ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬

দুই যুগ পর আবার একসাথে অভিনয় করবেন মধু অরিন্দম

২০১৯ অক্টোবর ০৭ ২১:০৯:১৩
দুই যুগ পর আবার একসাথে অভিনয় করবেন মধু অরিন্দম

ভারতীয় কিংবদন্তি অভিনেত্রী ও তামিলনাড়ুর সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা। তাঁকে বলা হতো বিপ্লবী নেত্রী; তামিল ভাষায় থালাইভা। ‘থালাইভা’ নামের এই বায়োপিকে জয়ললিতার ভূমিকায় দেখা যাবে ‘কুইন অব বলিউড’ কঙ্গনা রনৌতকে। আর এবার জানা গেল, এই ছবিতে আরও দেখা যাবে দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় তারকা অভিনয়শিল্পী অরবিন্দ স্বামী আর মধুকে।

মেধাবী নির্মাতা মণিরত্নমের জঙ্গিবাদের ওপর নির্মিত ত্রয়ী ছবির প্রথমটি ‘রোজা’তে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন অরবিন্দ স্বামী আর মধু। ১৯৯২ সালে মুক্তি পাওয়া ‘রোজা’ সিনেমার নাম–ভূমিকায় অভিনয় করা মধু। ‘রোজা’ ছবিটি তিনটি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পায়। শুধু তা-ই নয়, ছবিটি ১৮তম মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা ছবির মনোনয়ন পায়। দীর্ঘদিন পর আবার একই ছবিতে পর্দা ভাগ করবেন এই দুজন তারকা।

দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মধু বলেন, ‘এই মুহূর্তে আমি কয়েকটি কাজের সঙ্গে যুক্ত আছি। দূরদর্শনে একটি শোর উপস্থাপক হিসেবেও দেখা যাবে আমাকে। দক্ষিণ ভারতে আমার দুটি ছবি মুক্তির দ্বারপ্রান্তে। অনেক অনেক দিন পর আবারও অরবিন্দ স্বামীর সঙ্গে কাজের সুযোগ পেয়েছি।’

গত শতকের ষাট ও সত্তরের দশকে জয়ললিতা এম জি রমচন্দ্রনের সঙ্গে অনেক জনপ্রিয় চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। দুজনের মধ্যে বেশ সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। রমচন্দ্রনই তাঁকে রাজনীতিতে আগ্রহী করেন। এই রমচন্দ্রনের চরিত্রে দেখা যাবে অরবিন্দ স্বামীকে। তবে মধু কার ভূমিকায় অভিনয় করবেন, তা এখনো জানা যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, রমচন্দ্রনের স্ত্রী জানকির চরিত্রে দেখা যেতে পারে তাঁকে। ১৯৮৭ সালে রমচন্দ্রনের মৃত্যুর পর এআইএডিএমকে দলে বিভাজন তৈরি হয়।

একদল ছিল রমচন্দ্রনের স্ত্রী জানকির দিকে আর আরেক দল ছিল জয়ললিতার সঙ্গে। ১৯৮৯ সালে জয়ললিতাই জয়ী হয়ে বিধানসভার সদস্য হন। তিনি বিধানসভার প্রথম নারী হিসেবে বিরোধীদলীয় নেতা হন। বিরোধীদলীয় নেতা থাকাকালে সরকারি দলের বিধায়কদের হাতে তিনি শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হন। এ ঘটনায় তিনি সাধারণ জনগণের ব্যাপক সহানুভূতি পান এবং ১৯৯১ সালে প্রথম ও সর্বকনিষ্ঠ নারী মুখ্যমন্ত্রী হন।

পিটিআইকে এক সূত্র জানিয়েছে, মধু জয়ললিতার বায়োপিকের সঙ্গে যুক্ত হতে যাচ্ছেন। ২৫ বছর পর তিনি অরবিন্দ স্বামীর সঙ্গে পর্দা ভাগ করবেন বলে খুবই উচ্ছ্বসিত। নভেম্বর বা ডিসেম্বরের দিকে তাঁর অংশের শুটিং হবে।

‘থালাইভা’ ছাড়াও মধুকে দেখা যাবে ‘খালি পিলি’ নামে হরর-কমেডি ধাঁচের ছবিতে দেখা যাবে। মধুর ওই মুখপাত্র আরও জানান, ইতিমধ্যে হিন্দি ভাষার এই ছবির শুটিংয়ের কাজ শেষ হয়েছে। মনোজ শর্মা পরিচালিত ছবিটি মুক্তি পাবে ২০২০ সালের ৩ এপ্রিল। এখানে মধু ভূত হয়ে পর্দা ভাগ করবেন বিজয় রাজ এবং ধর্মেন্দ্রর সঙ্গে।

দেওয়ালির পর ছবিটির শুটিং শুরু হবে। ছবির গল্প লিখেছেন ‘বাহুবলী’ ও ‘ডার্টি পিকচার’ ছবির কাহিনিকার কে ভি বিজয়েন্দ্র প্রসাদ ও রজত অরোরা। এই ছবির জন্য হলিউড থেকে মেকআপ বিশেষজ্ঞ জ্যাসন কলিন্সকে এনেছেন প্রযোজক বিষ্ণু বর্ধন ইন্দুরি।

এই সিনেমার জন্য কঙ্গনা এখন ভরতনাট্যম শিখছেন। কঙ্গনা রনৌত ‘থালাইভা’ ছবির জন্য প্রসথেটিকস মেকআপ নিচ্ছেন, এমন ছবিও প্রকাশ করেছেন বোন ও ম্যানেজার রঙ্গোলি চান্ডেল। ছবিটি পরিচালনা করবেন জনপ্রিয় দক্ষিণি পরিচালক এ এল বিজয়।


বলিউড এর সর্বশেষ খবর

বলিউড - এর সব খবর