ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭

ভাষা হারিয়ে ফেলেছি : বিরাট কোহেলি

২০২০ সেপ্টেম্বর ২৯ ১০:০৮:২৬
ভাষা হারিয়ে ফেলেছি : বিরাট কোহেলি

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বনাম সহ-অধিনায়কের ক্রিকেট দ্বৈরথ ছিল সোমবার আবুধাবিতে। বিরাট কোহালির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর বনাম রোহিত শর্মার মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকা টান টান উত্তেজনার সেই ম্যাচে শেষ পর্যন্ত সুপার ওভারে জিতে বিস্মিত বিরাট কোহালিও।

ম্যাচের পরে বলেই দিলেন, ‘‘ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। রোলার-কোস্টারের মতো নামা-ওঠা করছিল ম্যাচের ভাগ্য। যশপ্রীতের (বুমরা) বিরুদ্ধে দারুণ একটা ম্যাচ খেললাম। এই জয় আমাদের প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাওয়ার আত্মবিশ্বাস দেবে।’’

যোগ করেছেন,‘আমরা পরিকল্পনামাফিক যা যা করতে চাইছিলাম, তা শেষ পর্যন্ত করতে পেরেছি। জেতার জন্য হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। এই ধরনের উত্তেজনাপূর্ণ ক্রিকেট দেখতেই দর্শক পছন্দ করেন।’মুম্বই ইন্ডিয়ান্স অধিনায়ক রোহিত শর্মারও প্রতিক্রিয়া, ‘দুর্দান্ত একটা ম্যাচ হল।’ সুপার ওভারে ম্যাচ জিতলেও বিরাট প্রতিপক্ষের দক্ষতাকে কুর্নিশ জানাতেও ভোলেননি। আরসিবি অধিনায়কের কথায়, ‘মাঝের দিকটায় ওরা দুর্দান্ত খেলেছে।’’

সুপার ওভারের প্রসঙ্গ উঠলেই কোহালি বলেন, ‘‘আমি ভাবছিলাম, কারা ব্যাট করতে যেতে পারে, তার পরে আমি আর এবি (ডিভিলিয়ার্স) নেমে পড়েছিলাম। ব্যাপারটা ছিল মাঠে নেমে দায়িত্ব নিয়ে জয় তুলে আনতে হবে। তা করা গিয়েছে।’’ তবে জয়ের মাঝেও কোহালি চিন্তিত দলের ফিল্ডিং নিয়ে। বলছেন, ‘‘ফিল্ডিং নিয়ে আমাদের দুর্বলতা দূর করতে হবে। ফিল্ডিংয়ে যে সুযোগ আমরা পেয়েছিলাম, সেগুলো ঠিক মতো কাজে লাগানো গেলে ম্যাচটা এত লম্বা হত না।’’ যদিও এমন জয়ের রাতে প্রবল গরমের জন্য ম্যাচের সেরার পুরস্কার নিতে এলেন না এবি ডিভিলিয়ার্স। গরমের কারণে শরীর থেকে অতিরিক্ত জল বেরিয়ে যাওয়ায় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

জয়ের জন্য ওয়াশিংটন সুন্দর, নবদীপ সাইনিদের অভিনন্দন জানিয়ে বিরাট আরও বলেন, ‘‘পাওয়ার প্লে-তে দারুণ বল করেছে ওয়াশি (ওয়াশিংটন)। সুপার ওভারে নবদীপও ইয়র্কারগুলো দুর্দান্ত ভাবে কাজে লাগাল।’’

অন্য দিকে, হারতে হারতে ম্যাচে ফিরে এসেছিল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অল্পের জন্য জয় হাতছাড়া হওয়ার পরে মুম্বই অধিনায়ক রোহিতের প্রতিক্রিয়া, ‘‘শুরুতে ব্যাট করার সময়ে আমরা ম্যাচে ছিলাম না। কিন্তু তার পরে ঈশান (কিষান) ও পোলার্ড আমাদের দিকে দুর্দান্ত ভাবে ম্যাচটা নিয়ে এসেছিল। আমাদের যা ব্যাটিং শক্তি, তাতে ২০০ রান তাড়া করা যায়।

কিন্তু শুরুটা ভাল না হওয়ায় আমরা ম্যাচটা জিততে পারলাম না।’’ যোগ করেছেন, ‘‘প্রথম ৬-৭ ওভারে আমরা ব্যাটিংয়ে যেমন ছন্দ পাইনি তেমনই উইকেট হারিয়েছি। কিন্তু পোলার্ড উইকেটে থাকলে অনেক অবিশ্বাস্য ব্যাপার হতে পারে। ঈশানের বড় বড় শট দেখে এক সময়ে মনে হয়েছিল আমরাও ম্যাচটা জিততে পারি। শেষ পর্যন্ত আরসিবি স্নায়ুর চাপে জিতে শেষ হাসি হেসেছে।’’

রোহিত আরও বলেন, ‘‘ঈশান ক্লান্ত হয়ে পড়েছিল। তাই ওকে সুপার ওভারে পাঠাইনি। সাত রান নিয়ে জেতা অসম্ভব। তার উপরে দুর্ভাগ্যজনক ভাবে একটা চার হয়ে গেল। হারলেও এই ম্যাচ শিক্ষা দিয়ে গেল।


খেলাধুলা এর সর্বশেষ খবর

খেলাধুলা - এর সব খবর