ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

স্মার্টফোন ব্যবহারে স্বস্তি দেবে ১০ উপায়

২০১৪ অক্টোবর ২৩ ১৩:৩৮:১৭
স্মার্টফোন ব্যবহারে স্বস্তি দেবে ১০ উপায়

স্মার্টফোন এখন অনেকেরই জীবনযাত্রার একটি অংশ হয়ে উঠেছে। আর এক্ষেত্রে যন্ত্রটির অতিরিক্ত ব্যবহার বিড়ম্বনায়ও ফেলছে প্রচুর মানুষকে।

ফলে এ বিড়ম্বনা এড়ানোর জন্য নানা উপায়ের সন্ধান করতে হচ্ছে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের। এ লেখায় থাকছে তেমন ১০টি উপায়, যা ব্যবহারে স্মার্টফোন থাকলেও কিছুটা স্বস্তি পাবেন ব্যবহারকারীরা। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হাফিংটন পোস্ট।
১. ভাইব্রেশনের বদলে ‘ডু নট ডিস্টার্ব’
কোনো মিটিংয়ে বা ক্লাসে থাকার সময় স্মার্টফোন নিরব রাখার প্রয়োজন হতে পারে। আপনার পকেটের স্মার্টফোনটি যদি ভাইব্রেট করতে থাকে একটু পর পর তাহলে তা বিরক্তি ডেকে আনতে পারে। আর তাই ব্যবহার করুন ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ ফিচার।
২. টেবিলের থেকে নামিয়ে রাখুন
কাজ করার সময় স্মার্টফোনটি চোখের সামনে রাখার কোনো প্রয়োজন নেই। এতে তা দৃষ্টি আকর্ষণ করে এবং কাজের মনোযোগ নষ্ট হয়। তাই চোখের আড়ালে রাখাই ভালো।
৩. উদ্দেশ্য বলে নিন
স্মার্টফোন হাতে নিয়ে ঠিক কোন কাজটি আপনি করতে চান, তা ভুলে গেলে চলবে না। যদিও অনেকেই কিছুক্ষণের জন্য তা ভুলে যান। তাই কাউকে ফোন করার জন্য স্মার্টফোনটি নিলে বলে নিন- ওমুককে ফোন করছি। এ সময় একটু ফেসবুক চেক করার অভ্যাস ত্যাগ করুন।
৪. একঘেয়ে হলে স্মার্টফোন নয়
একঘেয়ে হয়ে যাওয়ার পর কোনো নির্দিষ্ট কারণ ছাড়া স্মার্টফোন ব্যবহার করলে তা আপনার একঘেয়েমি আরও বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই এসময় স্মার্টফোন বাদ দিয়ে অন্য বিষয়ে মনোযোগী হোন।
৫. ফোন ব্যবহারের সময় অন্য কাজ নয়
অনেকেই গাড়ি চালানোর সময় স্মার্টফোন ব্যবহার করে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন। এজন্য ফোন ব্যবহারের সময় দুর্ঘটনা এড়াতে অন্য সব কাজ বাদ দেওয়া উচিত। এমনকি হাঁটতে হাঁটতে ফোন ব্যবহারও আপনাকে মারাত্মক দুর্ঘটনার মুখোমুখি করতে পারে।
৬. হোম স্ক্রিনে টেক্সট প্রিভিউ বন্ধ করুন
আপনাকে যারা টেক্সট বা ইমেইল করছে তাদের প্রাইভেসির প্রতি সম্মান করুন। তাদের পাঠানো সব বিষয় যদি আপনার হোম স্ক্রিনে থাকে এবং কোনো পাসওয়ার্ড ছাড়াই দেখা যায়, তাহলে নষ্ট হবে প্রাইভেসি।
৭. সোয়াইপের জন্য অনুমতি চান
ধরুন অন্য একজন তার স্মার্টফোন থেকে একটি ছবি দেখতে দিলেন আপনাকে। এজন্য আপনি কি সোয়াইপ করে অ্যালবামের সব ছবি দেখা শুরু করবেন? কাজটি করার আগে অনুমতি নিয়ে নিন।
৮. সবকিছু ‘স্মার্টফোনবন্দী’ করা বাদ দিন
দৈনন্দিন জীবনে যা খাচ্ছেন, যেখানে বসছেন, যেখানে যাতায়াত করছেন সবকিছু স্মার্টফোনে ছবি বা ভিডিও করে রাখার প্রয়োজন আছে কি? এতে আশপাশের মানুষ বিরক্তির চরমে পৌঁছায়। তাই এ কাজ বাদ দিন।
৯. হেডফোন নামিয়ে রাখুন
অন্য একজনের সঙ্গে কথা বলার সময় কানে হেডফোন তুলে রাখা সত্যিই বিরক্তিকর। তাই প্রয়োজনের সময়ে এটি নামিয়ে রাখুন।
১০. কিছুক্ষণের বিরতি নিন
দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা আপনি কি স্মার্টফোনের নেশায় আচ্ছন্ন? এতে আপনার বহু সময় ব্যয় হয়? যদি তাই হয় তাহলে প্রতিদিন কিছু সময় স্মার্টফোন থেকে দূরে থাকুন। প্রথমে কিছুটা অসুবিধা হলেও পরে এতে স্বস্তি পাবেন।

লাইফ স্টাইল এর সর্বশেষ খবর

লাইফ স্টাইল - এর সব খবর

উপরে