ঢাকা, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬

‘আপাতত বিষয়গুলো চমক হিসেবে থাক’

২০২০ ফেব্রুয়ারি ১৯ ১০:০০:৩৯
 ‘আপাতত বিষয়গুলো চমক হিসেবে থাক’

বর্তমানে সংগীত, চলচ্চিত্রসহ সংস্কৃতির বিভিন্ন শাখা নিয়ে কাজ করছেন দেশের একমাত্র মিউজিক চ্যানেল গান বাংলার ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৌশিক হোসেন

তাপস । এসব নিয়েই তার সঙ্গে কথা বলে লিখেছেন ফয়সাল রাব্বিকীন কেমন আছেন? বেশ ভালো। তবে ব্যস্ততার মধ্যে দিয়েই সময়টা কাটছে। কাজের মধ্যে থাকলেও সময়টা উপভোগ করছি। টিএম রেকর্ডসের ব্যানারে গান প্রকাশের উদ্যোগ নিয়েছেন। তার কি অবস্থা? আমাদের কাজ এখন চলমান। নতুন মানসম্পন্ন গান নিয়ে আমরা কাজ করছি। এরইমধ্যে টিএম রেকর্ডসের ব্যানারে ফুয়াদ আল মুক্তাদির ভাইয়ের নতুন অ্যালবামের কাজ চলছে।

‘নারী শক্তি’-কে বিষয়বস্তু ধরে অ্যালবামটিতে গাইবেন ছয় নবীন নারী শিল্পী। তারা হলেন আনিকা, তাশফি, ফাইরুজ নাফিজা, জেফার, আশরিন ও প্রাগাতা। এর বাইরে আরো বেশ কিছু শিল্পীর গান নিয়ে কাজ করছি আমরা। সামনেই সবাই সব জানতে পারবেন। আপাতত বিষয়গুলো চমক হিসেবে থাক। গত বছরের শেষেই টিএম ফিল্মসের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন। সেটির কাজ কি শুরু হয়েছে? টিএম ফিল্মস নিয়ে আমাদের পরিকল্পনা বেশ আগে থেকেই। গত বছরের শেষে আমরা আনুষ্ঠানিক ঘোষণাটা দিয়েছি। সেই অনুযায়ী এ বছর থেকেই আমরা নিয়মিত চলচ্চিত্র প্রযোজনা করবো। দেশের শীর্ষ চলচ্চিত্র তারকাদের নিয়ে আমরা সিনেমা নির্মাণ করবো।

তার সঙ্গে কিছু চমকও থাকবে। আমরা সংগীতের হাওয়া বদলের চেষ্টা করেছি। আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছি। কিছুটা হলেও আমরা সার্থক হয়েছি। এবার বাংলা চলচ্চিত্রের হাওযা বদলে কিছুটা হলেও ভূমিকা রাখতে চাই। আমাদের সিনেমাকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরার চেষ্টা করে যাবো। এর জন্য সবার সহযোগিতা, উৎসাহ ও দোয়া খুব বেশি প্রয়োজন। আমার লক্ষ্য একটাই, বাংলা সংগীত ও চলচ্চিত্রকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রতিষ্ঠিত করা। সে জন্য যা যা করার দরকার আমরা করছি। এরইমধ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে। ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’ এর বেশ কিছু সিজন সফলভাবে সম্পন্ন করেছেন। আর কোনো পরিকল্পনা আছে এই মিউজিক কোলাবেরেশন নিয়ে?

আমরা ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’ এর প্রতিটি মৌসুমকেই আলাদাভাবে সাজাতে চেয়েছি। তার জন্য আগে থেকেই পরিকল্পনা গ্রহণ করে কাজ করেছি। এর ফলে দর্শকরা খুব ভালোভাবে গ্রহণও করেছেন। আর যেহেতু দেশ-বিদেশের নামি দামি মিউজিশিয়ানরা এখানে অংশ নেন তাই এর পরিকল্পনাটা খুব গোছালোভাবে করার চেষ্টা থাকে। সামনেও ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’ এর এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে ইনশাআল্লাহ। আমরা তার পরিকল্পনা এরইমধ্যে শুরু করেছি।

গান নিয়ে আপনার বিশেষ কোনো পরিকল্পনা রয়েছে? আমার সহধর্মিনী ও গানবাংলার চেয়ারম্যান ফারজানা মুন্নী আর আমি প্রতিনিয়তই চেষ্টা করছি শ্রেতা-দর্শকদের নতুন কিছু দেয়ার। এর জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বিশ্বের সবচেয়ে বড় মিউজিক কোলাবরেশন প্রজেক্ট হিসেবেই ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’ আমরা দেখতে চাই।

ইতিমধ্যে মুম্বই ও কলকাতা থেকে উইন্ড অব চেঞ্জের ফ্র্যাঞ্চাইজি চাচ্ছে। হয়তো সামনে সেটা হবে। আমি আরো বেশ কিছু কাজ করতে চাই সংগীত নিয়ে। সেটা সময় হলেই সবাই জানতে পারবেন। তাছাড়া আন্তর্জাতিকভাবে বাংলা সংগীতকে ছড়িয়ে দিতে নিত্য নতুন পরিকল্পনা হাতে নিচ্ছি আমরা।


সঙ্গীত এর সর্বশেষ খবর

সঙ্গীত - এর সব খবর