ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

পাকিস্তানের পরমাণু অস্ত্র চুরি করে নিয়েছে জঙ্গিরা, আশঙ্কা রিপোর্টে

২০১৭ নভেম্বর ২৪ ২১:১৬:০৩
পাকিস্তানের পরমাণু অস্ত্র চুরি করে নিয়েছে জঙ্গিরা, আশঙ্কা রিপোর্টে

পাকিস্তানের ‘ন’টি গোপন জায়গায় লুকনো আছে পরমাণু অস্ত্র। আর সেইসব জায়গা থেকে সহজেই অস্ত্রগুলো ছিনিয়ে নিতে পারে জঙ্গিরা। এমনটাই আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। এদিকে, আবার কিছুদিন আগেই ভারতে পরমাণু হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি।

সম্প্রতি, ফেডারেশন অফ আমেরিকান সায়েন্টিস্টের একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, দেশ জুড়ে মোট ন’টি জায়গায় রয়েছে এই পরমাণু অস্ত্রের ভাণ্ডার। মার্কিন পরমাণু বিশারদ হ্যানস ক্রিস্টেনসেন জানিয়েছেন, পাকিস্তান একটি শর্ট রেঞ্জ নিউক্লিয়ার আর্সেনাল তৈরি করছে। আর এই শর্ট রেঞ্জ সিস্টেম সহজেই জঙ্গিদের হাতে চলে যেতে পারে। ঘটে যেতে পারে যে কোনও ধরনের ঘটনা কিংবা দুর্ঘটনা।

অন্যদিকে, মার্কিন প্রশাসনের আশঙ্কা প্রচুর উন্নতমানের অস্ত্র রয়েছে পাক জঙ্গিদের হাতে। ট্রাম্পের প্রশাসনিক অধিকর্তারা এই বিষয়ে আলোচনা করছেন। উচ্চপদস্থ মার্কিন আধিকারিকেরা পাকিস্তানের জঙ্গি অধ্যুষিত অঞ্চলে পরমাণু অস্ত্রের উপস্থিতি লক্ষ্য করে বলে জানা গিয়েছে। কোনও জঙ্গি সংগঠন কিংবা কোনও বিশেষ সন্ত্রাসবাদীর হাতে এই অস্ত্র রয়েছে বলেই দাবি আমেরিকার।

এক মার্কিন আধিকারিক জানিয়েছেন, সাউথ এশিয়ান স্ট্র্যাটেজি সম্পর্কে বলতে গিয়ে ট্রাম্প জানিয়েছেন যে তাঁর আশঙ্কা, কোনও ভুল হাতে পড়ে গিয়েছে পরমাণু অস্ত্র। সেইসঙ্গে দুই পরমাণু শক্তিসম্পন্ন দেশ ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে জারি থাকা অশান্তি নিয়েও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ট্রাম্প। ওই আধিকারিকের কথায়, যে অস্ত্র রণক্ষেত্রের জন্য তৈরি করা হয়েছে সেটি জঙ্গিরা চুরি করে থাকতে পারে। সোমবার আফগানিস্তান ও দক্ষিণ এশিয়া সংক্রান্ত কৌশল নিয়ে বলতে গিয়ে পরমাণু অস্ত্রের বিপদের কথা উল্লেখ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

মার্কিন এক আধিকারিক যিনি সাউথ এশিয়ান পলিসি নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন, তাঁর লেখা একটি আর্টিকল ‘War on the Rocks’-এ বলা হয়েছে, পাকিস্তান বর্তমানে ২০০ থেকে ৩০০টি পরমাণু অস্ত্র বানানোর ক্ষমতা রেখেছে। এদিকে, ভারতীয় সেনার সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত থাকতে পাকিস্তান নিউক্লিয়ার ব্যালিস্টিক মিসাইল ‘Nasr’ তৈরি করছে বলেও জানা গিয়েছে।

উপরে