ঢাকা, রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

কঙ্গনাকে ‘পাটকেল’ মারলেন তাপসী

২০১৯ আগস্ট ১৭ ১৬:৪২:১৭
কঙ্গনাকে ‘পাটকেল’ মারলেন তাপসী

কথায় আছে, ইট মারলে পাটকেলটি খেতে হয়। হলোও তাই। সুযোগ হাতছাড়া করলেন না বলিউড অভিনেত্রী তাপসী পান্নু। কঙ্গনা রানাউতের দিকে ছুটেছে তাপসীর পাটকেল! ‘নাম শবনম’ তারকা তাপসী পান্নু বলেছেন, তাঁর অভিনীত ‘মিশন মঙ্গল’-এর প্রতি কোনো প্রকার সহায়তা করেননি কঙ্গনা রানাউত। অথচ কঙ্গনাই বলেছিলেন, নারীদের উচিত একে অন্যকে সহায়তা করা। ‘মিশন মঙ্গল’-এ রয়েছেন পাঁচ নারী অভিনয়শিল্পী—বিদ্যা বালান, কীর্তি কুলহরি, নিথিয়া মেনন ও সোনাক্ষি সিনহা।

কয়েক দিন আগে ঠোঁটকাটা বলে সুপরিচিত কঙ্গনার বোন রঙ্গলি চান্দেল তাপসীকে তিরস্কার করে বলেন, এই নায়িকা নাকি কঙ্গনার ‘সস্তা কপি’। কঙ্গনার কোনো ছবিকে বলিউড তারকারা সাপোর্ট দেয় না, অভিযোগ করে অগ্নিমূর্তি হয়েছিলেন দুই বোন।

সেই প্রসঙ্গ টেনে মিড ডে-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তাপসী বললেন, “উনি (কঙ্গনা) তো সব সময় বলে বেড়ান, মেয়েদের উচিত একে অন্যকে সাপোর্ট দেওয়া। কিন্তু আমার ছবির প্রশংসা করে একটা শব্দও তো শুনতে পেলাম না। ‘মিশন মঙ্গল’-এ পাঁচ নারী অভিনয় করেছেন। উনি কি আমাদের প্রশংসা করবেন? আমি জুনিয়র, ওনার মতো ফিল্মোগ্রাফি নেই। কিন্তু বেশ কয়েকটি ভালো সিনেমা করেছি, প্রশংসার জন্য সেগুলো যথেষ্ট।”

তাপসী আরো বলেন, কঙ্গনার খোঁচায় হতাশ হয়েছেন তিনি। ‘যাঁকে আমি সব সময় প্রশংসা করি, তাঁর কাছ থেকে অমন মন্তব্য শুনে অবাক হয়েছি। হতাশ হয়েছি খুব... উত্তরে আমি বলেছিও, হ্যাঁ, আমি ওনাকে অনুকরণ (কপি) করি; কারণ উনি অভিনেত্রী হিসেবে দারুণ। আমি সস্তা, কারণ তিনি নিজেকে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া নারী অভিনেত্রী দাবি করেন। এটাকে আমি মানহানিকর মনে করি না। তিনি বলেছেন বলেই সব সত্যি হয়ে যায় না। তিনি আমাকে নয়, নিজেকে প্রকাশ করেছেন। এটা বিব্রতকর, কিন্তু আমি ওনার বিপক্ষে অবস্থান নিইনি। একজন অভিনেতা হিসেবে আমি তাঁকে ভালোবাসি, বেসেও যাব,’ বলেন তাপসী।

যা হোক, আজ মুক্তি পেয়েছে ‘মিশন মঙ্গল’। একদল সাধারণ মানুষের অভূতপূর্ব অর্জনের গল্পই বিধৃত হয়েছে ছবিটিতে। অভিনয়ে রয়েছেন অনেক তারকা। অক্ষয় কুমার, বিদ্যা বালান, সোনাক্ষি সিনহা, তাপসী পান্নু, কীর্তি কুলহরি, নিথিয়া মেনন ও শর্মণ যোশি চালিয়েছেন সেই অভিযান। ছবিতে দেখানো হয়েছে, কীভাবে ভারতীয় বিজ্ঞানীরা অসম্ভবকে সম্ভব করে জয় করেছেন মঙ্গলগ্রহ। আরো দেখানো হয়েছে, নারী বিজ্ঞানীদের বিজয়গাথা। মঙ্গলযাত্রায় অক্ষয়ের পাশে থেকে স্বপ্নপূরণে সাহায্য করেছেন এই নারীরা।

ভারতের সত্যিকারের মঙ্গল অভিযানের নায়ক, মিশন পরিচালক রাকেশ ধাওয়ান ও প্রকল্প পরিচালক তারা শিন্ধের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অক্ষয় ও বিদ্যা। ইন্ডিয়াস মার্স অরবিটার মিশন (এমওএম)-এর সহযোগী বিজ্ঞানীদেরও ছবিতে উপস্থাপন করা হয়েছে। জগন শক্তি পরিচালিত এ ছবি প্রযোজনা করেছেন ‘প্যাডম্যান’ পরিচালক আর বাল্কি। সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে


বলিউড এর সর্বশেষ খবর

বলিউড - এর সব খবর