ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খুললেন অপূর্ব

২০২০ মে ১৮ ১২:৪২:৫৪
বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খুললেন অপূর্ব

বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খুললেন ছোটপর্দার দর্শকপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় বিয়ের নয় বছরের মাথায় তাঁদের দাম্পত্যজীবনের অবসান হয়েছে। শুরুতে এ খবর প্রকাশ্যে আনেন অদিতি। নিজের ফেসবুক হ্যান্ডেলে রোববার দিবাগত রাত ১টার দিকে একটি

দীর্ঘ স্ট্যাটাস দেন অপূর্ব। ইংরেজিতে লেখা ওই স্ট্যাটাসে বিচ্ছেদের ব্যাপারটি নিশ্চিত করেন তিনি। দীর্ঘ নয় বছর সংসারের পর অপ্রত্যাশিত এ বিচ্ছেদে তাঁর মানসিক অবস্থার কথা জানান। সেই সঙ্গে অদিতির প্রশংসাও করেন।

অপূর্ব লেখেন, ‘এত বছর আমরা একসঙ্গে ছিলাম, সে (অদিতি) দুর্দান্ত সঙ্গী ও সত্যিকারের শুভাকাঙ্ক্ষী ছিল। আমার অনেক সাফল্যের পেছনে মূল ভূমিকা পালনকারী। সে দারুণ ব্যক্তি, আত্মবিশ্বাসী উদ্যোক্তা এবং সর্বোপরি অত্যন্ত দয়ালু ও মানবিক ব্যক্তি। যদিও নিজের ক্যারিয়ারে অনেক অর্জন রয়েছে, তবু আমার সবচেয়ে বড় অর্জন—আমাদের ছেলে আয়াশ।’

এর প্রায় এক ঘণ্টা পর তিনি বাংলায় আরেকটি স্ট্যাটাস দেন, ‘ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে গসিপ করা এবং তীর্যক, মিথ্যা বানোয়াট মন্তব্য করে তাদের কষ্ট বাড়িয়ে দেওয়ার মতো খারাপ কাজগুলো থেকে সবাই বিরত থাকবেন এবং এর মধ্যে রসালো কোনো গল্প তৈরি করে সংবাদ করার চেষ্টা করবেন না, প্লিজ। অত্যন্ত সম্মানের সাথে জানাচ্ছি আমি এবং আমার স্ত্রী অদিতি অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ সমাধানের মধ্য দিয়ে আমাদের সম্পর্কের আইনগতভাবে ইতি টেনেছি। কোনো সংবাদমাধ্যম এই ব্যাপারটাতে তৃতীয় কাউকে জড়িয়ে কোনো ধরনের ভুল সংবাদ প্রকাশ করলে আমি তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

অলরেডি প্রকাশিত কিছু সংবাদের লিংক আমি সংগ্রহ করেছি। এখানে আরো উল্লেখ্য আমি অদিতিকে সম্মান করি এবং আজীবন করবে। সুতরাং কোনোভাবেই অদিতিকে অসম্মান করে তার পাশে অন্য কারো নাম আমি সহ্য করব না। ভুলে যাবেন না অদিতি এখন আইনগতভাবে আমার স্ত্রী না থাকলেও সে আমার সন্তানের মা।’

এর আগে অদিতি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে অপূর্বর প্রশংসা করেন। লেখেন, বাবা হিসেবে তিনি অসাধারণ, প্রেমময় ভাই, দায়িত্বশীল ছেলে এবং মনের দিক থেকে ভালো ব্যক্তি। তাঁকে মেধাবী বলেও উল্লেখ করেন অদিতি।

ভক্তদের উদ্দেশে অদিতি লেখেন, অপূর্বর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নয়, তাঁর অসাধারণ কাজগুলো বিচার করুন। বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্তের জন্য কাউকে বিচার না করারও অনুরোধ করেন অদিতি।

মুঠোফোনে অদিতি বলেন, ‘অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে, এটা সত্য। অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে, মানুষের এটা জানা দরকার। জানালাম। এর বেশি কিছুই বলতে চাই না। ব্যক্তিগত বিষয় ব্যক্তিগতই থাকুক।’

২০১১ সালের ২১ ডিসেম্বর নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন অপূর্ব। অপূর্ব-অদিতির আয়াশ নামে এক পুত্রসন্তান রয়েছে।


নাটক এর সর্বশেষ খবর

নাটক - এর সব খবর