ঢাকা, শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮, ৬ শ্রাবণ ১৪২৫

সেই শাবনূর এই শাবনূর

২০১৮ জানুয়ারি ১১ ২০:৩৮:৩৫
সেই শাবনূর এই শাবনূর

একটা সময় ছিল, শাবনূর অভিনীত কোনো ছবি মুক্তি পেলে সিনেমা হলে নামত দর্শকের ঢল। তার বৈচিত্র্যময় অভিনয় পছন্দ করতেন সব শ্রেণির দর্শক। সেই তিনিই অনেক দিন ধরে নেই অভিনয়ে! অনেক দিন না বলে অনেক বছর বলাই উত্তম। সর্বশেষ তাকে পর্দায় দেখা গেছে বছর পাঁচেক আগে। আগামীকাল মুক্তি পাচ্ছে শাবনূর অভিনীত নতুন ছবি ‘পাগল মানুষ’। এই শাবনূরের মধ্যে

কি দর্শক খুঁজে বেড়াবেন সেই শাবনূরকে? লিখেছেন ফয়সাল আহমেদ। ক্যারিয়ারের শুরুর শাবনূরের চেয়ে এই শাবনূরের মধ্যে রয়েছে অনেক তফাত। শারীরিক গড়নের মতো সবটাই বদলে নিয়েছেন। প্রতিদিন নিয়ম করে দুই বেলা জিম করছেন। মাত্র তিন মাসে ওজন কমিয়েছেন ১৮ কেজি! এখন যেখানেই যাচ্ছেন, সেখানেই তাকে দেখে অবাক হচ্ছেন সবাই। রহস্য জানতে চাইছেন। শাবনূরও কোনো রাখঢাক না রেখে বলে দিচ্ছেন তার ওজন কমানোর রহস্যর কথা। তিনি বলেন, ‘আমি এখন খাবারের ব্যাপারে অনেক সচেতন। আগে যেখানে ফাস্টফুড আর আইসক্রিম ছাড়া চলত না, সেখানে এখন শুধু সালাদজাতীয় খাবার খাচ্ছি। অনেকবার কথা দিয়েছি আগের শাবনূর হয়েই পর্দায় ফিরব। কিন্তু নানা কারণে সেটা পারিনি। এবার আর ভক্তদের ঠকাতে চাই না।’

২০১২ সালে বিয়ের পর চলচ্চিত্রে অনিয়মিত হয়ে পড়েন দেশের সবচেয়ে প্রতিভাবান এই নায়িকা। রুপালি পর্দায় এখন তাকে খুব কমই দেখা যায়। শাবনূর অভিনীত সর্বশেষ মুক্তি পাওয়া ছবি মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের ‘কিছু আশা কিছু ভালোবাসা’। ছবিটি ২০১৩ সালের ২০ সেপ্টেম্বর মুক্তি পায়। সেই হিসাবে পাঁচ বছর পর সিনেমা হলে মুক্তি পেতে যাচ্ছে তার নতুন ছবি। নাম ‘পাগল মানুষ’। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন নবাগত নায়ক শায়ের খান। আগামীকাল সারা দেশের বেশ কয়েকটি হলে মুক্তি পাবে ছবিটি। ‘পাগল মানুষ’ যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন এমএম সরকার ও বদিউল আলম খোকন। ছবির দৃশ্যধারণ শুরু হয়েছিল ২০১২ সালে। ছবির দৃশ্যধারণ চলাকালে পরিচালক এমএম সরকারের মৃত্যু হয়। ফলে আটকে যায় ছবির কাজ। পরে বদিউল আলম খোকন ছবিটি পরিচালনার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন।

‘পাগল মানুষ’ ছবি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অনেক সুন্দর একটি গল্পের ছবি এটি। ছবিটি সে সময় শেষ করতে পারলে ভালো হতো। কিন্তু পরিচালক মারা যাওয়ায় করা হয়নি। এরপর আমার বিয়ে এবং অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশ আসা-যাওয়া আর অন্যান্য কারণে এতদিন ছবিটির কাজ বন্ধ ছিল। অবশেষে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে। আশা করছি, অনেকের ভালো লাগবে।’

কথা ছিল আড্ডা হবে শাবনূরের ইস্কাটনের বাসায়। কিন্তু আগের রাতে মুঠোফোনে গুলশানের এক অভিজাত রেস্তোরাঁয় দাওয়াত দিলেন তিনি। নির্দিষ্ট সময়ের কিছুক্ষণ পর এলেন বাংলা চলচ্চিত্রের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই চিত্রনায়িকা। সঙ্গে করে নিয়ে এসেছেন ছেলে আইজানকে।

এসে জানালেন, চলতি বছরেই আবারও শুটিংয়ে ফিরবেন। ‘এত প্রেম এত মায়া’ ছবির কিছু অংশের কাজ এখনো বাকি, সেটা করবেন। এরপর শুরু করবেন মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের নতুন ছবির কাজ। তিনি বলেন, ‘আমি যদি দেখতে আকর্ষণীয় না হই, তাহলে কি করে প্রযোজকরা আমার ওপর অর্থ লগ্নি করবেন।’ এদিকে গত বছরের শেষ দিকে প্রথম চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। ‘এত প্রেম এত মায়া’য় ব্যবহত হবে গানটি। সুদীপ কুমার দীপের কথা ও সুরে এর সংগীতায়োজন করেছেন কলকাতার সংগীত পরিচালক শ্রী প্রীতম। গানটির প্রসঙ্গে শাবনূর বলেন, ‘পরিচালকের অনুরোধেই গান গাইলাম। গানটিতে কণ্ঠ দেওয়ার আগে অনেক ভয়ে ছিলাম, পারব তো। কিন্তু যখন গাওয়া শুরু করলাম, তখন কোনো ভয়ই লাগেনি। বরং আনন্দের সঙ্গে গাইলাম।’

শুনলাম ছবি পরিচালনা করবেন? ‘কাজ তো শুরু করতে চাই। কিন্তু এখনো পর্যন্ত এগোতে পারিনি। এরই মধ্যে ছবির গল্প ও চিত্রনাট্যর কাজ শেষ। এই ছবির জন্য নতুন জুটির কথা ভাবছি। কারণ আমাদের এই চলচ্চিত্রশিল্পে আবার একটা নাঈম-শাবনাজ, সালমান-শাবনূর, ওমর সানী-মৌসুমীর মতো জুটি দরকার। নতুন জুটি হলেই চলচ্চিত্রের পালে হাওয়া লাগবে।’


ঢালিউড এর সর্বশেষ খবর

ঢালিউড - এর সব খবর