ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

যৌ’ন হেনস্তা : অনুর বিরুদ্ধে সোচ্চার সোনা ও তনু

২০১৯ নভেম্বর ২০ ১১:০৭:০৯
যৌ’ন হেনস্তা : অনুর বিরুদ্ধে সোচ্চার সোনা ও তনু

ফের আলোচনায় সাবেক মিস ইন্ডিয়া ও বলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। গেল বছর বর্ষীয়ান অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলে পুরো ভারতে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন। এরপর বিনোদন অঙ্গনের রথী-মহারথীদের অনেকের বিরুদ্ধেই একের পর এক অভিযোগ আসতে থাকে। সারা দেশে

ছড়িয়ে পড়ে ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলন। এবারও আলোচনায় একই প্রসঙ্গে। ঘটনা খুলে বলা যাক। গত বছর বলিউডের বিখ্যাত সুরকার অনু মালিকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছিলেন সংগীতশিল্পী সোনা মহাপাত্র। অনুর বিরুদ্ধে সোনা মুখ খোলার পর একাধিক নারী যৌন হেনস্তার অভিযোগ আনেন।

অনেক দিন আড়ালে থাকলেও সম্প্রতি প্রকাশ্যে আসেন অনু। ফের তাঁর বিরুদ্ধে সরব হন সোনা। আর সোনার সার্বিক আন্দোলনের প্রতি সম্প্রতি সহমত প্রকাশ করেন তনুশ্রী। তনুশ্রীকে পাশে পাওয়ায় ধন্যবাদ দিতে ভোলেননি সোনা। হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছর মি টু আন্দোলন শুরু হলে সুরকার অনু মালিকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ আনেন সোনা মহাপাত্র।

এরপর সনি চ্যানেলের গানের রিয়েলিটি শো থেকে অল্প সময়ের জন্য বাদ পড়েন অনু। সোনা ছাড়াও এ সুরকারের বিরুদ্ধে হেনস্তার অভিযোগ আনেন শ্বেতা পণ্ডিত ও নেহা ভাসিন। যা হোক, সনি টিভির গানের রিয়েলিটি শো ইন্ডিয়ান আইডলের চলতি মৌসুমে ফের বিচারকের আসনে অনু মালিক বসলে ক্ষুব্ধ হন সোনা মহাপাত্র। তাঁর প্রশ্ন, মি টু অভিযুক্ত অনু কীভাবে বিচারকের আসনে বসেন। এ নিয়ে অন্তর্জালে ফের সরব হন সোনা। সোনার এই ‘লড়াইয়ের’ জন্য তাঁকে সম্প্রতি প্রশংসায় ভাসান ‘আশিক বানায়া আপনে’ অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। তিরস্কার করেন নেহা কক্করকেও। নেহা কেন অভিযুক্ত অনুর পাশে বিচারকের আসনে, সে প্রশ্নও তোলেন তনুশ্রী।

দুঃসময়ে পাশে পেয়ে তনুকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সোনা। এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় দীর্ঘ পোস্ট লিখেছেন এ কণ্ঠশিল্পী। পাশাপাশি সানি চ্যানেলের ‘ডাবল স্ট্যান্ডার্ডের’ তীব্র সমালোচনা করেছেন। সোনা লেখেন, তাঁর লড়াই একজনের বিরুদ্ধে নয়, পুরো সিস্টেমের বিরুদ্ধে; যৌন হয়রানি ও বিকৃত আচরণের বিরুদ্ধে।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, গত বছর সোনা মহাপাত্র বলেছিলেন, সুরকার স্বামী রাম সমপথের সামনেই অনু মালিক একবার তাঁকে ‘মাল’ বলে ডেকেছিলেন। এরপর শ্বেতা পণ্ডিত ও নেহা ভাসিনও প্রকাশ করেন, যখন তাঁরা তরুণী ছিলেন, তখন অনু তাঁদের যৌন হেনস্তা করেছেন। অব্শ্য গত সপ্তাহে সংগীত পরিচালক অনু মালিক বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ ‘মিথ্যা ও অপ্রমাণিত’। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দীর্ঘ পোস্টও দেন। বলেন, এতে তাঁর একমাত্র আয়ের পথ রুদ্ধ হচ্ছে।


বলিউড এর সর্বশেষ খবর

বলিউড - এর সব খবর