ঢাকা, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

বৃষ্টি নিয়ে নতুন খবর জানালো আবহাওয়া অধিদপ্তর

২০২০ আগস্ট ০৫ ১০:১৭:২৩
বৃষ্টি নিয়ে নতুন খবর জানালো আবহাওয়া অধিদপ্তর

আজ বুধবার ৫ আগস্ট আবহাওয়াবিদ একেএম রহুল কুদ্দুস জানিয়েছেন যে মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে সপ্তাহজুড়ে সারাদেশে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। তবে সকালে মেঘমুক্ত আকাশের দেখা মিললেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকবে।

তিনি বলেন, ‘এখন কিছু দিনের জন্য বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে থাকবে। ঢাকা, খুলনা, রাজশাহী, রংপুরসহ দেশের প্রায় সব বিভাগেই বৃষ্টি হবে। এর সঙ্গে বজ্রসহ হালকা থেকে মাঝারি জড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’

রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘তবে দিনের প্রথমভাগ অনেকটা মেঘমুক্ত দেখা গেলেও বেলার বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভারি বৃষ্টি হতে পারে। রাজধানী ঢাকাতেও ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।’

আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘এখন বর্ষা মৌসুম। এ সময় সাধারণত ঘূর্ণিঝড় বা সাইক্লোন থাকে না। এ সময়ে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়। জুন মাস থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ চার মাস সাধারণত বেশি বৃষ্টি হয়। সেপ্টেম্বর মাসে গিয়ে বৃষ্টি একেবারের কমে আসে।

সাগরে সুস্পষ্ট লঘুচাপ রয়েছে। যদিও সেটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ এবং উড়িষ্যার দিকে সরে যাচ্ছে। আবহাওয়া অধিদফতরের ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় লঘুচাপ থাকায় সাগরে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

এছাড়া রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, সিলেট, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলের ওপর দিয়ে দক্ষিণ/দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানী ঢাকাসহ দেশের সব জায়গাতেই বৃষ্টি হয়েছে। সব থেকে বেশি বৃষ্টি হয়েছে চট্টগ্রামে ১৩২ মিলিমিটার। এরপর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেকর্ড করা হয়েছে সন্দ্বীপে ১২৫ মিলিমিটার।

সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে দিনাজপুরে ৩৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস আর সর্বনিম্ন গোপালগঞ্জে ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়ার সর্বশেষ বার্তায় বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ুর অক্ষ পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হিমালয়ের পাদদেশীয়, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় বিরাজ করছে।

সর্তক বার্তায় বলা হয়েছে, সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগার ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকার এবং সমুদ্রবন্দরসমূহের ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর‌্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।


জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর