ঢাকা, শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮, ৬ শ্রাবণ ১৪২৫

তাঁরা কি হতে পারবেন কালোত্তীর্ণ?

২০১৮ জুলাই ১০ ২৩:৪২:২৫
তাঁরা কি হতে পারবেন কালোত্তীর্ণ?

প্রতিশোধ, নায়ক ভিলেনের এলোমেলো মারপিট, ভিলেনকে ধরে নায়কের বেধরক পিটুনি, নায়িকার বৃষ্টিভেজা গান এবং শেষ দৃশ্যে পারিবারিক মিলন বা বেকার যুবকের সঙ্গে বড়লোক বাবার আদুরে কন্যার প্রেম কিংবা প্রতিবাদী নারী বা চোরাকারবারিকে ধরার জন্য সৎ পুলিশ অফিসারের ভূমিকাই এক সময় ছিল বাংলা চলচ্চিত্রের মূল উপজীব্য।

গেল কয়েকবছরে চলচ্চিত্রের গল্পে এসেছে বেশ পরিবর্তন। এই পরিবর্তনের জোয়ার এসেছে নাটক ও বিজ্ঞাপনেও। পরিবর্তনের এই ছোয়া যাদের হাত ধরে এসেছে। তাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যভাবে বলা যায়-গিয়াসউদ্দীন সেলিম, মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, অমিতাভ রেজাদের নাম। তাঁদের সঙ্গে আছেন অনিমেষ আইচ, দীপংকর দীপন, শিহাব শাহিনরা।

নাটক, বিজ্ঞাপন ও সিনেমা-সংস্কৃতির তিন মাধ্যমে পৃথকভাবে তাঁরা এগিয়েছেন। প্রায় সবাই নিজেদের দক্ষতা দেখিয়েছেন সব মাধ্যমে। কিন্তু হিসেব করা যাক কে কোন মাধ্যমে কতটা সফল-

গিয়াসউদ্দীন সেলিম: গিয়াস উদ্দিন সেলিমের প্রথম ছবি ‘মনপুরা’, প্রথম লেখা টিভি নাটক ‘পৌনঃপুনিক’, প্রথম পরিচালিত টিভি নাটক ‘বিপ্রতীপ’। তার প্রতিটি প্রথম কাজ যেমন দর্শক মাতিয়েছে, তেমনি অর্জন করেছে সমালোচকদের প্রশংসা। আবার পুরস্কারও পেয়েছেন দেশে-বিদেশে । এসব শুনে কেউ যদি ভাবেন, সম্রাট নেপোলিয়ানের মতো গিয়াস উদ্দিন সেলিমও এলেন দেখলেন আর জয় করলেন, তবে তার ভাবনাটা হবে ভুল। ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে তিনি সংস্কৃতিচর্চার সাথে জড়িত। তার উঠে আসার পেছনেও রয়েছে অনেক চেষ্টা ও শ্রম।

তিনি সব সময়ই স্বীকার করেন নাটক-চলচ্চিত্রে ‘গিয়াস উদ্দিন সেলিম’ একটি ব্র্যান্ডের নাম হয়ে ওঠার পেছনে থিয়েটারের অবদান সীমাহীন। দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন থিয়েটারে।

ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায়ও প্রথমে নাট্যকার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। ‘দক্ষিণের ঘর’,‘মাধবী এবং অন্যান্য,‘দ্বৈরথ’,‘স্বপ্নশকট’ তার প্রথম দিককার লেখা নাটক । অধিকাংশ নাটকই প্রচার হয় সে সময়ের জনপ্রিয় টিভি চ্যানেলে। রাতারাতি তারকা নাট্যকারে পরিণত হন।

পরিচালক হিসেবে প্রথম করলেন ‘বিপ্রতীপ’। যা টিনেজারদের নিয়ে দেশের প্রথম নাটক। বেশ কিছু পুরস্কার মিলেছে। ‘আধিয়ার’ চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্যকার হিসেবে পেয়েছেন ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। পেয়েছেন এমন অনেক পুরস্কার।

নাটকের সকল শাখায় সফল গিয়াসউদ্দীন সেলিম। প্রথম সিনেমা বহুল আলোচিত ও ব্যবসাসফল ‘মনপুরা’। কিন্তু দ্বিতীয় ছবি প্রশংসিত হয়েও ব্যবসায়িক সফলতা পায়নি। এক্ষেত্রে সিনেমায় তিনি সফল না বললেই চলে। ক্যারিয়ারের এতটা সময় ধরে যে পরিচালক মাত্র দুটি সিনেমা নির্মাণ করেন। তাকে সফল বলা সম্ভব নয়। বিজ্ঞাপনে তিনি নিয়মিত নন।

ব্যাক্তিজীবনে গিয়াস উদ্দিন সেলিম এমন একজন মানুষ, যার জীবন যাপনে নেই বাড়তি ভারিক্কি, নেই কোন ভাব। একজন সাধারণ মানুষের মতোই তার দিনযাপন। সংসারের প্রয়োজনে বাজারে ছোটেন। সন্তানদের স্কুলের অভিভাবক সভায় হাজিরা দেন। বন্ধুদের আড্ডায় বাজে বকতেও তার জুড়ি মেলা ভার। তবে কথা যা বলেন, তার সবই সোজাসুজি। আর এ কারণেই গিয়াস উদ্দিন সেলিমকে পছন্দ করেন এমন মানুষ যেমন অসংখ্য, তেমনি অপছন্দ করেন এমন মানুষও কম নেই।

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী:

ময়ুরী-ডিপজলরা যখন দেশের সিনেমা হলগুলো ছাপিয়ে মানুষের বিবেককে কাপিয়ে দিচ্ছিল। তখন হুমায়ুন আহমেদের একক প্রয়াস নরকের উনুনে চোখের জল ছাড়া কিছুই ছিল না। তখন আগমন ঘটে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর। আর যাই হোক, নতুনভাবে আলোচনায় আসে বাংলা চলচ্চিত্র। মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর প্রথম সিনেমা ‘ব্যাচেলর’ ব্যবসায়িক সফলতা পায়। তরুন দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায়। কিন্তু পরবর্তী সিনেমাগুলো আলোচনা তৈরী করলেও তেমন ব্যবসায়িক সফলতা পায়নি।

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী শুরু করেন নাটকের মাধ্যমে। আলাদা ঘরানার জন্ম দিয়েছেন বলে মিডিয়া জগতে নানা ধরনের গল্প প্রচলিত আছে। ফারুকী ও তার একঝাক শিষ্যদের ‘ফারুকী ভাই ব্রাদার্স’ বলে আলাদা করা হয়। অনেকে বলেন ফারুকী বাংলা নাটকে ভাষার সবচেয়ে অবক্ষয় করেছেন। তবে কেন জনপ্রিয়তা পেয়েছে এমন প্রশ্নও অনেকে করেন। সহজ উত্তর,‘ যা কিছু সহজলভ্য মানুষ তাইতো গ্রহণ করে।’ তিনি মানুষের মুখের কথা সিনেমায়, নাটকে ব্যবহারের পক্ষে অবস্থান নিয়ে বাংলাদেশে একটি নতুন ধারার প্রবর্তন করেছেন। তিনি বিশ্বাস করেন, ‘ভাষা সব সময় পরিবর্তনশীল একটি যোগাযোগ মাধ্যম। মানুষ চলতি/কথ্য ভাষার সাথে অনেক বেশী একাত্মতা অনুভব করে।’

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী কর্মে, আচরনে, ব্যক্তিত্বে ভীষন আধুনিক। চমৎকার উচ্চারনে জড়তাহীন ভাষায় কথা বলেন। নিজের স্বপ্ন, লক্ষ্য, উদ্দেশ্যের, সীমাবদ্ধতার কথা অকপটে বলতে দ্বিধা বোধ করেন না।

তাকে নিয়ে আলোচনা- সমলোচনা বরাবরই চলছে সমানে সমানে। অকপটে দিয়েছেন তার জবাবও। একটা সময়ে বাংলা নাটকের পুরনো রুপ ভেঙ্গেচুরে দিয়েছেন। নাটক থেকে সিনেমায়ে এসে তিনি তার মতই গল্প বলেছেন। পুরনো ধারার বাংলা চলচ্চিত্রের গা ঘেষেননি। সেভাবেই সর্বশেষ ‘ডুব’ বানালেন। দুই ভাগ হয়ে দর্শক করেছে আলোচনা ও সমলোচনা। আসছে ‘শনিবার বিকেল’। আর যাই হোক। তিনি নিয়ম করে সিনেমা বানান।

বিজ্ঞাপনেও সফল ফারুকী। সময়ের অন্যতম ব্যস্ত ও জনপ্রিয় বিজ্ঞাপন নির্মাতা তিনি।

অমিতাভ রেজা:

মিডিয়াতে পদার্পণ নাটক নির্মাণ করে। প্রথম নাটকেই বাজিমাত। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তবে নাটক নয় ক্যারিয়ার গড়েন বিজ্ঞাপনে। এ পর্যন্ত প্রায় তিনহাজার বিজ্ঞাপন তৈরি করেছেন। ১৫ বছর ধরে বিজ্ঞাপন নির্মাণ করছেন। বাংলাদেশ বিজ্ঞাপন ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সারির সেরা নির্মাতাদের মধ্যে তাকে প্রথম বলা চলে। তবে সব নির্মাতাদেরই স্বপ্ন থাকে সিনেমা তৈরির। তিনি তার ব্যাতিক্রম নন। তাই নির্মাণ করেছেন তার প্রথম সিনেমা ‘আয়নাবাজি’। সিনেমাটি সকল শ্রেনীর মানুষ গ্রহণ করেন।

তিনি যতটা না সফল বিজ্ঞাপনে ততটাই কম পাওয়া গেছে টিভি নাটকে। সিনেমার যাত্রা তো সবে শুরু।

অন্যান্যরা:

গিয়াস উদ্দীন সেলিম, অমিতাভ রেজা, মোস্তফা সরয়ার ফারকীর সঙ্গে উচ্চারিত হত নুরুল আলম আতিকের নাম। কিন্তু তিনি এখন নেই বললেই চলে।

অনিমেষ আইচ প্রশংসিত নাট্য নির্মাতা। কিন্তু পরপর তাঁর দুই ছবিই ব্যবসায়িক সফলতাও পায়নি। নাটকে যতটা সফল। সিনেমায় ততটা ব্যার্থ। রেদওয়ান রনিও দুই সিনেমা করে বর্তমানে বিজ্ঞাপন নিয়ে ব্যস্ত।

দীপংকর দীপন তার প্রথম সিনেমা ‘ঢাকা অ্যাটাক’ দিয়ে বাজিমাত করেছেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি নাটক নির্মাণ করতেন। নাটকের ক্ষেত্রে তিনি ভালো, তবে নতুন কিছু তৈরী করতে পারেননি। সেক্ষেত্রে এ সিনেমা তাকে সময়ের আলোচিত নির্মাতা তৈরী করেছেন।

শিহাব শাহিন নাটকে বেশ জনপ্রিয়। এক সিনেমা ও নতুন সিনেমার ঘোষণাতেই তিনি থমকে আছেন।

বিজ্ঞাপনে বেশ ভালো কাজ করেন মেজবাউর রহমান সুমন। তিনি নাটকেও প্রশংসিত ছিলেন। কখনো সিনেমা বানাবেন কিনা তিনিই ভালো জানেন। ছবিয়ালের একঝাক তরুন নির্মাতার মধ্যে গুটিকয়েক সিনেমায় হাত দিয়েছেন, সামনে আসছেন অনেকে। নাটক ও বিজ্ঞাপনের আঙ্গিনায় প্রায় সবাই দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। তাঁদের মধ্যে আশফাক নিপুন, আদনান আল রাজিব, আশুতোষ সুজন উল্লেখযোগ্য।

প্রশ্ন হলো-এদের মধ্যে যুগোত্তীর্ণ, কালোত্তীর্ণ কে হবেন? একজন জহির রায়হানের মতো কাকে স্বরণ করা হবে? একজন হুমায়ূন আহমেদের জায়গা কি কেউ নিতে পারবেন? তারিক আনাম- আফজাল হোসেনের মত বিজ্ঞাপন নির্মাণে কেউ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন?


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর