লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতা থেকে বের হওয়ার পর ছোট পর্দাতেই নিয়মিত হন প্রসূন আজাদ। একাধিক খণ্ড ও ধারাবাহিক নাটকে

অভিনয় করে প্রশংসাও কুড়িয়েছেন তিনি। যখন নাটকে বেশ ভাল জনপ্রিয়তা লাভ করছেন ঠিক তখনই প্রসূন সিদ্ধান্ত নিলেন কাজ কমিয়ে দেয়ার। কারণটা হলো চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের হাতছানি সব সময় ডেকেছে এ গ্ল্যামারাস কন্যাকে। চলচ্চিত্রে স্থায়ী কাজ করার প্রত্যয় নিয়েই ছোট পর্দার কাজ কমিয়ে দিয়ে বড় পর্দায় অভিনয় শুরু হয় তার। ঘোষণা দেন আর ছোট পর্দায় কাজ করবেন না। সেই অনুযায়ী বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়ে কাজ শুরু করেন। এর মধ্যে তার অভিনীত প্রথম ছবি ‘সর্বনাশা ইয়াবা’ চলতি মাসের ২৯ তারিখ মুক্তি পেতে যাচ্ছে। কাজী হায়াৎ পরিচালিত এ ছবিতে কাজী মারুফের বিপরীতে দেখা যাবে প্রসূনকে। আর তাই এই অভিনেত্রী এখন অপেক্ষা করছেন বড় পর্দায় নিজেকে প্রথমবারের মতো দেখার। এ বিষয়ে প্রসূন বলেন, বড় পর্দায় আসছি, ভাবতেই ভাল লাগছে। ‘সর্বনাশা ইয়াবা’ একটি সম্পূর্ণ বিনোদনমূলক ছবি। তবে এর সঙ্গে সঙ্গে একটি গুরুত্বপূর্ণ মেসেজও পাবেন দর্শক। মারুফের সঙ্গে এখানে কাজ করেছি। সব মিলিয়ে আমি ছবিটি নিয়ে বেশ আশাবাদী। অন্যদিকে সমপ্রতি আরও একটি নতুন চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন প্রসূন। ছবির নাম ‘স্বপ্নপোকা’। পরিচালনা করছেন মাসুদ আখন্দ। গেল ঈদের আগেই ঢাকার কার্জন হলে শুটিং শুরু হয়েছে ছবিটির। চলতি মাসের ১৮ তারিখ থেকে আবারও শুরু হবে এর কাজ। তবে ছোট পর্দায় নিজের অভিনয় না করার বিষয়টিতে অনড় থাকতে পারেননি প্রসূন। দিব্যি তিনি কাজ করছেন নাটকেও। সমপ্রতি ‘সুগার ফ্রি চকলেট কেক’ নামের একটি নাটকে অভিনয় করছেন প্রসূন। নাটকটি পরিচালনা করছেন শহীদ-উদ-নবী। এখানে চিত্রনায়ক রিয়াজের বিপরীতে দেখা যাবে তাকে। এখানে একজন পতিতার চরিত্রে দেখা যাবে প্রসূনকে। দুই পর্দায় অভিনয় বিষয়ে প্রসূণ আজাদ বলেন, ভেবেছিলাম বড় পর্দাতেই কাজ করবো শুধু। কিন্তু যখন কোন নাটকের গল্প ও তাতে আমার চরিত্র অনেক পছন্দ হয়ে যায় সেগুলোই শুধু করছি। আবার অনেক অনুরোধের ঢেকিও গিলতে হচ্ছে।