ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭

মৃত্যুর আগে গুগলে একটি সার্চ করেছিলেন সুশান্ত

২০২০ আগস্ট ০৪ ০৯:৩৯:৩৫
মৃত্যুর আগে গুগলে একটি সার্চ করেছিলেন সুশান্ত

‘যন্ত্রণাহীন মৃত্যু’, ‘সিজোফ্রেনিয়া’, ‘মানসিক বৈকল্য’। বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের কম্পিউটার ও ফোনের ‘সার্চ হিস্ট্রি’ ঘেঁটে এই শব্দগুলোই পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সোমবার (৩ আগস্ট) মুম্বাইয়ের পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিংহ এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে এ

বছর জুন পর্যন্ত সুশান্তের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গা থেকে এই সময়ে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা জমা পড়েছিল সুশান্তের অ্যাকাউন্টে। তাছাড়া একটি চার কোটি টাকার ফিক্সড ডিপোজিটও ছিল তার।

তবে সুশান্তের বাবা কে কে সিংহের দাবি, ছেলের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছিলেন সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী। মুম্বাই পুলিশের দাবি, তাদের তদন্তে এই অভিযোগের কোনো প্রমাণ মেলেনি।

সোমবার একটি সংবাদ সংস্থাকে পাঠানো ভিডিও বার্তায় কে কে সিংহ বলেছেন, ‘২৫ ফেব্রুয়ারি আমি বান্দ্রা পুলিশকে জানিয়েছিলাম যে, আমার ছেলেকে নিয়ে খুব চিন্তায় আছি। ওর কোনো বড় বিপদ হতে পারে। ১৪ জুন সুশান্তের মৃত্যুর পরে মুম্বাই পুলিশকে দেয়া বয়ানে আমি কয়েক জনের নামে অভিযোগ জানিয়েছিলাম। কিন্তু দেখলাম, ৪০ দিন ধরে কিছুই হলো না। বাধ্য হয়ে পাটনা পুলিশের কাছে নতুন করে এফআইআর দায়ের করি। দেখলাম, তারা খুবই তৎপরভাবে তদন্ত চালাচ্ছে। তবে অভিযুক্ত এখনও পালিয়ে বেড়াচ্ছে। পাটনা পুলিশকে (মুম্বাই পুলিশের) সাহায্য করা উচিত।’

সুশান্তের বাবার অভিযোগ কেবলমাত্র রিয়ার দিকেই। তিনি তার ছেলের প্রেমিকার বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ এনেছেন। তার মধ্যে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অর্থ আত্মসাৎ, নানা রকম হুমকি দিয়ে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার অভিযোগও রয়েছে।

সুশান্তের বাবার দাবি, রিয়া বুঝতে পেরে গিয়েছিলেন যে সুশান্তের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ দিন দিন কমছে। এরপর ৮ জুন নগদ অর্থ, অলংকার, ল্যাপটপ, ক্রেডিট কার্ড, পিন নম্বর, পাসওয়ার্ড, গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজ এবং চিকিৎসকের রশিদ নিয়ে চলে যায়।

অভিযোগে আরো বলা হয়েছে, সুশান্ত তার বোনকে ফোন করে জানিয়েছিলেন, রিয়া চিকিৎসকের রশিদ মিডিয়াকে দেখিয়ে সুশান্তকে পাগল প্রমাণ করার হুমকি দিয়েছেন। এরপর কেউ তাকে কাজ দেবে না। ৮ জুন সুশান্তের সেক্রেটারি আত্মহত্যা করেন। রিয়াই তাকে সুশান্তের সেক্রেটারি হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে তার ফোনে সুশান্তের নম্বর ব্লক করে দেন রিয়া। তার সেক্রেটারির আত্মহত্যার ঘটনায় তাকে রিয়া ফাঁসাতে পারেন বলে সুশান্ত ভয় পাচ্ছিলেন। কারণ এ বিষয়ে তাকে হুমকি দিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। এসব কারণেই বিপর্যস্ত হয়ে গিয়েছিলেন সুশান্ত।

এদিকে রিয়া চক্রবর্তীকে এর আগে জেরা করে মুম্বাই পুলিশ জানতে পারে, সাম্প্রতিক ইউরোপ ভ্রমণে সুশান্তের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেছিলেন রিয়া। তার এক দেহরক্ষীকেও বহিষ্কার করেছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, সুশান্তের কোম্পানিতেও শেয়ার ছিল তার এবং তার ভাইয়ের।

গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ে বান্দ্রায় নিজের ফ্ল্যাট থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের দেহ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানায়, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। আত্মহত্যার কারণ অনুসন্ধানের জন্য এখনও পর্যন্ত প্রায় ৪০ জনকে জেরা করেছে মুম্বাই পুলিশ। এদের মধ্যে রিয়া ছাড়াও রয়েছেন পরিচালক মহেশ ভাট, সঞ্জয়লীলা বানসালিসহ বলিউডের নামজাদা ব্যক্তিরা।


বলিউড এর সর্বশেষ খবর

বলিউড - এর সব খবর