ঢাকা, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬

এইমাত্র শেষ হলো বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের ম্যাচ জেনেনিন ফলাফল

২০২০ ফেব্রুয়ারি ১৯ ১৫:৪৯:৪৭
এইমাত্র শেষ হলো বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের ম্যাচ জেনেনিন ফলাফল

বুধবার প্রথম সেশনেই ৫ উইকেট হারানো বিসিবি একাদশ ঘুরে দাঁড়ায় মিডলঅর্ডারের পাল্টা আক্রমণে। অধিনায়ক আল-আমিনকে সঙ্গী করে দুইশ পেরোনো জুটিতে দারুণ জবাব দেন যুব বিশ্বকাপজয়ী দলের ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম, ৮৭ বলে তুলে নেন শতক।

বাঁহাতি তামিম সেঞ্চুরি ছুঁয়েছেন ৫ ছয় ও ১০ চারে ইনিংস সাজিয়ে। শেষপর্যন্ত আরও চারটি চার হাঁকিয়ে ৯৯ বলে ১২৫ রানের হার না মানা ইনিংস নিয়ে সাজঘরে ফেরেন। আল-আমিন অপরাজিত থাকেন সেঞ্চুরি ছুঁয়ে। ১৬ চারে ১৪৫ বলে ঠিক ১০০ রানের ইনিংস তার।

প্রথমদিনে ৭ উইকেটে ২৯১ রান তোলা জিম্বাবুয়ে ম্যাচের দ্বিতীয় ও শেষদিনে আর ব্যাটিংয়ে নামেনি। বোলিং অনুশীলন সেরে নিতে সকালেই ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানায় বিসিবি একাদশকে। তরুণদের নিয়ে গড়া টাইগার দলটি ২৬ ওভারে ৫ উইকেটে ৮৪ রান তুলে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায়।

ফিরে চড়াও হয় সফরকারী বোলিংয়ের উপর। আর কোনো উইকেটও হারায়নি। আল-আমিন তবু রয়েসয়ে এগিয়েছেন, তামিম ব্যাটকে তলোয়ার বানিয়ে ছোটেন নির্ভার থেকে। চা বিরতির পর তুলে নেন শতক। ৫৭ ওভারে ৫ উইকেটে বিসিবি একাদশ ২৮৮ রান তোলার পর ম্যাচে আসে ড্রয়ের ফল।

সকালে ব্যাটিংটা অবশ্য ভালো হয়নি বিসিবি একাদশের। পেস সামলে স্পিনেও দারুণ খেলছিলেন পারভেজ হোসেন ইমন। ৬৬ বল খেলে ৩৪ রান করে তিনি সাজঘরে ফেরেন বাঁহাতি স্পিনার এইন্সলের বলে মিডঅফে সহজ ক্যাচ দিয়ে।

অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক আকবর আলী পরের ওভারে লেগস্পিনার টিনোটেন্ডার গুগলিতে বোল্ড হন মাত্র ১ রান করে। তার আগে চার মেরে বিসিবি একাদশের ইনিংস শুরু করা নাঈম শেখ খেলছিলেন সাবলীল। ওপেনিং জুটি দেখাচ্ছিল ভালো কিছুর আশা।

পরে হঠাৎ ছন্দপতন। পেসার কার্ল মুম্বার স্লো-বাউন্সারে পুল করতে গিয়ে টাইমিং হেরফের হলে নাঈমের ব্যাট থেকে বল যায় মিডঅফের ফিল্ডারের হাতে। ১১ রান করে সাজঘরে ফেরেন বাঁহাতি ওপেনার। দলীয় সংগ্রহ তখন ২০ রান।

যুব বিশ্বকাপের সেমিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করা মাহমুদুল হাসান জয় বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ডানহাতি ব্যাটসম্যান বিলিয়ে আসেন উইকেট। চার্লটনের অফস্টাম্পের অনেক বাইরের বলে ব্যাটের কানা লাগিয়ে ক্যাচ দেন উইকেটরক্ষক চাকাভার হাতে। আউট হওয়ার আগে করেন মাত্র ১ রান।

শাহাদাত হোসেন জুটি গড়েছিলেন ইমনের সঙ্গে। দুইজনই আগাচ্ছিলেন ধীরলয়ে। কিন্তু জুটি বড় হওয়ার আগেই মিডঅফে সহজ ক্যাচ তুলে দেন শাহাদাত। এ ডানহাতি ২২ বল খেলে করে যান ২ রান, ৩৯ রানে ৩ উইকেট হারায় বিসিবি একাদশ। পরে লাঞ্চ বিরতির আগে জোড়া উইকেট হারায়। সেই বিপদ কাটিয়ে দুই তরুণ দেখালেন ব্যাটিং-আশার ঝলক।

বিকেএসপিতে তানজিদ হাসান তামিম ও আল-আমিনের সেঞ্চুরির পর বিসিবি একাদশ ও জিম্বাবুয়ের দুইদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে ড্রয়ের ফল এসেছে। তামিম ১২৫ ও আল-আমিন ১০০ রানে অপরাজিত থাকেন। দুজনের অবিচ্ছিন্ন জুটিটি ২১৯ রানের।


খেলাধুলা এর সর্বশেষ খবর

খেলাধুলা - এর সব খবর