ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

প্রতিটা মানুষের কিছু নাবলা কথা থাকেঃ তৃষা

২০১৯ সেপ্টেম্বর ০৬ ১৯:০৬:৩০
প্রতিটা মানুষের কিছু নাবলা কথা থাকেঃ তৃষা

মায়াবতী’র ট্রেলার মুক্তি পেলো। বোঝা গেলো, সিনেমায় একটা ভিন্ন ধরনের চরিত্রে দেখা যাবে আপনাকে। এধরনের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য কোনো পূর্ব প্রস্তুতির প্রয়োজন হয়েছিল কী?

সব ধরনের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য প্রস্তুতি প্রয়োজন হয়। চরিত্রটি নিয়ে ভাবতে হয়। কীভাবে অভিনয় করলে সেটা বিশ্বাসযোগ্য হবে, মানুষ পছন্দ করবে—এসব বিষয় নিয়ে তো প্রস্তুতি নিতে হয়। ‘মায়াবতী’ ছবিতে আমি একটু ভিন্ন ধরনের চরিত্রে অভিনয় করেছি। দৌলদিয়া যৌনপল্লীতে ছবির শুটিং হয়েছে। সেখানে যারা ছিলেন তাদের কাছ থেকে অনেক কিছুই শিখেছি, যা অভিনয়ে কাজে লেগেছে।

মায়া চরিত্রটির সঙ্গে বাস্তবের কোনো মিল খুঁজে পান?
বাস্তবতার আলোকেই সিনেমা নির্মিত হয়। আপনি যখন কোনো ছবি দেখবেন তখন মনে হবে, এরকম কাহিনী কোথায় যেনো দেখেছি বাস্তবে! আমার এই ছবিটিও তেমন। হয়ত কোনো এক বাস্তবতার সেঙ্গে মিলে যাবে ছবির গল্প আর মায়া চরিত্র।

ছবিটি কোনো সামাজিক বার্তা বহন করবে কি?
অবশ্যই। এই ছবিটি এক সোশ্যাল মেসেজ দেবে মানুষকে। ছেলে হোক বা মেয়ে—প্রত্যেক মানুষের ‘না’ বলার অধিকার আছে। এই ‘না’—কে সব মানুষের শ্রদ্ধা করা উচিত। এটাই হচ্ছে এই সিনেমার মূল মেসেজ।

ছবিতে ইয়াশ আপনার নায়ক। এর আগে সিয়াম আপনার নায়ক ছিল। বয়সে ছোট অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে অভিনয় করছেন। আবার সিনিয়র শিল্পীদের সঙ্গেও মানিয়ে যান।
বয়স আসলে কিছু না। শিল্পী যে কোনো বয়সের হতে পারে। একজন অভিনেত্রী হিসেবে আমি চেষ্টা করি সব বয়সী শিল্পীর সঙ্গে মানিয়ে অভিনয় করতে। আমি আমার জায়গা থেকে সর্বাত্মকভাবে ভালো অভিনয় করার চেষ্টা করি।

চরিত্র যেমেই দেয়া হোক, আপনি সেটাকে ফুঁটিয়ে তোলেন সহজে—ইন্ডাস্ট্রিতে এমন একটি কথা প্রচলিত আছে। আসলে নিজের ভেতর চরিত্র ধারণ করার বিষয়টি কি আপনার স্বভাবসুলভ?
আমার বাবা অনেক আগে আমাকে বলেছিলেন, মানুষকে পানির মতো হওয়া উচিত। পনি যে পাত্রে ঢালা হয়, সেই পাত্রের আকার ধারণ করে। মানুষ যদি পানির মতো নিজের কাজের সঙ্গে মানিয়ে চলতে পারে তাহলে সে সারাজীবন সুখে থাকবে। আমি অভিনয়ের ক্ষেত্রে বাবার কথাটি মেনে চলি। অভিনয় আমার ভালোবাসার জায়গা। অনেকটা ইবাদাতের মতো। তাই আমি চেষ্টা করি আমার চরিত্রটি নিঁখুতভাবে ফুঁটিয়ে তুলি।


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনাকে নিয়ে কখনো ট্রল হয় না। আপনি ফেসবুকে অনুপস্থিত সেজন্য, নাকি আপনি বিতর্ক এড়িয়ে চলতে পছন্দ করেন—কোনটা?
আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব বেশি অ্যাক্টিভ না। নিজস্ত কোনো অ্যাকাউন্ট নেই। তবে নিজস্ব একটি পেজ আছে। আমি সবকিছু সবার সামনে প্রকাশ করতে ইচ্ছুক না। আমি আমার লিমিটেশন জানি বলে হয়তবা আমাকে নিয়ে ট্রল হয় না। তাছাড়া কোনো ইস্যু নিয়ে বিজ্ঞের মতো মন্তব্যও করি না। আমি কাজ নিয়ে বেশি ব্যস্ত থাকি। যখন কাজ থাকে না তখন নিজের জগত নিয়ে থাকি। এটাই।

‘শনিবার বিকেল’ বিদেশে সুনাম কুড়াচ্ছে। কিন্তু দেশে আটকে আছে। কোনো আক্ষেপ আছে ?
না না। আমার কোনো আক্ষেপ নেই। আমি জীবনে কোনো কিছু নিয়ে আক্ষেপ করি না। বিদেশে ছবিটি প্রশংসিত হচ্ছে। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশেও ছবিটি শিগগিরই মুক্তি পাবে। সবকিছু আসলে সময়ের ওপর নির্ভর করে।


ঘরের মানুষ পরিচালক। অভিনয়ের পাশাপাশি তার কাছ থেকে পরিচালনার তালিম নিচ্ছেন?
পরিচালনা খুব কঠিন জিনিস। এটা সাধনার একটি বিষয়। পরিচালনায় আমার ইচ্ছা নাই। তবে প্রযোজনায় আগ্রহ আমার। ইতিমধ্যে প্রযোজকের তালিম নিয়েছি। ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ নামে একটি সিনেমা যৌথভাবে প্রযোজনা করছি। এটিতে অভিনয় করবেন বলিউড তারকা নওয়াজউদ্দীন সিদ্দিকী।


নাটক এর সর্বশেষ খবর

নাটক - এর সব খবর