ঢাকা, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

জোসনা-কাঞ্চনের বোঝাপড়া এখনো হৃদ্যতাপূর্ণ

২০১৮ সেপ্টেম্বর ১৩ ২১:২২:৪৫
জোসনা-কাঞ্চনের বোঝাপড়া এখনো হৃদ্যতাপূর্ণ

গত রোববার অভিনেত্রী অঞ্জু ঘোষ যখন সংবাদ সম্মেলন করছিলেন তখন পাশের চেয়ারে ছিলেন ইলিয়াস কাঞ্চন। মাইক্রোফোন সামনে নিয়ে দীর্ঘ দিন দেশের বাইরে থাকার অভিজ্ঞতা এবং বাংলা চলচ্চিত্রের বর্তমান হাল অবস্থা বর্ণনা করছিলেন তিনি। কিন্তু ওইদিন সংবাদ সম্মেলনে হাজির হওয়া সংবাদ কর্মীদের কৌতুহলের কেন্দ্রে ছিল বেদের মেয়ে জোসনা খ্যাত অভিনেত্রীর সাথে কাঞ্চনের সাক্ষাতের বিষয়টি।

অঞ্জু ঘোষের তথ্যনুযায়ী ১৯৯৬ সালে মাত্র দুইদিনের জন্য ঢাকা থেকে কলকাতায় গিয়ে ফেসে যাওয়ায় আর দেশে ফেরা হয়নি তার। কিন্তু কাঞ্জনের সাথে তার দেখা নেই তারও এক বছর আগে থেকে। সেই হিসেবে জোসনা-কাঞ্চনের দেখা হয়েছে প্রায় ২৩ বছর পর।

এই সময়ের মধ্যে দুজন-দুজনকে অনুসন্ধ্যান করেছেন অনেক কিন্তু দেখা হয়নি একবারও। কাঞ্চন বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে তার খোঁজ নেয়ার চেষ্টা করেছি। তিন-চারবার কলকাতায় গিয়েছিলাম অন্যকাজে তখনও অঞ্জুর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছি। তবে অঞ্জু বললেন, সঠিক জায়গায় নক করা হলে কোন না কোনভাবে হয়তো খোঁজ পাওয়া যেতো। অবশ্য অভিনেত্রী স্বীকার করেছেন নিজের লুকিয়ে থাকার কথাও।

তিনি বলেন, কলকাতায় বসবাস শুরুর পর থেকে অধিকাংশ সময় কাঁটানো হয়েছে যাত্রাপালায় কাজ করে। সিনেমা বাদ দিয়ে যাত্রায় কাজ করছি এই খবরটা খুব বেশি প্রচারণায় আসুক সেটা আমি নিজেই চাইনি। একারণেই কারো সাথে যোগাযোগ ছিল না। তবে মাঝে মাঝে যখন বাংলাদেশীদের সাথে দেখা হতো, তখন চলচ্চিত্রের সবার কথাই জিজ্ঞাসা করতাম, ইলিয়াস কাঞ্চনের কথাও।

দুজনের কথায় এটা স্পষ্ট যে, দীর্ঘ দিন দেশ ও চোখের সীমানায় না থাকলেও দুই নায়ক-নায়িকার মধ্যে আন্তরিকতার কোন অভাব ছিল না। সংবাদ সম্মেলন শেষে দুজনের চাহনিতেও সেটা স্পষ্ট হয়েছে। যার প্রমান উপড়ের ছবিটি।

ওই সংবাদ সম্মেলনের পর প্রযোজক নাদের চৌধুরী ‘জোসনা কেন পরবাসে’শিরোনামে একটি ছবি নির্মানের ঘোষণা দেন। যেখানে ইলিয়াস কাঞ্চন ও অঞ্জুকে অভিনয় করার আহ্বান জানানের হয়েছে। দুজনেই সম্মতি দিয়েছেন। উভয়েই বলেছেন, ভালো চিত্রনাট্য হলে কাজ করতে আপত্তি নেই।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, আমাদের সময় চলচ্চিত্রে সহশিল্পীদের প্রতি যে আন্তরিকতা ছিল এখন সেটা দেখা যায় না। আমরা যখন শুটিং করতে সেটে যেতাম তখন পুরো ইউনিটের মধ্যে একটা পারিবারিক আমেজ কাজ করতো। একজন আরেকজনের খবর নিতাম। ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ ছবিটি দেশব্যাপী আলোড়ন তোলার পর আমাদের পুরো ইউনিটের মধ্যে আনন্দের রোল বয়ে গিয়েছিল। সেই স্মৃতি এখনো আমাকে রোমাঞ্চিত করে। এ কারণেই ওই ছবির নায়িকা অঞ্জু ঘোষকে মিস করতাম।

কাঞ্চন বলেন, ‘গত রোববার আমার জরুরী একটা কাজ ছিল, সেটা বাদ দিয়ে আমি এফডিসিতে ছুটে এসেছিলাম। আমার মনে হয় সহকর্মীদের প্রতি এই ভালোবাসা থাকাটা অনেক বেশি দরকার।’


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর