ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬

রুনা লায়লার জীবনের স্মরণীয় দিন

২০২০ মার্চ ১৩ ২২:৪৫:১৬
রুনা লায়লার জীবনের স্মরণীয় দিন

উপমহাদেশীয় সংগীতে বাংলা গানের বরেণ্য সংগীতশিল্পী রুনা লায়লার জীবনেও স্মরণীয় দিন, স্মরণীয় মুহূর্ত আসে। তেমনি একটি মুহূর্ত গত বুধবার ধরা দিয়েছে তাঁর জীবনে। এদিন সন্ধ্যায় যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট দ্য হাউস অব লর্ডসে রুনা লায়লার সুরে ‘লিজেন্ডস ফরএভার’

অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। নিজের সুরে প্রথম অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট ভবনে হওয়ায় দিনটিকে স্মরণীয় দিন মনে করছেন তিনি। প্রথম আলোকে শুক্রবার দুপুরে এমনটাই জানালেন রুনা লায়লা। ‘লিজেন্ডস ফরএভার’ অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ছিলেন ভারতের প্রখ্যাত গজলশিল্পী অনুপ জালোটাও। রুনা লায়লা জানান, প্রথমবার কোনো গানের অ্যালবামের প্রকাশনা অনুষ্ঠান হয়েছে দ্য হাউস অব লর্ডসে। জীবনের স্মরণীয় একটি দিন এটি,

অসাধারণ মুহূর্তও। তাঁর স্বপ্নের প্রকল্প ‘লিজেন্ডস ফরএভার’ হাউস অব লর্ডসে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ হয়েছে। এত চমৎকার আয়োজনের জন্য তাঁর বন্ধু মনজিলা পলা উদ্দিনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে রুনা লায়লার স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার জন্য সিটি ব্যাংক, প্রথম আলো, ‘লিজেন্ডস ফরএভার’–সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। ‘লিজেন্ডস ফরএভার’ অ্যালবামে গান গেয়েছেন আশা ভোঁসলে, রাহাত ফতেহ আলী খান, হরিহরণ, আদনান সামি ও রুনা লায়লা নিজে। গানের কথা লিখেছেন মনিরুজ্জামান মনির ও কবির বকুল। যুক্তরাজ্য থেকে রুনা লায়লা প্রথম আলোকে বলেন, ‘কিংবদন্তিরা এই অ্যালবামে গান গেয়েছেন।

একমাত্র আশাজি (আশা ভোঁসলে) ছাড়া কেউ এর আগে বাংলায় গাননি। সবাইকে নিয়ে বাংলা গান করার একটা প্রকল্প ছিল, একটা স্বপ্ন ছিল, শেষ পর্যন্ত স্বপ্নটা পূরণ হয়েছে। হাউস অব লর্ডসে বাংলা গানের অ্যালবাম প্রকাশনা অনুষ্ঠান হয় না। আমাদের অ্যালবামের প্রকাশনা হয়েছে। এটা আমাদের সবার জন্য আলাদা একটা সম্মান।’ কথায় কথায় রুনা লায়লা জানান, ‘লিজেন্ডস ফরএভার’ অ্যালবাম নিয়ে বিবিসি তাঁর একটা দীর্ঘ সাক্ষাৎকার নিয়েছে। সাক্ষাৎকারে তিনি অ্যালবাম তৈরির পেছনের গল্পটা বলেছেন। পাশাপাশি গান নিয়ে তাঁর সামনের চিন্তাভাবনার কথাও বলেছেন। গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর সিটি ব্যাংকের এমএক্স কার্ডের প্রযোজনায় প্রকাশিত হয়েছে ‘রুনা লায়লা ফিচারিং লিজেন্ডস ফরএভার’ শিরোনামে পাঁচটি গানের মিউজিক ভিডিও।

এত বড় একটি কাজ কীভাবে সম্পন্ন হলো? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আসলে গত পাঁচ দশকে শিল্পী হিসেবেই মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি। সুর করার ব্যাপারে আমাকে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রাণিত করেছেন আলমগীর সাহেব। তাঁর প্রযোজনা ও পরিচালনায় “একটি সিনেমার গল্প” চলচ্চিত্রের জন্যই আমার প্রথম সুর করা। এরপর আমার সুর ও সংগীতে এ প্রজন্মের কয়েকজন শিল্পী গান গেয়েছে। দেশের শিল্পীদের গাওয়া গানগুলো নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে ডেইলি স্টারের “স্টার শোবিজ” ও “আনন্দধারা” সম্পাদক রাফি হোসেন বলেন, “আপনার সুরে তো আন্তর্জাতিক অঙ্গনের শিল্পীরাও গাইতে পারেন। তাহলে গানগুলো আরও বেশি আলোচিত হবে।”

তখনই বিষয়টা আমাকে ভাবায়। এরপর বসে বসে আমি পাঁচ-ছয়টা গান সুরও করি।’ রুনা লায়লা জানান, গত বছরের সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি লন্ডনে পাঁচটি গানের ট্র্যাক তৈরির কাজ শুরু হয়। সংগীতায়োজনে ছিলেন রাজা কাশ্যপ। লতা মঙ্গেশকর অসুস্থ থাকায় গানটি তাঁর গাওয়া হয়নি। সবার পরামর্শে সেই গান করেন রুনা লায়লা নিজেই।

যুক্তরাজ্যের দ্য হাউস অব লর্ডসে ‘লিজেন্ডস ফরএভার’ অ্যালবামের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনীম, হাউস অব কমনসের এমপি সীমা মালহোত্রা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


সঙ্গীত এর সর্বশেষ খবর

সঙ্গীত - এর সব খবর