ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

বাড়তি ওজন কমানোর উপায়

২০১৪ আগস্ট ২১ ১৭:৪১:৪৭
বাড়তি ওজন কমানোর উপায়

বয়স যাই হোক, মানুষ ওজন কমাতে মানুষ কতো কিছু না করে। জিম, শারীরিক ব্যায়াম, ডায়েটিং- কতো কি? কিন্তু জীবনে বাস্ততার মুখে

এতো সময় কোথায়। তাই অল্প সময়ে স্লিম হওয়ার ১০টি উপায় জেনে নিন তাহলে এতো কিছুর ঝামেলা যেমন থাকবে না তেমনি থাকেবে না বাড়তি ওজনের ঝামেলা।উপায় গুলো হলো:

১. প্রতিদিন মাত্র ১০-১৫ মিনিট প্রাণ খুলে হাসুন. এতেই ২৮০ ক্যালোরি বার্ন করে ফেলবেন।
২. নিয়ম মেনে প্রতি সপ্তাহে আকুপাংচার করাতে পারলে ৩ মাসে কম-বেশি ৪.৫ ওজন কমবে. শুধু তাই নয়, আকুপাংচার করালে যখন তখন খিদে পাওয়াটাও নিয়ন্ত্রনে আসে।
৩.প্রতিদিন এক কাপ টক দইয়ে আধা চা-চামচ দারচিনি মিশিয়ে খেতে থাকুন. দারচিনি হজমশক্তি বাড়ায়. এবং মাত্র আধা চামচ দারচিনিই শরীরের বাড়তি মেদ ঝরানোর পক্ষে যথেষ্ট।
৪. ভুলেও কাজ করতে করতে খাবেন না. বরং হাত ফাঁকা হলে ধীরে-সুস্থে বসে খান. এতে কিন্তু অন্তত ২৫০ ক্যালোরি খাবার কম প্রবেশ করবে।
৫. গবেষণা বলছে, একগ্লাস গাজরের রস সপ্তাহে দুই পাউন্ডের মতো ওজন কমাতে পারে।
৬. ডায়েটে ক্যালসিয়াম রাখুন এবং বাড়তি ওজনের ২.৬ শতাংশ কমবে এতেই।
৭. একা একা শরীরচর্চার বদলে কাউকে সঙ্গে নিয়ে করুন। তাহলে উত্‍‌সাহ পাবেন বেশিএবং ফল ভালো হবে।
৮. খাওয়ার পাতে লঙ্কা খাবেন। এতে হজমশক্তি প্রায় ২৫ শতাংশ বেড়ে যাবে।
৯. টিভি দেখতে দেখতে না খাওয়াটাই ভালো।এতে অন্যমনস্ক হয়ে বেশি খেয়ে ফেলতে পারেন। বরং টিভি দেখতে দেখতে না খেলে বছরে ৩.৫ ক্যালোরি পর্যন্ত ওজন বাড়বে না।
১০. প্রতিদিন গ্রিন চা খেতে পারলে ২০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যালোরি বার্ন করতে পারবেন।

উপরে