ঢাকা, সোমবার, ১ জুন ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

করোনায় কপাল পুড়ল পরিচালকের

২০২০ মার্চ ২৯ ১১:০৫:১৭
করোনায় কপাল পুড়ল পরিচালকের

নাটক আর টেলিছবি মিলিয়ে শতাধিক পরিচালনার অভিজ্ঞতা নির্মাতা কৌশিক শংকর দাশের। অনেক দিন ধরে তিনি ছবি বানানোর পরিকল্পনা করছিলেন। সবকিছু ঠিকঠাক করে ডিসেম্বরের প্রথম দিকে সিনেমার শুটিং শুরুর কথাও ছিল তাঁর। কাস্টিং নিয়ে জটিলতা তৈরি হওয়াতে শুটিং এসে ঠেকে ২৯ ফেব্রুয়ারিতে।

৯ দিন শুটিংয়ের পর দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে বাধ্য হয়ে শুটিং বন্ধ করে দিতে হয় পরিচালককে। এতে পরিচালকের মনমেজাজ ভীষণ খারাপ। পরিচালকের মতে, করোনায় আমার কপাল পুড়ল। তা না হলে প্রথম ছবিতেই এমনটা ঘটবে কেন! কৌশিক শংকর দাশ প্রথম নাটক তৈরি করেন আজ থেকে ১৪ বছর আগে।

‘সেই তুমি’ নামের নাটকটি প্রচারিত হয় এনটিভিতে। প্রথম সিনেমা ‘পাঞ্চ’–এর কাজ করতে গিয়ে বেশ কিছুদিন বিজ্ঞাপনচিত্র ও নাটকের কাজ থেকে দূরে ছিলেন। গত ২৯ ফেব্রুয়ারি প্রথম দিনের শুটিং শেষে ১১ মার্চ থেকে আবার শুটিং শুরু হয় ছবিটির। এর মধ্যে এক দিন বিরতি দিয়ে ২০ মার্চ এই লটের শুটিং শেষ করেন। জনপ্রিয় খেলা মার্শাল আর্টের পটভূমিতে চলচ্চিত্রটির গল্প সাজানো হয়েছে।

অনিচ্ছা সত্ত্বেও জাতীয় বক্সিং চ্যাম্পিয়ন কবির এই খেলার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন, যেখানে পর্দার আড়ালে ঘটে নানা অবৈধ কাজ। এ নিয়ে স্ত্রী আশার সঙ্গে দাম্পত্যজীবনে শুরু হয় দ্বন্দ্ব। ঘটতে থাকে আরও নানা ঘটনা। ছবিটির কাহিনি, সংলাপ ও চিত্রনাট্য যৌথভাবে লিখেছেন মোমিনুল হক ও কৌশিক শংকর দাশ।

ছবিতে বক্সার কবিরের চরিত্রে নিলয় ও তার স্ত্রী আশার চরিত্রে অভিনয় করেছেন মেঘলা মুক্তা।কৌশিক শংকর দাশ বলেন, ‘আমার সিনেমার শুটিং আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে শেষ করার কথা ছিল। সেভাবেই সবকিছু (সেট, কস্টিউম, বিদেশিদের কাজের অনুমতিপত্র) প্রস্তুতও ছিল। বলতে পারেন, প্রথম ছবির শুটিংয়ের সব একেবারে রেডি করেই মাঠে নেমেছিলাম। ৪ ভাগের ১ ভাগের শুটিংও করতে পেরেছি। এপ্রিলে ছিল বিদেশিদের নিয়ে কাজ। করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে এখন আবার নতুন করে শুটিংয়ের পরিকল্পনা করতে হবে। কবে যে করতে পারব, তা বলাও মুশকিল।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার অপেক্ষায় আছি।’ কৌশিক শংকর দাশ জানান, এই ছবির শুটিংয়ের আগে অভিনয়শিল্পী নিলয় অনেক পরিশ্রম করেছেন। অনেক দিন টানা জিমে সময় দিয়েছেন। মার্শাল আর্ট শিখেছেন। বক্সিং শিখেছেন।

কাজের প্রতি নিলয়ের একাগ্রতা পরিচালককে মুগ্ধ করেছে।কৌশিক শংকর দাশের ইচ্ছা ছিল আগামী নভেম্বরে ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়ার। তাঁর মতে, এই জুনের মধ্যেও যদি ছবিটির শুটিং শুরু করতে পারেন, তাহলে তাঁর কাঙ্ক্ষিত সময়ের মধ্যে ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিতে পারবেন। কিন্তু অনিশ্চিত সময়ে কোনো হিসাবই যেন করতে পারছেন না তিনি।


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর