ঢাকা, সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ঢাকায় মেয়র খোকার পাঁচটি জানাজা হবে, দাফন হবে যেখানে

২০১৯ নভেম্বর ০৫ ১৩:৫৭:৩৬
ঢাকায় মেয়র খোকার পাঁচটি জানাজা হবে, দাফন হবে যেখানে

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ ঢাকায় আসার পর পাঁচটি জানাজা ও শ্রদ্ধা জানানো শেষে তাঁকে শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী বাবার কবরের পাশে দাফন করা হবে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবীর খান গণমাধ্যমের কাছে পাঠানো এক বার্তায় জানিয়েছেন, একাত্তরের গেরিলা বাহিনীর এই কমান্ডারের মরদেহ আগামী বৃহস্পতিবার ঢাকায় ফেরার পর পাঁচটি জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

এর মধ্যে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় পুরান ঢাকার সাবেক এই সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী সাদেক হোসেন খোকার জানাজা হবে। পরে এই জননেতাকে নিয়ে যাওয়া হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে দুপুর ১২টা থেকে সর্বস্তরের মানুষ এই গেরিলা নেতার প্রতি তাঁদের শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

এদিন বাদ জোহর বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ নিয়ে যাওয়ার হবে তাঁর দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক তৎপরতার কেন্দ্রস্থল রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। এখানেই দলের পক্ষ থেকে ও তৃণমূল কর্মীরা তাঁদের প্রাণপ্রিয় নেতাকে শ্রদ্ধা জানাবেন।

সেখান থেকে বিকেল ৩টায় অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়রকে নিয়ে যাওয়া হবে ‘নগর ভবনে’; বিভক্ত হওয়ার এখন যেটি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কার্যালয়। সেখানে নগরীর জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা খোকাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন।

ঐতিহ্যবাহী ও বৈচিত্র্যময় পুরান ঢাকাই ছিল সাদেক হোসেন খোকার বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক-সামাজিক-সাংস্কৃতিক-ক্রীড়াঙ্গনের কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রস্থল। নিজের সেই শিকড়ে শেষবারের মতো সাদেক হোসেন খোকা ফিরবেন এদিন শেষ বিকেলে। গোপীবাগের পারিবারিক বাসভবন হয়ে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হবে ধূপখোলা খেলার মাঠে। এখানেই হবে বিএনপি নেতার শেষ জানাজা। তারপর নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী তাঁকে জুরাইন কবরস্থানে বাবার কবরের পাশে দাফন করা হবে বলে বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

গতকাল সোমবার দুপুরে সাদেক হোসেন খোকার ছেলে প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক পোস্টে বলেন, ‘আমার বাবা অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা নিউইয়র্ক সময় রাত ২টা ৫০ মিনিটে ও বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে ইন্তেকাল করেছেন।’ তাঁর মৃত্যুতে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়, সাদেক হোসেন খোকার প্রথম জানাজা বাংলাদেশ সময় আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ প্রবাসী বাঙালিরাও অংশ নেন। জানাজায় বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। সেখানে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা একাত্তরের গেরিলা বাহিনীর এই সদস্যকে ‘গার্ড অব অনার’ প্রদান করেন।

সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ আগামী বৃহস্পতিবার সকালে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি বিমানে করে দেশে ফিরবে বলে এরই মধ্যে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। তারপরই শুরু হবে এখানকার জানাজা ও শ্রদ্ধা নিবেদনের কর্মসূচি।

সাদেক হোসেন খোকা দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন। পরে তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত হন। গত ২৮ অক্টোবর শারীরিক অবস্থার অবনতির পরই তাঁকে নিউইয়র্কে ম্যানহাটনে স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সাবেক মন্ত্রী সাদেক হোসেন খোকা ২০১৪ সালের মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। তার পর থেকে সেখানেই অবস্থান করছিলেন বিএনপির এই প্রভাবশালী নেতা।

সেখানে অবস্থানকালে বিএনপি নেতার পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। এ অবস্থায় গত রোববার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাবেক মেয়রের শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তাঁকে বাংলাদেশে নিয়ে আসার জন্য সরকারের উদ্যোগ ও সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

তার পরেই পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম নিজের ফেসবুকে এক পোস্টে বলেন, সাদেক হোসেন খোকার পরিবার ট্রাভেল পারমিটের জন্য আবেদন করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সাদেক হোসেন খোকা মারা যাওয়ার পর সরকারের পক্ষ থেকে সেই আশ্বাস পুনরায় ব্যক্ত করা হয়।


জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর