ঢাকা, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

এক নজরে সাকিবের ক্যারিয়ার

২০১৯ অক্টোবর ২৯ ২১:৩৩:৪৮
এক নজরে সাকিবের ক্যারিয়ার

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অনৈতিক প্রস্তাব পেয়ে প্রত্যাখ্যান করলেও বিষয়টি আইসিসি কিংবা বিসিবির কাছে গোপন করায় সবধরনের ক্রিকেট থেকে সাকিব আল হাসানকে ২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

যার মধ্যে এক বছর থাকছে স্থগিত নিষেধাজ্ঞা। ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবরের পর আইসিসির কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে হবে এবং সন্তোষজনক হলে এক বছর পরই উঠে যাবে সাকিবের নিষেধাজ্ঞা।

আইসিসির দুর্নীতি-বিরোধী নিয়ম ভঙ্গের তিনটি অভিযোগ সাকিব স্বীকার করে নেয়ার পর এ সিদ্ধান্তের কথা জানায় আইসিসি।

এক বছর পর নিষেধাজ্ঞা যদি ওঠেও, তবুও আগামী টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলা হচ্ছে না সাকিবের। এক বছরের পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর। আর অস্ট্রেলিয়ায় টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু একই বছরের ১৮ অক্টোবর।

বর্তমানে সাকিবের বয় ৩২ বছর ২১৯ দিন। বাংলাদেশের জার্সিতে ৫৬ টেস্ট, ২০৬ ওয়ানডে ও ৭৬টি টি-টুয়েন্টি খেলেছেন সাকিব। প্রায় প্রতিটিতেই সাফল্যের স্বাক্ষর রেখেছেন সাকিব।

বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি)’র প্রাক্তন শিক্ষার্থী সাকিব আল হাসান। ২০০৬ সালের আগস্ট মাসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এক দিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হয় সাকিবের। সে বছরই মে মাসে সাকিবের টেস্ট অভিষেক হয় ভারতের বিপক্ষে। অভিষেকটা স্বপ্নের মত না হলেও প্রতিভার কমতি ছিল না সাকিবের। এখন বাংলাদেশ তো বটে বিশ্ব ক্রিকেটেও উজ্জ্বল নক্ষত্র।

আসুন দেখে নেই সাকিবের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ার:

টেস্ট: ২০০৭ সালের ১৮ মার্চ চট্টগ্রামে ভারতের বিপক্ষে অভিষেক সাকিবের। চট্টগ্রামেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে গত সেপ্টেম্বরের টেস্টটি হয়ে থাকল তার আপাত শেষ টেস্ট। এই যাত্রায় সাদা পোশাকে পাঁচ সেঞ্চুরি ও ২৪ ফিফটিতে ৩৯.৪০ গড়ে ৩,৮৬২ রান করেছেন তিনি, সেরা ২১৭। আছে ২১০ উইকেট। ইনিংসে ১৮বার পাঁচ উইকেট ও ম্যাচে দুবার দশ উইকেট আছে সংগ্রহে, সেরা ইনিংসে ৩৬ রানে ৭ উইকেট, আর ম্যাচে দুই ইনিংস মিলিয়ে সেরা ১২৪ রানে ১০ উইকেট।

ওয়ানডে: ২০০৬ সালে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডেতে অভিষেক সাকিবের। আপাতত যতি পড়ল গত বিশ্বকাপে লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটিতে। দীর্ঘ যাত্রায় ২০৬ ওয়ানডেতে ৯ সেঞ্চুরি ও ৪৭ ফিফটিতে ৩৭.৮৬ গড়ে ৬,৩২৩ রান করেছেন সাকিব, সেরা অপরাজিত ১৩৪। বোলিংয়ে ২৬০ উইকেট তার নামের পাশে, সেরা ২৯ রানে ৫ উইকেট।

টি-টুয়েন্টি: ২০০৬ সালে খুলনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ছোট সংস্করণে অভিষেক সাকিবের, শেষ হয়ে থাকল চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে চট্টগ্রামে আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামা। পথে ৭৬ ম্যাচে ১,৫৬৭ রান তার, সেরা ৮৪। আর বাঁহাতি স্পিনে সংগ্রহ ৯২ উইকেট, সেরা ২০ রানে ৫ উইকেট।

এছাড়া, প্রথম শ্রেণিতে ৫,৭৭৭ রান ও ৩১০ উইকেট। লিস্ট-এ ক্রিকেটে ৭,৪৬৫ রান ও ৩২১ উইকেট, ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টুয়েন্টি ও সবধরনের টি-টুয়েন্টি মিলিয়ে ৪,৯৭০ রান আর ৩৫৪ উইকেট সাকিবের নামের পাশে আছে।


সমকালীন এর সর্বশেষ খবর

সমকালীন - এর সব খবর