ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫

কেন রেলমন্ত্রীর কাছে প্রাকাশ্যে ক্ষমা প্রার্থনা করলেন শাবানা?

২০১৮ জুন ০৮ ১০:৫৬:২৭
কেন রেলমন্ত্রীর কাছে প্রাকাশ্যে ক্ষমা প্রার্থনা করলেন শাবানা?

রেলমন্ত্রীর কাছে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চাইলেন অভিনেত্রী শাবানা আজমি৷ সম্প্রতি অভিনেত্রীর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের শেয়ার করা একটি ভিডিওর জন্যই ক্ষমা চাইতে হল তাঁকে৷ শাবানা যে ভিডিওটি পোস্ট করেছিলেন সেখানে দেখা যাচ্ছে, কিছু লোক একটি অপরিষ্কার জায়গায় থালা বাসন ধুচ্ছে৷ জায়গাটি কেবল অপরিষ্কার বললে ভুল হবে৷

নর্দমার মতো নোংরা জলে কয়েকজন মিলে থালা বাটি ধুয়ে চলেছে৷ অভিনেত্রীর শেয়ার করা ভিডিওটিতে লেখা ছিল, ভিডিওতে দেখতে পাওয়া লোকগুলি রেলওয়ে কর্মী৷ তাঁর শেয়ার করা ভিডিওটি যে একেবারেই রেলওয়ে কর্মীদের নয় সেটাই জানালেন রেলমন্ত্রী৷ শাবানার ট্যুইটের রিপ্লাই দিয়ে তিনি লিখেছেন, “ভিডিওটি মালেশিয়ার একটি রেস্টুরেন্টের৷”

এরপরই উত্তাল হয়ে ওঠে সোশ্যাল মিডিয়া৷ অভিনেত্রীর ভুল ধরা পড়তেই ট্রোলিংয়ের বৃষ্টি শুরু হয়ে যায় তাঁর ট্যুইটারের টাইমলাইনে৷ শাবানা আজমি শুধুমাত্র যে ভিডিওটি শেয়ার করেছিলেন তা নয়, রেলমন্ত্রী পিযুষ গোয়েলকে ট্যাগও করে বলেছিলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখতে৷ অভিনেত্রী অবশ্য নিজের ভুল বুঝতে পেরেই সঙ্গে সঙ্গে ক্ষমা চেয়েছেন৷ তিনি যেই সূত্র থেকে খবরটি পেয়েছিলেন সেখানে লেখা ছিল লোকগুলি রেলওয়ে কর্মী৷ তবে নেটিজেনদের দাবি, সবটা না জেনে তাঁর ভিডিওটি শেয়ার করা উচিত হয়নি৷

সাইবারবাসীরা লিখেছেন, “একজন পাব্লিক ফিগার হয়ে এধরণের ভুঁয়ো খবর ছড়ানো একেবারেই উচিত হয়নি৷ উনি নিজের ভুল পোস্টিও ডিলিট করেননি৷ মানুষ এখনও ভুল খবরটাই পাচ্ছেন তাঁর ভুঁয়ো খবরটি থেকে৷ রিসার্চ না করেই একটি অরগানাইজেশনকে অপমান করেছেন৷ এখন ক্ষমা চেয়ে কী লাভ৷” তাঁদের আরও দাবি, “শাবানা আজমির উচিত আগের পোস্টটি ডিলিট করা৷ সেটা না করে ক্ষমা চেয়ে কোনও লাভ নেই৷ কারণ আগের ট্যুইট থেকেই ভুল তথ্য ছড়িয়েছে৷ পাব্লিক ফিগার মানেই ক্ষমা চেয়ে চুপ করে গেলে চলবে না৷” , “এসব সেলেব্রিটি, ফিল্ম স্টারদের কোনও সাধারণ জ্ঞান, শিক্ষা কিছুই নেই৷” একজন তো আখতার পরিবারের সম্বন্ধে লিখেছেন, “আখতার পরিবারের একটাই কাজ৷ রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে, সরকারের বিরুদ্ধে ভুঁয়ো খবর খুঁজে বের করা৷ সেটাকে পোস্ট করা৷ ট্রোলড হলে ক্ষমা চাওয়া৷”

নিন্দুকরা রয়েছেন ঠিকই তবে শাবানার পাশে তবে কয়েকজন শাবানা আজমিকে সমর্থনও করেছেন৷ তারা লিখছেন, “উনি ভুল তথ্য দিয়েছে মানছি৷ কিন্তু তাই বলে এটা এরিয়ে গেলে চলবে না৷ দেশের এমন অনেক জায়গা রয়েছে যা খুবই নোংরা৷ সরকারকে দেশের স্বচ্ছতাকে নিয়ে আরও সক্রিয় হতে হবে৷ নয়কতো এর জন্য অনেক মানুষের প্রাণও চলে যায়৷”


হলিউড এর সর্বশেষ খবর

হলিউড - এর সব খবর