্ষম হয় না। 'মনপুরা'র পর

কোনো ছবি আলোড়ন তুলতে পারেনি। সাম্প্রতিক সময়ে 'আয়নাবাজি', 'দেবী', 'পাসওয়ার্ড' কোনো সিনেমা দর্শকপ্রিয়তা পায়নি শেষ পর্যন্ত। কেন পায়নি, সেটা নিয়ে গবেষণা হতে পারে। গবেষক গবেষণা করবেন। এটি এ সমালোচকের কাজ নয়। যাই হোক, এবারের 'কাঠবিড়ালী' নিয়ে আলোচনায় ফিরি। প্রথমেই ছবির ইতিবাচক দিক। এই ছবির পরিচালক নিয়ামুল মুক্তা একজন নবীন প্রজন্মের প্রতিনিধি।

'কাঠবিড়ালী' তার প্রথম পরিচালনা। 'নিউ ব্লাড' মানেই নতুন ভাবনা, নতুন স্রোত। নতুনতর বিকল্প চিন্তা। দর্শক কতটুকু নেবে, তা যথার্থ বিবেচনা দর্শকের। এ দেশেই অনেক ছবি আছে, যা দর্শক গ্রহণ করেছে ধীরে ধীরে। 'কাঠবিড়ালী' ধীরে ধীরে গ্রহণ করবে। এ ছবি দেখে তেমনটিই মনে হচ্ছে। দেখতে বসে শুরুর দিকে অনুভব করছিলাম, বেশ ধীরগতিতে এগিয়ে চলা সিনেমা এটি। পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো ছবির গতি ধীরগতির হয়। তবে তা কখনও কখনও। নিয়ামুলের কাঠবিড়ালী ধরে রাখছিল ওভাবেই।

তখন ছবির মূল চরিত্রে অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়ার অভিনয় বিশিষ্টতা দর্শকমন স্পর্শ করে যাচ্ছিল। পাশাপাশি আসাদুজ্জামান আবিরও পর্দাজুড়ে সমান লয়ে অভিনয় করে গেছেন। দুই ঘণ্টারও বেশি বড় একটি ছবি কীভাবে মানুষকে ধরে রাখবে, ভাবছিলাম। কিন্তু ছবিটি শেষ দৃশ্য পর্যন্ত দর্শককে ধরে রাখতে পেরেছে। লেখক- চলচ্চিত্র পরিচালক, লেখক ও সাংবাদিক


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর