ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

স্টার সিনেপ্লেক্সে ব্যবসা সফল সেরা চার ছবির নায়ক রিয়াজ

২০১৮ অক্টোবর ০৯ ২৩:২৩:৩৯
স্টার সিনেপ্লেক্সে ব্যবসা সফল সেরা চার ছবির নায়ক রিয়াজ

রাজধানীর বসুন্ধরা সিটিতে ২০০৪ সালে যাত্রা করে বাংলাদেশের অন্যতম আধুনিকতম সিনেমা হল স্টার সিনেপ্লেক্স। হলটিতে হলিউডের পাশাপাশি বিভিন্ন সময় মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশের সিনেমাও। দেশে যখন একেরপর এক হল বন্ধ হচ্ছে তখন মানসম্পন্ন ও রুচিশীল ছবির দর্শককে বারবার হলে ফিরিয়ে এনেছে স্টার সিনেপ্লেক্স।

গতকাল সোমবার ছিলো স্টার সিনেপ্লেক্সের ১৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এইদিনটিতে সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ আয়োজন করেছিলো জমকালো এক অনুষ্ঠানের। চলচ্চিত্রসহ বিভিন্ন অঙ্গনের তারকাদের অভ্যর্থনা দেয়া হয়েছে লাল গালিচায়। উপস্থিত ছিলেন বিনোদন বিভাগের সাংবাদিকরাও।

আয়োজনের এক পর্যায়ে এই ১৪ বছরে মুক্তি পাওয়া বাংলা সিনেমার মধ্যে সেরা ব্যবসা সফল ছবিগুলোকে পুরস্কার দেয়া হয়। স্টার সিনেপ্লেকের পথচলায় বাংলা সিনেমার অবদানকে মূল্যায়নের লক্ষেই এই স্বীকৃতি দেয়া হয়।

সেরা ব্যবসা সফল ছবির তালিকায় রয়েছে চিত্রনায়ক রিয়াজের চারটি ছবি। সেগুলো হলো সালাউদ্দিন লাভলু পরিচালিত ‘মোল্লাবাড়ির বউ’, তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘দারুচিনি দ্বীপ’, এস এ হক অলিক পরিচালিত ‘হৃদয়ের কথা’ এবং মুরাদ পারভেজ পরিচালিত ‘চন্দ্রগ্রহণ’।

এই চারটি ছবির ‘মোল্লা বাড়ির বউ’-এ রিয়াজের নায়িকা ছিলেন ঢাকাই সিনেমার তুমুল জনপ্রিয় দুই অভিনেত্রী মৌসুমী ও শাবনূর। ‘দারুচিনি দ্বীপ’ ছবিতে রিয়াজের নায়িকা হয়ে চলচ্চিত্রে অভিষিক্ত হয়েছিলেন জাকিয়া বারী মম। ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম ব্যবসা সফল ছবি ‘হৃদয়ের কথা’য় রিয়াজের নায়িকা ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমা আর ‘চন্দ্রগ্রহণ’ ছবিতে তার সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন অভিনেত্রী সোহানা সাবা।

গতকাল সোমবার এই চারটি ছবির নায়ক হিসেবে পুরস্কার তুলে দেয়া হয় চিত্রনায়ক রিয়াজের হাতে। পুরস্কার পেয়ে উচ্ছ্বসিত রিয়াজ বলেন, ‘বাংলা সিনেমার একজন ছোট অভিনেতা আমি। আমার চমক জাগানিয়া কোনো কারিশমা নেই। দর্শক ভালোবাসেন বলেই দীর্ঘদিন এখানে সাফল্য নিয়ে কাজ করতে পেরেছি। শুরু থেকেই অভিনয়টা শেখার চেষ্টা করেছি, এখনো করছি।’

স্টার সিনেপ্লেক্স ও তার ভক্ত-দর্শকদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘স্টার সিনেপ্লেক্সকে ধন্যবাদ বাংলা সিনেমার সঙ্গে থাকার জন্য। তারা নিঃস্বার্থভাবে আমাদের চলচ্চিত্রকে ভালোবেসে যাচ্ছেন। ঢাকাই সিনেমায় আমার সামান্য কিছু অবদানের জন্য আজকের এই সম্মান ও স্বীকৃতি দিলেন। আমি কৃতজ্ঞ। আরও কৃতজ্ঞতা জানাই আমার সিনেমার ভক্ত ও দর্শকদের কাছে। অনেকেই বলেন যে সিনেপ্লেক্সে ছবি ব্যবসা করে না। কিন্তু স্টার সিনেপ্লেক্স সেই প্রচারকে বরাবরই মিথ্যে প্রমাণ করেছে। তাদের থিয়েটারগুলোতে অনেক বাংলা সিনেমার জন্যই দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়েছে। তারই স্বীকৃতি কিন্তু আজ আমি পেলাম। আরও অনেক নায়ক ও পরিচালকেরা পেলেন। নিজের দেশের সিনেমার বিরুদ্ধে মিথ্যে প্রচার না করে ভালোটাকে ভালো বলার সাহস ও মানসিকতা সঞ্চয় করতে হবে আমাদের।’

রিয়াজ স্টার সিনেপ্লেক্সের জন্য শুভকামনা জানিয়ে বলেন, ‘আগামীতেও স্টার সিনেপ্লেক্স তার সুন্দর ও আকর্ষণীয় পরিবেশ দিয়ে আমাদের সিনেমার দর্শককে হলে টানবে সেই প্রত্যাশা করছি। তাদের পথচলা আরও সফল হোক।’

রিয়াজ ছাড়াও গতকাল ব্যবসা সফল ছবির জন্য অভিনন্দিত হয়েছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস, শাকিব খান, জয়া আহসান, নাবিলা, দীপংকর দীপন, মোস্তফা কামাল রাজ, রেদওয়ান রনি, আব্দুল আজিজ প্রমুখ।

গতকালকের অনুষ্ঠানে একমঞ্চে উঠেছিলেন রিয়াজ, ফেরদৌস ও শাকিব। তাদের সঙ্গে ছিলেন নব্বই দশকের আরেক সুপারস্টার ওমর সানীও।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমানসহ চিত্রনায়িকা পপি, জয়া আহসান, নাবিলা, কনা, দীপা খন্দকার, শারমিন শিলা, শাহরিয়ার নাজিম জয় ও আরও অনেক তারকা।

প্রসঙ্গত, প্রয়াত চিত্রনায়ক জসীমের হাত ধরে ১৯৯৫ সালে ‘বাংলার নায়ক’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন রিয়াজ। ১৯৯৭ সালে মহাম্মদ হান্নান পরিচালিত ‘প্রাণের চেয়ে প্রিয়’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে রাতারাতি জনপ্রিয় নায়কে পরিণত হন। এরপর শাবনূরের সঙ্গে জুটি বেঁধে ‘নারীর মন’, ‘বিয়ের ফুল’, ‘মন মানে না’, ‘এ বাঁধন যাবে না ছিড়ে’, ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’, ‘প্রেমের তাজমহল’, ‘মাটির ফুল’সহ উপহার দিয়েছেন অসংখ্য ব্যবসা সফল সিনেমা। নায়িকা পূর্ণিমার সঙ্গেও ‘হৃদয়ের কথা’, ‘মনের মাঝে তুমি’, ‘জামাই শ্বশুর’সহ বেশ কিছু সুপারহিট ছবি দিয়ে গড়ে উঠেছিলো তার সফল জুটি। এর বাইরে মৌসুমী, পপি, কেয়া, আয়না, শশী, মাহিসহ আরও অনেক নায়িকার সঙ্গেই জুটি বেঁধে সফল হয়েছেন রিয়াজ।

তিনি প্রয়াত কথাসাহিত্যিক ও চলচ্চিত্রকার হুমায়ূন আহমেদের ‘দুই দুয়ারী’ ও ‘শ্যামল ছায়া’ ছবিতে অভিনয় করে পেয়েছেন আলাদা গ্রহণযোগ্যতা। এছাড়াও রিয়াজ ভারতীয় চলচ্চিত্রকার ও অভিনেতা মহেশ মাঞ্জরেকারের ‘ইট ওয়াজ রেইনিং দ্যাট নাইট’ নামে একটি ইংরেজি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। এই চলচ্চিত্রে রিয়াজ বলিউড অভিনেত্রী সুস্মিতা সেনের সাথে কাজ করেছেন।

ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত সেরা অভিনেতা হিসেবে তিনটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন রোমান্টিক সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক রিয়াজ।


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর