ঢাকা, বুধবার, ৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গুজব উড়িয়ে অভিনেত্রী বললেন, ‘আমি বেঁচে আছি’

২০২০ মে ২৩ ১৬:২৮:২৮
গুজব উড়িয়ে অভিনেত্রী বললেন, ‘আমি বেঁচে আছি’

মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ার পর বর্ষীয়ান অভিনেত্রী মুমতাজ স্বয়ং জানিয়ে দিলেন, তিনি বেঁচে রয়েছেন এবং এখনও ‘উপস্থাপনযোগ্য’। লন্ডনে কন্যারা ও তাদের পরিবারের সঙ্গে থাকেন ৭৩ বছরের মুমতাজ। তার কন্যা তানিয়া মাধবানি ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করেন যেখানে মুমতাজ তার মৃত্যু সংক্রান্ত

গুজবকে উড়িয়ে জানিয়ে দিয়েছেন। সম্পর্কিত খবর ইয়াসির শাহর মৃত্যুর গুজবসাইড রোলের জন্য শাহরুখের অডিশন, ছেঁটে ফেলেন বিধু বিনোদ!আমফান বিধ্বস্ত বাংলার ছবি পোস্ট করলেন কারিনা

ওই ক্লিপে মুমতাজকে বলতে শোনা যায়, হাই, আমার সমস্ত ভক্তরা, আমি তোমাদের ভালোবাসি। দেখতে পাচ্ছ? আমি মরিনি। আমি বেঁচে আছি এবং তাদের দাবি মতো ‘বুড়িও' নই। তোমাদের আশীর্বাদে আমি আজও উপস্থাপনযোগ্য।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় মুমতাজের মৃত্যু সংবাদের গুজব ছড়িয়ে পড়েছিল। মুমতাজের ভিডিওটির সঙ্গে কন্যা তানিয়া লেখেন, আমার মায়ের তরফে তার ভক্তদের প্রতি বার্তা! আরও একবার তার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু তিনি ভালো আছেন, সুস্থ আছেন। বহু বছর আগে তিনি যখন ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করছিলেন, সেই সময়ের ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে তিনি বুড়িয়ে গিয়েছেন। তিনি এখন স্বাস্থ্যবতী ও সুখী এবং সুন্দরী। তাকে রেহাই দিন। উনি ৭৩!

প্রসঙ্গত, ২০১০ নাগাদ ক্যানসার ধরা পড়েছিল মুমতাজের। গত বছরেও মুমতাজের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়েছিল। সেই সময়ও সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তার পরিবারের তরফে জানানো হয়েছিল, খবরটি সম্পূর্ণ ভুয়ো ও ভিত্তিহীন। বর্ষীয়ান অভিনেত্রী সুস্থ রয়েছেন। সেই সময় অবশ্য মুমতাজ সামনে আসেননি। তার কন্যাই জানিয়ে দিয়েছিলেন, তার সুস্থতার কথা।

ছয় ও সাতের দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মুমতাজ বহু বিখ্যাত অভিনেতার বিপরীতে রুপালি পর্দায় অভিনয় করেছেন। এর মধ্যে রয়েছেন দেব আনন্দ (হরে কৃষ্ণা হরে রাম ও তেরে মেরে স্বপ্নে), দিলীপ কুমার (রাম অউর শ্যাম), ধর্মেন্দ্র (লোফার ও আদমি অউর ইনসান), রাজেশ খান্না (আপনা দেশ, প্রেম কাহানি, সাচ্চা ঝুটা) ও সুনী‌ল দত্তের (হামরাজ ও নাগিন) মতো নায়করা।

১৯৭৪ সালে ব্যবসায়ী মযূর মাধবানির সঙ্গে বিয়ে হয় মুমতাজের। এর কয়েক বছর পরে তিনি অভিনয় থেকে সরে যান। তবে ১৩ বছর পরে আবারও চলচ্চিত্র দুনিয়ায় ফেরেন তিনি। ডেভিড ধাওয়ানের ‘আঁধিয়া’য় দেখা যায় তাকে। শেষবার তাকে সিনেমায় দেখা গিয়েছিল ২০১০ সালে ‘১ আ মিনিট' ছবিতে।

মুমতাজের দুই কন্যা- তানিয়া ও নাতাশা। নাতাশার সঙ্গে অভিনেতা ফিরোজ খানের ছেলে ফরদিন খানের বিয়ে হয়েছে।


মিডিয়া গসিপ এর সর্বশেষ খবর

মিডিয়া গসিপ - এর সব খবর