ঢাকা, বুধবার, ৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

এসব সিনেমায় মিলবে খেলার উত্তাপ

২০২০ এপ্রিল ০৬ ১৪:০৫:১১
এসব সিনেমায় মিলবে খেলার উত্তাপ

করোনার প্রাদুর্ভাবের পরপরই দর্শকশূন্য গ্যালারি নিয়ে লা লিগার কয়েকটি ম্যাচ হলেও সব ধরনের খেলাই এখন বন্ধ। আগস্ট মাসে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরও বাতিল ঘোষণার অপেক্ষায়। কোনো লাইভ ইভেন্ট না থাকায় টিভিতেও দেখাচ্ছে পুরোনো ম্যাচের হাইলাইটস।

দেখতে দেখতে যদি কিছুটা বিরক্তি ধরে যায়, তবে উত্তাপ পেতে খেলাকেন্দ্রিক কিছু সিনেমা দেখে নিতে পারেন। লা লিগার কথাই যখন এল, তখন শুরু করা যাক ২০০৭ সালের ‘গোল ২: লিভিং দ্য ড্রিম’ সিনেমা দিয়ে। ইংল্যান্ডের নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের সান্তিয়াগো মুনেজ সুযোগ পেয়েছেন লা লিগার দল রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলার। মুনেজ তখন রীতিমতো তারকা। কিন্তু গোল সিনেমার এই পর্বে তারকার মাঠের বাইরের জীবনের গল্পটাই বড় করে দেখানো হয়েছে।

মাঠের খেলায় ফিরে যেতে হলে দেখতে হবে ২০০৫ সালে মুক্তি পাওয়া এই সিরিজের প্রথম পর্ব ‘গোল!: দ্য ড্রিম বিগিনস’। মেক্সিকান অবৈধ অভিবাসী মুনেজ তার পরিবার নিয়ে থাকে যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে।

একটি রেস্তোরাঁয় কাজের পাশাপাশি ছুটির দিনে স্থানীয় মাঠে খেলা মুনেজ স্বপ্ন দেখে ফুটবলটাকেই পেশা হিসেবে নেওয়ার। পরিবার ছেড়ে ইংল্যান্ডে পাড়ি জমিয়ে স্থানীয় ক্লাব থেকে বিশ্বকাপ। মাঝে পরিশ্রম, তারকাখ্যাতি, মিডিয়ায় নেতিবাচক শিরোনাম হওয়া এবং সবশেষে একজন খেলোয়াড়ের আবার শিকড়ে ফিরে আসার গল্প নিয়ে তিন পর্বের সিনেমা সিরিজ গোল! তিন নম্বর পর্বটি মুক্তি পায় ২০০৯ সালে। ফুটবলের বিশ্ব সংস্থা ‘ফিফা’ এই সিনেমা নির্মাণে সহযোগিতা করায় বেশ কজন তারকা খেলোয়াড়কেও দেখা গেছে এতে। লাইভ ইভেন্ট না থাকায় যাঁরা প্রিয় খেলোয়াড়দের মিস করছেন,

তাঁরা এই সিনেমা দেখতে পারেন। খেলা তো দেখেছেনই প্রিয় খেলোয়াড়দের, তাঁদের অভিনয়টাও না হয় দেখুন একনজরে। বাস্তব জীবনেও অনেক খেলোয়াড়ের খেলা ছেড়ে রুপালি পর্দায় নাম লেখানোর উদাহরণও কিন্তু কম নয়। এই তালিকায় বেশি পরিচিতদের মধ্যে আছেন জেসন স্টেথাম, ডোয়াইন জনসন (রক) ও ব্রেট লি। বাস্তবজীবনে খেলোয়াড় ও অভিনেতাদের মতো সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত খেলার সিনেমাও আছে।

দেখতে পারেন ১৯৫৪ সালে বিশ্বকাপ ফাইনালে তখনকার ফেভারিট হাঙ্গেরিকে হারিয়ে পশ্চিম জার্মানির চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিয়ে ২০০৩ সালে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য মিরাকেল অব বার্ন’, সর্বকালের সেরা ফুটবলার পেলেকে নিয়ে ২০১৬ সালে নির্মিত ‘পেলে: বার্থ অব অ্যা লিজেন্ড’, শচীন টেন্ডুলকারকে নিয়ে ‘শচীন: অ্যা বিলিয়ন ড্রিমস’, মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে ‘এম এস ধোনি: দা আনটোল্ড স্টোরি’ ছবিগুলো। ক্রিকেট নিয়ে সিনেমার আলোচনা উঠলে সবার আগে আসে ‘লগান’ ছবির নাম। খেলার সঙ্গে জাতীয়তাবাদের মসলা মেশানো ‘লগান’-এর মতো বলিউডের এমন আরও সিনেমার মধ্যে আছে ‘চাক দে ইন্ডিয়া’

, ‘ভাগ মিলখা ভাগ’। তবে বেশ কিছুদিন ঘরবন্দী থাকায় একঘেয়েমির ভাব কাটাতে এগুলোর আগে দেখতে পারেন ‘শাওলিন সকার’, ‘ইনভিকটাস’, ‘মিলিয়ন ডলার বেবি’, ‘মানি বল’, ‘এনি গিভেন সানডে’ ও ‘দ্য ফাইটার’ ছবিগুলো। খেলা নিয়ে দেশি সিনেমা না থাকার আফসোসে পুড়লে খিজির হায়াত খান নির্মিত ‘জাগো’ সিনেমাটাই আপনার জন্য সবেধন নীলমণি।


মিডিয়া গসিপ এর সর্বশেষ খবর

মিডিয়া গসিপ - এর সব খবর