ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

পেটের মেদ কমাতে কার্যকর কিছু এক্সারসাইজ এবং খাবার

২০১৭ মে ১২ ০৯:৩০:২৯
পেটের মেদ কমাতে কার্যকর কিছু এক্সারসাইজ এবং খাবার

পেটের মেদ নিয়ে বিব্রত অবস্থায় পড়তে হয় অনেককেই। এটি যেমন শরীরের শেপ নষ্ট করে শরীরকে করে তোলে অনাকর্ষণীয় তেমনি নিজের সেলফ কনফিডেন্সও কমিয়ে দেয় অনেকখানি। পেটের মেদ বিভিন্ন কারণে হতে পারে। তার মধ্যে রয়েছে বংশগত সমস্যা, অতিরিক্ত ফ্যাট যুক্ত খাবার খাওয়া, দুর্বল মেটাবোলিজম ইত্যাদি।

অনেকেই মনে করে থাকেন যে শুধু ডায়েট করলেই পেটের মেদ কমানো সম্ভব। এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারনা, পেটের মেদ কমাতে হলে আপনাকে অবশ্যই ডায়েটের পাশাপাশি দিনে কমপক্ষে এক ঘণ্টা এক্সারসাইজ করতে হবে।

তাহলে আসুন জেনে নেয়া যাক কিছু এক্সারসাইজ সম্পর্কে যা পেটের মেদ কমাতে কার্যকরঃএকটি মাদুরে ফ্ল্যাট ভাবে শুয়ে ধীরে ধীরে পা দুটো ৯০ ডিগ্রী কোণ করে ফ্লোর থেকে উপরে উঠান। হাত দুটো শোয়া অবস্থায় মাথার পেছনে নিন। গভীরভাবে শ্বাস নিন এবং হাত সহ মাথা ফ্লোর থেকে ধীরে ধীরে উপরে উঠান এবং শ্বাস ছাড়ুন। আবার মাথা নীচে নামিয়ে শ্বাস নিন এবং উপরে উঠানোর সময় শ্বাস ছাড়ুন। এভাবে ১০ বার করুন।

ফ্লোরে সোজাভাবে শুয়ে হাতের তালু ফ্লোরের সাথে মিশিয়ে প্রথম ছবির মতো পা দুটো বাঁকা করে উপরে উঠান। এখন দ্বিতীয় ছবির মতো করে কোমর এমন ভাবে উপরে উঠান যাতে পা দুটো বুকের কাছাকাছি থাকে। কোমর উঠানোর সময় তলপেটে প্রেসার প্রয়োগ করুন। এরপর পা নীচে নামান এবং আবার বুকের কাছে নিন। এভাবে ৮-১০ বার করুন।

ফ্লোরে সোজাভাবে শুয়ে পা দুটো উপরে লম্বালম্বি ভাবে প্রসারিত করুন এবং ছবির মতো করে এক পা অন্য পায়ের উপর ক্রস করে রাখুন। এখন মাথার নীচে হাত রেখে ধীরে ধীরে মাথা উপরে উঠান যাতে তল পেটে চাপ পড়ে। মাথা উঠানোর আগে শ্বাস নিন এবং উঠানোর সময় শ্বাস ছাড়ুন। এভাবে ১২-১৬ বার করুন।

ফ্লোরে সোজা ভাবে শুয়ে হাত দুটো মাথার নীচে রাখুন। এখন ডান পা বুকের কাছে আনুন এবং বাম পা কিছুটা উপরে উঠিয়ে টান টান করে রাখুন। তারপর আবার বাম পা বুকের কাছে আনুন এবং ডান পা টানটান করে রাখুন। এই প্রক্রিয়াটি পুনরায় করতে থাকুন এবং এর সাথে মাথা হাতের সাহায্যে ধীরে ধীরে উপরে উঠান এবং নামান।

সোজা ভাবে দাড়িয়ে কোমরে দুই হাত রাখুন। এরপর বাম পা কোমরের সাথে ৯০ ডিগ্রী কোণ করে উপরে উঠান এবং ছবির মতো করে ডান পায়ের আঙ্গুল গুলোর উপর ভর দিয়ে দাঁড়ান। ৫-১০ সেকেন্ড রেখে দুই পা একসাথে ফ্লোরে রাখুন। পর্যায়ক্রমে সাইড পরিবর্তন করুন এবং ১০-১৫ বার করুন।

এছাড়াও পেটের অতিরিক্ত চর্বি কমাতে খাবারের লিস্টে এমন সব খাবার রাখতে হবে যা ক্যালরি বার্ণ করতে সহায়ক। আর সেসব খাবারে যাতে প্রোটিন এবং ফাইবার সমৃদ্ধ হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। আপনাদের জন্য কিছু খাবারের নাম দেয়া হলো যা পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করে।

– পেটের মেদ কমাতে খেতে পারেন নারিকেল বা নারিকেলের পানি। নারিকেলে রয়েছে মিডিয়াম চেইন ট্রাই গ্লিসারাইড্স যা শরীরের মেটাবলিক রেট বাড়ায়। মেটাবলিক রেট হচ্ছে যে হারে শরীরের চর্বি এনার্জি তে রূপান্তরিত হয়। তাই আপনার পেটের চর্বি কমাতে নারিকেল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

– আপনার নিয়মিত খাদ্যাভাসের সাথে যোগ করতে পারেন জাম্বুরা। জাম্বুরাতে থাকা ফাইটোকেমিকল্স্ ইনসুলিন যা লেভেল কমায় এবং এটি শরীরের ক্যালরিকে চর্বি তে রূপান্তরিত করার পরিবর্তে এনার্জিতে রূপান্তরিত করে।

– টমেটোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট্স যা চর্বি কমায়। তাই নিয়মিত সালাদের সাথে যোগ করতে পারেন টমেটো।

– আপেলে আছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার যা শরীরের মেটাবলিক রেট বাড়ায় এবং পেট অনেকক্ষণ পর্যন্ত ভর্তি রাখতে সাহায্য করে। এছাড়াও এতে রয়েছে পেক্টিন যা শরীরের কোষে চর্বি জমতে দেয় না।

– এছাড়াও অন্যান্য যেসব খাবার পেটের মেদ কমাতে কার্যকর সেগুলো হচ্ছে কলা, শশা, ডালিম, ব্রকলি, গাজর, লেবু, লেটুস, কমলা, তরমুজ ইত্যাদি।

উপরে