ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

সালমানের না নিয়ে মুখ খুললেন আলিয়া

২০১৯ সেপ্টেম্বর ২০ ১৩:৪৪:৫৫
সালমানের না নিয়ে মুখ খুললেন আলিয়া

সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘ইনশাআল্লাহ’ নিয়ে বলিউড অঙ্গনে আলোচনা চলছেই। দীর্ঘ বিশ বছর পর একসঙ্গে কাজ করতে যাচ্ছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান ও পরিচালক বানসালি—এমন সংবাদ চাউর হওয়ার পরে বি টাউনে তোলপাড় দেখা দেয়। তাঁদের দুর্দান্ত কাজ দেখতে ভক্তরা যখন উন্মুখ হয়ে ছিলেন, ঠিক তখনই নিজেকে এই ছবি থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন সালমান।

বহুল আলোচিত এই ছবির শুটিং শুরু হওয়ার মাত্র তিন দিন আগে সরে দাঁড়ান সালমান। এই ছবিতে সালমানের বিপরীতে বলিউড তারকা আলিয়া ভাটের অভিনয় করার কথা ছিল। সালমান নিজেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার ছবিটির ভাগ্য নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দেয়। সালমানের পরিবর্তে কে আসছেন এই ছবিতে, তা নিয়েও চলতে থাকে গুঞ্জন।

এরই মধ্যে আলিয়া ভাট তাঁর ভক্তদের জানিয়েছেন, ‘ইনশাআল্লাহ’র কাজ শেষ মুহূর্তে থেমে গেলেও তিনি সঞ্জয় লীলা বানসালির সঙ্গে খুব শিগগির কাজ করবেন।

হিন্দুস্তান টাইমসের সাম্প্রতিক প্রতিবেদন জানাচ্ছে, আইফা অ্যাওয়ার্ডের এবারের আসরে আলিয়া ভাট সাংবাদিকদের জানান, তিনি সালমান ও বানসালি উভয়ের সঙ্গেই কাজ করতে মুখিয়ে ছিলেন। কিন্তু পরিকল্পনামতো সব হয়নি।

‘আমি সঞ্জয় লীলা বানসালির সঙ্গে কাজ করতে ভীষণ উত্তেজিত ছিলাম, তেমনিভাবে সালমানের সঙ্গে কাজ করতেও উত্তেজিত ছিলাম। আমি বিশ্বাস করি, মাঝেমধ্যে এমন কিছু ঘটনা ঘটে যা নিজের নিয়ন্ত্রণে থাকে না। এ জন্যই বলা হয়, আপনি যদি স্রষ্টাকে হাসাতে চান, তাহলে তাঁকে আপনার পরিকল্পনার কথা জানান, কেননা পরিকল্পনা অনুযায়ী কিছুই ঘটে না। কিন্তু আপনাদের নিশ্চয়তা দিতে পারি, আমি খুব দ্রুত সঞ্জয় লীলা বানসালির সঙ্গে কাজ করতে যাচ্ছি,’ বলেন আলিয়া।

গুঞ্জন চলছিল, বানসালি ও আলিয়া রূপজীবীদের নিয়ে নির্মিত একটি সিনেমায় কাজ করবেন।

বিনোদনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম পিংকভিলার একটি সুত্রের বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদন জানায়, বানসালি আলিয়ার সঙ্গে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এবং তিনি প্রতিশ্রুতি রাখার মতো মানুষ। তিনি এখন কামাঠিপুরার গাংগুবাইয়ের একটি পতিতালয়ের মালিককে নিয়ে ছবি নির্মাণে আলোচনা করছেন। ছবিটি এস হুসাইন জাইদির লেখা ‘কুইন্স অব মুম্বাই’ বই অবলম্বনে নির্মিত হবে।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া আইফা অ্যাওয়ার্ডে ‘ইনশাআল্লাহ’ প্রসঙ্গে সালমান বলেন, ‘আপাতত ছবিটি হচ্ছে না। কিন্তু হবে। তবে অবশ্যই আমি থাকছি না।’
সালমান তাঁর ভক্তদের নিশ্চয়তা দেন যে, ‘ইনশাআল্লাহ’ যে সময়ে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল, অর্থাৎ ২০২০ সালের ঈদে তাঁর অন্য একটি ছবি মুক্তি পাবে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, ছবির গল্প ভাইজানের সঙ্গে না মেলায় তিনি ‘ইনশাআল্লাহ’ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। সূত্রটি জানায়, বানসালি কেবল ছবির প্রথম অংশটি জানিয়েছিলেন সালমানকে। কিন্তু এর পরের অংশ নিয়ে প্রস্তুত ছিলেন না বানসালি। সালমান পরের অংশটুকু জানতে চান বানসালির কাছে। এ ছাড়াও ছবিটির উত্তেজনাকর অংশগুলো কেমন হবে, তাও জানতে চান। যা নিয়ে বিরোধ দেখা দেয় সালমান-বানসালির মধ্যে।

অন্যদিকে, একটি পত্রিকার বরাত দিয়ে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে জানায়, ‘ইনশাআল্লাহ’ ছবির চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে সালমান ও আলিয়ার মধ্যে কিছু চুমুর দৃশ্য ছিল। কিন্তু বরাবরের মতোই সালমান চুমুর দৃশ্যে অনাগ্রহ দেখান। তিনি চুমুর দৃশ্য বাদ দিতে বানসালিকে অনুরোধ করলেও সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন পরিচারক। আর সে কারণেই বহুল আলোচিত ছবিটি থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন সালমান।

বানসালি পরিচালিত ও সালমান অভিনীত ‘হাম দিল দে চুকে সনম’ ১৯৯৯ সালে মুক্তি পায়। বক্স অফিসে ব্যাপক সাড়া ফেলা দর্শকপ্রিয় এই ছবিতে ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চন ও অজয় দেবগনেরও দেখা মেলে।


বলিউড এর সর্বশেষ খবর

বলিউড - এর সব খবর