ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬

মিস ওয়ার্ল্ডে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে যা বললেন তোরসা ভিডিওসহ

২০১৯ ডিসেম্বর ০৬ ১২:৫৬:১০
মিস ওয়ার্ল্ডে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে যা বললেন তোরসা ভিডিওসহ

বিশ্বসুন্দরীদের মঞ্চ ‘মিস ওয়ার্ল্ড’-এ অংশ নিতে গত ২১ নভেম্বর থেকে লন্ডনে অবস্থান করছেন বাংলাদেশের মেয়ে রাফাহ নানজীবা তোরসা। ইতোমধ্যে প্রতিযোগিতার ‘ড্যান্স অব ট্র্যাডিশন’ ও ‘ট্যালেন্ট কনটেস্ট’সহ কয়েকটি পর্বে অংশ নিয়েছেন প্রশংসাও কুড়িয়েছেন। আর ‘হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ’ পর্বে অংশ নিলেন তোরসা। সেই

পর্বে প্রতিযোগীদের পরিচিতিকে ঘিরে এক আড্ডায় বক্তব্য দিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন এই বাংলাদেশি সুন্দরী। আড্ডায় সঞ্চালক ভ্যানেসা তার কাছে জানতে চান, আপনি আপনার দেশের প্রধানমন্ত্রী কাছে থেকে জাতীয় পুরস্কারের পদক পেয়েছেন। আপনার অনুভূতি কি? জবাবে নানজীবা তোরসা বলেন, অবশ্য চমৎকার! এটা নিশ্চয়ই সম্মানের?

উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে তোরসা বলেন, এটা অবশ্যই আনন্দের। কারণে বিজয়ের মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে পুরস্কারটি নিয়েছি। শেখ হাসিনা শুধু বর্তমান প্রধানমন্ত্রীই নন; তিনি আমাদের জাতির পিতার কন্যা। তার হাত হতে পুরস্কার নেয়া অত্যন্ত গর্বের ব্যাপার। তোরসা আরো বলেন, ২০১০ সালে ৬৪ জেলার মধ্যে সেরা হিসেবে ওই পুরস্কার পাওয়ার মানে হলো, আমাকে অনেকদূর যেতে হবে।’

‘হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ’ পর্বের ১৯ নম্বর গ্রুপে তোরসার প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাঙ্গোলা, কিরগিজস্তান, ইথিওপিয়া ও সেনেগালের সুন্দরীরা। তবে প্রতিযোগিতায় কাউকেই প্রতিদ্বন্দ্বী মনে করেন না তোরসা। তিনি বলেন, ‘এখানে সবাই প্রতিভাবান। তাই সবসময় নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে হবে।’ অর্থাৎ নিজেকেই নিজের প্রতিযোগী বলে জানালেন তোরসা।

ভবিষ্যতে দেশের জন্য কি কি করার পরিকল্পনা রয়েছে এমন প্রশ্নে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষাদানে নিজেকে নিয়োজিত রাখবেন বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তোরসা। তিনি বলেন, ‘সবার জন্য শিক্ষা নিশ্চিতকরণে ভূমিকা রাখতে চাই। আমি মনে করি, শিক্ষা মানুষকে বদলে দেয়। মানুষ পরিবর্তন করে পৃথিবীকে। আমাদের শিশুরাই আগামীতে নতুন পৃথিবী গড়বে। শিশুদের সবসময় বলি– তোমরা দারুণ। মুখে হাসি রেখো। আর এ বিষয়কে সামনে রেখেই ১০ বছর ধরে সমাজকল্যাণমূলক কাজ করছি।

তোরসার এমন বক্তব্যে সঞ্চালক ভ্যানেসা বলেন, ‘উদ্বুদ্ধ করার মতো কী দারুণ বক্তব্য দিলেন আপনি!’ হেড টু হেড চ্যালেঞ্জের গ্রুপ ১৯ প্রতিযোগীদের ভিডিও: প্রসঙ্গত হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ পর্বের জন্য বাংলাদেশসহ ১১১ দেশের প্রতিযোগীকে ভাগ করা হয়েছে ১৯টি গ্রুপে। ড্রয়ের মাধ্যমে কে কোন গ্রুপে থাকবেন তা নির্ধারিত হয়েছে। টেমস নদীর তীরে টাওয়ার ব্রিজের সামনে ‘হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ’-এর ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

এই বিভাগের ফল থেকেই চূড়ান্ত হবে শীর্ষ ৪০ প্রতিযোগী। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, মবস্টার ও মিস ওয়ার্ল্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ‘হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ’ বিভাগে প্রতিযোগীদের ভোট দেয়া যাচ্ছে । বাংলাদেশিদের তাকে ভোট করার আহ্বান জানিয়েছেন তোরসা। আগামী ১৪ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যের লন্ডনে এক্সেল এরেনায় বসবে ৬৯তম মিস ওয়ার্ল্ডের জমকালো আসর। সেদিনই ফয়সালা হবে কে জিতবেন এবারের বিশ্বসুন্দরীর মুকুট।


সাক্ষাৎকার এর সর্বশেষ খবর

সাক্ষাৎকার - এর সব খবর