ঢাকা, রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

অনন্ত জলিলের চুরি যাওয়া টাকা উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৪

২০১৯ জুলাই ১৮ ১৩:৪৮:১৪
অনন্ত জলিলের চুরি যাওয়া টাকা উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৪

চিত্রনায়ক অনন্ত জলিলের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এ জে আই গ্রুপের ৫৭ লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় জড়িত গাড়িচালকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা জেলার গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। প্রধান আসামির দেয়া তথ্য অনুযায়ী তার বাসার সামনের উঠান খুঁড়ে ২০ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়।

বুধবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়। পরে ওই তিন আসামি টাকা চুরি করার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকা জেলা উত্তরের গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল ভোলা জেলার দৌলতখান থানার জয়নগর গ্রাম থেকে আসামিদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- দৌলতখান থানার জয়নগর গ্রামের মৃত বারেক বিশ্বাসের ছেলে গাড়িচালক মো. শহীদ বিশ্বাস (৩৭), তার স্ত্রী আরজু বেগম (২৬), মধ্য জয়নগর গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে মো. জুয়েল (২১) ও কলাকোপা গ্রামের মৃত মান্নানের ছেলে মো. শাহবুদ্দিন (৩৩)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার ডিবির পরিদর্শক আবুল বাশার। তিনি বলেন, ভোলা জেলার দৌলতখান উপজেলার জয়নগর গ্রাম থেকে মঙ্গলবার শহীদকে গ্রেপ্তার করা হয়। শহীদের সঙ্গে তার স্ত্রী আরজু বেগম এবং সহযোগী জুয়েল ও শাহাবুদ্দিনকেও গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ডিবি পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো বলেন, চুরি করা টাকার মধ্যে ২০ লাখ টাকা পলিথিনে মুড়িয়ে বাড়ির উঠানে পুঁতে রাখেন শহীদ। তাকে গ্রেপ্তারের পর সেই টাকা মাটি খুঁড়ে উদ্ধার করা হয়। আর তার স্ত্রী আরজুর কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ৭ লাখ টাকা।

টাকা চুরির ঘটনায় গত ৭ এপ্রিল সাভার মডেল থানায় মামলা হয়। মামলায় উল্লেখ করা হয়, এজে আই গ্রুপের পরিচালকের বাসা থেকে ৫৭ লাখ টাকা নিয়ে কারখানার হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম ও গাড়ি চালক শহীদ বিশ্বাস প্রাইভেটকারে সাভার আসছিলেন। পথে কৌশলে প্রাইভেটকার ও চাবি রেখেই ওই টাকা নিয়ে পালিয়ে যান শহীদ।

মামলার বাদী জাহিদুল হাসান জানান, সাভারের হেমায়েতপুরে অবস্থিত পোশাক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল। তার প্রথম স্ত্রী, এ জে আই গ্রুপের পরিচালক জাহানারা বেগমের আদাবরের বাসা থেকে জহিরুল ইসলাম ও শহীদ বিশ্বাস গ্যাস বিল পরিশোধ করার জন্য ৫৭ লাখ টাকা নেন। টাকাগুলো ব্যাংকে জমা দেওয়ার কথা থাকলেও তা না করে পালিয়ে যান।

টাকা চুরি হওয়ার পর অনন্ত জলিল গাড়িচালককে ধরিয়ে দেওয়ার জন্য পুরস্কার ঘোষণা করেন। তিনি ফেসবুকে লেখেন, আমার ভক্তদের কাছে আমি একটি সাহায্য চাচ্ছি। আমার কারখানার এক গাড়িচালক ৫৭ লাখ টাকা গ্যাস বিল না দিয়ে পালিয়েছে। যে এই প্রতারককে ধরিয়ে দিতে পারবেন, তাকে আমি নিজ হাতে পুরস্কৃত করব।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশরাফুল আলম বলেন, চুরি হওয়া ৫৭ লাখ টাকার মধ্যে সাড়ে ২৭ লাখ টাকা উদ্ধার হয়েছে। আসামি শহীদ তাদের জানিয়েছেন, আট লাখ টাকা তিনি শ্বশুরকে দেন। দুই ভাগনেকে দেন আট লাখ টাকা। বাকি টাকা দিয়ে শহীদ বাড়ির কাজ করেছেন।


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর