ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১ পৌষ ১৪২৪

সাত বিষয়ে আপনি অতিরিক্ত ব্যয় করছেন কি?

২০১৪ অক্টোবর ২৯ ২১:২৯:৪৮
সাত বিষয়ে আপনি অতিরিক্ত ব্যয় করছেন কি?

মাসের খরচের টাকা কোথায় ব্যয় হয় তা হয়তো অনেকেই বুঝতে পারেন না। কিন্তু ছোট ছোট ব্যয় থেকেই আপনার অনেক সময় মাসের বড় অঙ্কের ব্যয় বেরিয়ে যায়।

কিন্তু সঠিকভাবে খেয়াল না করায় আপনি হয়তো তা বুঝতেও পারবেন না। এ লেখায় দেওয়া হলো সাতটি বিষয়, যা মাস শেষে আপনার অজান্তেই বড় অংকের ব্যয় তৈরি করে।
১. কফি
অনেকেই ফাস্ট ফুডের দোকান থেকে প্রচুর দাম দিয়ে কফি খাওয়ার অভ্যাস আছে। অনেক সময় এক কাপ কফির দাম হয় ছোটখাট একটি কফি ব্যাগের সমান। আর কফি বানিয়ে খাওয়ার বদলে নিয়মিত বাড়তি মূল্য দিয়ে কফি কিনে খেলে মাস শেষে তা আপনার মানিব্যাগ থেকে যথেষ্ঠ টাকা খসাতে পারে।
২. সিনেমা হল
সিনেমা দেখার ক্ষেত্রে অনেকেরই মূল্য দিয়ে টিকিট কিনে দেখার অভ্যাস রয়েছে। আর এ ক্ষেত্রে সিনেমাটি অনলাইনে, টিভিতে, ডিভিডি কিনে বা অন্য কোনো উপায়ে দেখা সম্ভব। আপনি যদি নিয়মিত সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখেন তাহলে মাস শেষে কত অর্থ খরচ হচ্ছে, তা হিসাব করে দেখতে পারেন।
৩. রেস্টুরেন্ট ও ফাস্ট ফুড
আপনার হয়তো রান্না করতে ভালো লাগে না কিংবা বন্ধুদের সঙ্গে বাইরে বাইরে খাওয়া-দাওয়া করেই বেড়াতে ভালো লাগে। কিন্তু এ ক্ষেত্রে খরচের বিষয়টি যদি আপনার খেয়াল না থাকে তাহলে তা মাস শেষে সত্যিই আপনার বিল বাড়িয়ে দেবে। আর এক্ষেত্রে খরচ কমাতে চাইলে নিয়মিত রেস্টুরেন্টে খাওয়া বাদ দিয়ে তা মাঝে মাঝে করা যেতে পারে। এ ছাড়া মূল্য ছাড় ও সাশ্রয়ী প্যাকেজের বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে।
৪. বিনোদন
অনেকেই বিনোদনের পেছনে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করেন যা একটু খেয়াল করলেই কম খরচে করা সম্ভব। এসব খরচের মধ্যে রয়েছে মূল্যবান টিভি, ডিভিডি ইত্যাদির পেছনে ব্যয়।
৫. মূল্যবান শ্যাম্পু ও প্রসাধনী
বাজারে প্রচলিত মানসম্মত প্রসাধনী সামগ্রী একজন সুস্থ মানুষের জন্য পর্যাপ্ত। কিন্তু আপনি যদি আরও বেশি টাকা খরচ করে মূল্যবান সামগ্রী ব্যবহার করতে আগ্রহী হন তাহলে তা আপনার খরচ অনেকখানি বাড়িয়ে দেবে। কিন্তু এতে আপনার চুল কিংবা ত্বকের তেমন কোনো পরিবর্তন হবে না, বরং পরিবর্তন হবে আপনার মানিব্যাগের।
৬. প্যাকেট করা খাবার
ব্যস্ততার অজুহাতে অনেকেই রান্না করা খাবার বাদ দিয়ে প্যাকেট করা প্রক্রিয়াজাত খাবার খেতে অভ্যস্ত। আর এসব খাবার যেমন স্বাস্থ্যের জন্য খারাপ তেমন মানিব্যাগের জন্যও ক্ষতিকর।
৭. চিকিৎসা
স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়া ও জীবনযাপনে বহু রোগব্যাধি দূরে রাখা সম্ভব, যা আদতে আপনার অসুস্থতাজনিত চিকিৎসার খরচ কমিয়ে দেবে।
চিকিৎসাক্ষেত্রে অনেকেই অপ্রয়োজনে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার কিংবা ব্যয়বহুল হাসপাতালের দ্বারস্থ হন। যদিও সঠিক প্রয়োজন ছাড়া এসব বিষয় স্বাস্থ্যগত তেমন পার্থক্য তৈরি করে না।

লাইফ স্টাইল এর সর্বশেষ খবর

লাইফ স্টাইল - এর সব খবর

উপরে