ঢাকা, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬

‘আমি রীতিমতো আতঙ্কে আছি’

২০২০ ফেব্রুয়ারি ১৯ ০০:০৯:০৭
‘আমি রীতিমতো আতঙ্কে আছি’

মডেল-অভিনেত্রী কাজী নওশাবা বর্তমানে নিজের অভিনীত তিনটি চলচ্চিত্র মুক্তির অপেক্ষায় আছেন। তবে এ অভিনেত্রী এখন মিডিয়া থেকে কিছুটা দূরে বলে জানান। ব্যস্ততা

ও সমসাময়িক নানা বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলে লিখেছেন এন আই বুলবুল সম্প্রতি আপনার ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়েছে। উদ্ধার করেছেন? ফেসবুক আইডি হারিয়ে আমি রীতিমতো আতঙ্কে আছি। গত ১২ই ফেব্রুয়ারি আমার আইডি হ্যাক হয়েছে। তার আগে কিছু ফেক আইডি থেকে আমার পরিচিতজনদের কাছে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠানো হয়। আমি বিষয়টি পুলিশের সাইবার ক্রাইম ডিপার্টমেন্টকে জানিয়েছি। তারা আইডি উদ্ধারের চেষ্টা করছেন। আপনার আতঙ্কে থাকার কারণ কি?

সবাই জানেন আমার একটি দুর্ঘটনার কথা। সেটি আমার ভুল ছিল। কিন্তু আমার এখন ভয় কেউ ফেসবুকের মাধ্যমে যদি উল্টা-পাল্টা কিছু করে। আমাদের সোস্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এখন যে কাউকে ফাঁসানো সহজ হয়ে গেছে। এভাবে চলতে থাকলে আমরা কেউ নিরাপদ থাকবো না। আপনার কাজের ব্যস্ততা কেমন? সত্যি বলতে, মিডিয়াতে আমার এখন তেমন কাজ নেই। আমার এক্সিডেন্টের পর আমাকে কেউ কাজের জন্য ডাকে না। অনেকের মধ্যে একটি ভুল ধারণা তৈরি হয়েছে।

আর তা হচ্ছে, আমাকে নিয়ে কাজ করলে হয়তো তাদের প্রবলেম হতে পারে। অথচ আদালত থেকেও বলা আছে আমার কাজ করতে কোনো সমস্যা নেই। এরমধ্যে আমি কলকাতার হৈচৈ প্ল্যাটফর্মে কাজ করেছি। দেশের বাইরে গেছি তাতেও কোনো সমস্যা হয়নি। কিন্তু আমাদের নির্মাতারা আমার কাছে জানতে চান আমাকে নিয়ে কাজ করলে কোনো প্রবলেম হবে কিনা? এই প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে আমি অনেক ক্লান্ত। আপনি কি আপনার কাছের নির্মাতাদের কাজের কথা বলছেন?

না, আমি নিজে কখনো কাজের কথা বলিনি। আমি একটা সম্মান নিয়ে মিডিয়াতে কাজ করছি। কারো কাছে ছোট হতে পারবো না। কেউ যদি আমাকে নিয়ে কাজ করতে না চান সেটি নিয়ে আমার কোনো অভিযোগ নেই। তবে মাঝে মাঝে প্রশ্ন জাগে আমার ভুলটা কি এতটা গভীর, যার জন্য আমাকে নিয়ে কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। আপনার সর্বশেষ কাজ কি? সর্বশেষ ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছি রাহাত ফতেহ আলী খানের একটি গানের মিউজিক ভিডিওর জন্য।

গানটির নাম ‘ভালোবাসা আমার পর হয়েছে’। লিখেছেন কবির বকুল। রুনা লায়লার সংগীত পরিচালনায় এর সংগীত আয়োজনে ছিলেন রাজা কাশ্যপ। মিউজিক ভিডিওটির নির্মাতা শাহরিয়ার পলক। অনেকের কাছ থেকে মিউজিক ভিডিওটির জন্য প্রশংসা পেয়েছি। বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে? পাপেট শো নিয়ে ব্যস্ত আছি। আমি আগেও আমার দল ‘টুগেদার উই ক্যান’ নিয়ে পাপেট শো করেছি। শিশুদের নিয়ে এটি আমি বেশ উপভোগ করি।

এছাড়া দুরন্ত টিভির ‘গল্প শেষে ঘুমের দেশে’ অনুষ্ঠানটি করছি। আপনার মুক্তি প্রতিক্ষীত ছবিগুলো নিয়ে বলুন। এন রাশেদ চৌধুরীর ‘চন্দ্রাবতী কথা’য় সীতা, মিজানুর রহমান লাবুর ‘৯৯ ম্যানশন’ ছবিতে একজন প্রকৌশলী, ওয়াহিদ তারেকের ‘আলগা নোঙর’ ছবিতে অনাথ এক তরুণীর চরিত্রে অভিনয় করেছি। নানা কারণে এখনো মুক্তি পায়নি ছবিগুলো। ক্যারিয়ার নিয়ে আপনার এখন পরিকল্পনা কী? আমি ভালো কিছুর অপেক্ষায় আছি। তবে হতাশ নই।

এছাড়া আমি চারুকলায় পেইন্টিং নিয়ে পড়ালেখা করেছি। আমি মনে করি প্রত্যেক মানুষের একটি দরজা বন্ধ হলে অন্য দরজা খুলে যায়। যদি মিডিয়াতে আমাকে নিয়ে কেউ কাজ করতে না চায় তাহলে আমি পাপেট শো নিয়ে থাকবো। কারণ আমি চাই আমার শিল্পী সত্তা যেন বেঁচে থাকে। আমি একটু একটু করে আমার শিল্পী সত্তাকে তৈরি করেছি।


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর