ঢাকা, রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৫ আশ্বিন ১৪২৭

২০ বছর হলো ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’

২০২০ জানুয়ারি ২৯ ১৪:১৪:১৫
২০ বছর হলো ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’

গানকে বলা হয় আত্মার খোরাক, প্রাণের রসদ। আর সেই গান ঠিকঠাক গাইতে পারলে ভক্ত-শ্রোতা যে গায়ককে কতটা ভালোবাসা দিতে পারেন, তার বড় প্রমাণ বাংলাদেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর। একটি অ্যালবামের মাধ্যমে দেশ তো বটেই, বিশ্বের বহু দেশের বাংলা ভাষাভাষী মানুষের

কাছে পৌঁছে যান আসিফ। আসিফের অ্যালবাম ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ মুক্তির ২০ বছর পূর্ণ হলো। বর্তমান সময়ের সঙ্গে তুলনা করলে তথ্যপ্রযুক্তির অনেক সুযোগ-সুবিধাই অনুপস্থিত ছিল ২০০১ সালে। রেডিও কিংবা টেলিভিশনে গান শুনে অভ্যস্ত ছিল সবাই। আর সেই অ্যানালগ সময়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় তৎকালীন সময়ের নবাগত শিল্পী আসিফ আকবরের গাওয়া ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ অডিও অ্যালবামের গানগুলো। রাতারাতি তরুণ প্রজন্মের হার্টথ্রুবে পরিণত হন আসিফ।

অ্যালবামটির থিম গান ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ তো রীতিমতো আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা পায়। অন্যান্য গানও শ্রোতামহলে ব্যাপক সাড়া ফেলে। মূলত আসিফের ব্যতিক্রমী গায়কি, বিরহী ধারার গান ও গানে মিশে থাকা আবেগ সবাইকে মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখে। দীর্ঘদিন ওই অ্যালবামের গানগুলো সর্বত্র বাজতে শোনা যায়। বলা চলে, বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যবসাসফল অ্যালবাম ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’। আজ ২৯ জানুয়ারি, ২০২০। ব্যাপক আলোচিত ওই অ্যালবামের বিশ বছর পূর্তি হলো।

আর এ উপলক্ষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে গতকাল রাত ১২টা ১৫ মিনিটে আসিফের অফিশিয়াল পেজ থেকে একটি স্ট্যাটাস শেয়ার করা হয়। সেখানে জানানো হয়, ২০০১ সালের শুরুতে ঢাকার বাইরে মুক্তি দেওয়া হয় অ্যালবামটি। এর পরের দিন তা সারা দেশের অলিগলিতে ছড়িয়ে পড়ে। এটি সংগ্রহে রাখার জন্য ওই সময়ে মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়েছিল।

আরো জানানো হয়, ৬০ লাখেরও বেশি অ্যালবাম বিক্রি হয়েছিল। স্ট্যাটাসটি এ রকম— “২৯ জানুয়ারি, ২০০১ সাল। বিশ বছর আগের কথা, প্রথমে ঢাকার বাইরে এবং পরের দিন তা সারা দেশের প্রতিটি অলিগলি আর অডিও দোকানগুলোতে বেজে উঠেছিল ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’। অ্যালবামটি সংগ্রহে রাখার জন্য তখন মানুষ একরকম হুমড়ি খেয়ে পড়েছিল।

এটি এমন একটি অ্যালবাম, যার প্রতিটি গান মানুষের মুখে মুখে ছিল। এখন পর্যন্ত দেশের অডিও ইন্ডাস্ট্রির ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় ও ব্যবসাসফল অ্যালবামটি ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’। ৬০ লাখেরও বেশি অ্যালবাম বিক্রি হয়েছিল। ইন্ডাস্ট্রিতে যে রেকর্ড আর কখনো কোনো দিন ভাঙবে না। আসিফ আকবর ইন্ডাস্ট্রিকে দেখিয়েছিলেন এক নতুন সম্ভাবনার স্বপ্ন। প্রায় একাই ইন্ডাস্ট্রিকে টেনেছেন এক দশকেরও বেশি সময়। তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে একচেটিয়া রাজত্ব কায়েম করে হয়েছেন বাংলা গানের ‘রাজপুত্র’। অজস্র জনপ্রিয় গানে সমৃদ্ধ হয়েছে বাংলা সঙ্গীতের ভান্ডার।

আমাদের দৃষ্টিতে তিনি বাংলা গানের জীবন্ত কিংবদন্তি। আজ অডিও ইন্ডাস্ট্রির ঐতিহাসিক এ্যালবাম ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ এর ২০ তম জন্মদিন !!! সবার প্রিয়া বেঁচে থাকুক প্রিয়দের অন্তরে, শুভ কামনা । শুভ জন্মদিন ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’।” এর কিছুক্ষণ পরেই, রাত ১টার কিছুক্ষণ আগে আরো একটি স্ট্যাটাস দেওয়া হয় ওই পেজ থেকে। সেখানে ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’-কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে ওই অ্যালবামের সঙ্গে জড়িত সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়।

সেইসঙ্গে শ্রোতাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানানো হয়। সেখানে জুড়ে দেওয়া হয় আসিফের একটি ছবিও। স্ট্যাটাসটি এ রকম : শুভ জন্মদিন ও প্রিয়া তুমি কোথায় ...তুমি আছো তোমার মতো, তুমি থেকো তোমার মতো, আমি আছি আমার খোঁজে, তুমি থেকো সবার মাঝে... ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা ...মহান আল্লাহর প্রতি ...ইথুন বাবু ভাই, সাউন্ডটেক, বিপাশা আপা, বাবলু ভাই,

আহমেদ রিজভী ভাই, পিন্টু ভাই...আমার স্ত্রী এবং রণ রুদ্র ...সবচেয়ে বেশী কৃতজ্ঞতা শ্রোতাদের প্রতি...যারা আমাকে ভালোবাসেন...ভালোবাসা অবিরাম... অডিও অ্যালবাম, চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক ও স্টেজ-শো নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর। এবার পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে হাজির হচ্ছেন তিনি। ‘গহীনের গান’ শিরোনামের চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।


খেলাধুলা এর সর্বশেষ খবর

খেলাধুলা - এর সব খবর