ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭

কাতারে প্রবাসী শ্রমিকদের জন্য অনেক বড় একটি সুখবর

২০২০ জুলাই ১০ ১০:১৯:২১
কাতারে প্রবাসী শ্রমিকদের জন্য অনেক বড় একটি সুখবর

করোনা ভাইরাসের আক্রমনে টালমাটাল সারা বিশ্ব। এই ভাইরাসের তান্ডবে বন্ধ রয়েছে বিশ্বের শত শত প্রতিষ্ঠান। কিন্তু অর্থনীতি বাঁচাতে বিশ্বের অনেক দেশই লকডাউন খুলে দিচ্ছে। তবে শর্ত দিয়ে দেওয়া হয়েছে স্বাস্থবিধি মানতে। আর স্বাস্থবিধি না মানলে গুনতে হবে জরিমান অথবা খাটতে হতে পারে জেলও।

বিশ্বের অন্যতম ধনী রাষ্ট্র কাতারে কোভিড-১৯ সংক্রমণ এবং বিস্তার রোধে বর্তমানে সবার মোবাইল ফোনে এহতেরাজ অ্যাপ থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কাতারের নাগরিক অথবা প্রবাসী সকলের জন্যই এ আদেশ বাধ্যতামূলক।

কাতারের এই এহতেরাজ অ্যাপ মোবাইলে না থাকলে সরকারি এবং বেসরকারি অফিস থেকে শুরু করে কোনো প্রতিষ্ঠান, এক্সচেঞ্জ, ব্যাংক বা শপিংমলেও প্রবেশ করা যায় না।

সকল শ্রমিকতো অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী নয়। তাই তারা এহতেরাজ অ্যাপের উপযোগী মোবাইল ফোন ক্রয় করতে পারছে না। সেক্ষেত্রে কাতার শ্রম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কোম্পানিকে আদেশ দেওয়া হয়েছে, কোনো শ্রমিকের কাছে স্মার্টফোন না থাকলে তাকে কোম্পানির পক্ষ থেকে মোবাইল দিতে হবে। তবে কোনোভাবেই এহতেরাজ অ্যাপ ছাড়া কোনো শ্রমিক কাজে যোগ দিতে পারবে না।

কোনো কর্মীর মোবাইল ফোন না থাকলে অথবা মোবাইল ফোনে এহতেরাজ অ্যাপ না থাকলে ওই শ্রমিকের কোম্পানির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপসাগরীয় এই দেশের সরকার জানায়, এহতেরাজ অ্যাপ থাকলে প্রত্যেক ব্যক্তির শারীরিক অবস্থা জানা সম্ভব। এর মাধ্যমে কাতারে কোভিড-১৯ গতি-প্রকৃতি ধরা যায়। তাই প্রত্যেক শ্রমিকের অথবা সাধারণ জনগণের মোবাইল ফোনে এই অ্যাপ থাকতে হবে।

গত ৬ জুলাই এক অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান কাতারের শ্রম মন্ত্রণালয়ের পরিদর্শন বিভাগের প্রধান ফাহাদ আদদৌসারি।

ফাহাদ আদদৌসারি আরও বজানান, শ্রমিকদের জন্য এই গরমের মৌসুমে কাজের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। এই নিয়ম অমান্য করায় এখন পর্যন্ত ১৪০-টি কোম্পানির বিরুদ্ধে আইন অনুসারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।


বহির্বিশ্ব এর সর্বশেষ খবর

বহির্বিশ্ব - এর সব খবর